HISTORYInternational

মাওবাদ কি? মাওবাদের বৈশিষ্ট্য, বিষয়বস্তু

1 min read

মাওবাদ কি?

মাওবাদ (maoism) হল মাও সে তুং (1893-1976) কর্তৃক বিকশিত কমিউনিজমের একটি রূপ। অর্থাৎ মাওবাদ বলতে মাও সেতুং এর দৃষ্টি, আদর্শ এবং রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি বোঝায়।মাও সে তুং এর ভিশন, আদর্শ এবং রাজনৈতিক দৃষ্টিভঙ্গি অনুসরণকারীদের মাওবাদী (maoists) বলা হয়।
মাওবাদ একটি রাজনৈতিক মতাদর্শ, যা চীন এবং বিশ্বকে বিপ্লবী উপায়ে রূপান্তরিত করার সম্পর্কে মাওয়ের তত্ত্ব এবং পদ্ধতির প্রতিনিধিত্ব করে। মাওয়ের বিপ্লবী তত্ত্বের বিশেষ সূত্র মার্কসবাদী, লেনিনবাদী এবং স্ট্যালিনবাদী ঐতিহ্য (রূপ) থেকে নেওয়া হয়েছে।
১৯২০-এর দশক থেকে ১৯৭৬ সালে মাও-এর মৃত্যু পর্যন্ত, চীনা কমিউনিস্ট পার্টিতে মাও সেতুং এবং তার সহযোগীদের দ্বারা বিকশিত বিপ্লবের আদর্শ এবং পদ্ধতির সমন্বয়ে মাওবাদ গঠিত হয়েছে। মাওবাদ স্পষ্টভাবে একটি স্বতন্ত্র বিপ্লবী দৃষ্টিভঙ্গির উপর ভিত্তি করে গড়ে উঠেছিল।
মাওবাদের অন্যান্য তত্ত্বের মধ্যে রয়েছে দ্বন্দ্ব এবং স্থায়ী বিপ্লবের ধারণা। যদিও বর্তমান চীনে, মাওবাদ একটি আদর্শিক ধ্বংসাবশেষ হিসাবে বিবেচিত, তবুও এই মতবাদটি অন্যান্য বিপ্লবী আন্দোলনকে অনুপ্রাণিত করেছে।
মাওবাদীরা কমিউনিস্ট বিপ্লবী যারা প্রধানত মার্কস, লেনিন এবং মাও সেতুং-এর শিক্ষা অনুসরণ করে। তাদের লড়াই মূলত সব ধরনের নিপীড়নের বিরুদ্ধে। একজন মাওবাদী যে কোন পটভূমি, বর্ণ, শ্রেণী, ধর্ম, লিঙ্গ ইত্যাদি থেকে আসতে পারে।

মাওবাদের বৈশিষ্ট্য

মাওবাদের আদর্শ সংজ্ঞায়িত করার ভিত্তি হিসেবে মাও-এর নিজস্ব অভিব্যক্তি এবং চিন্তাধারা সমূকে উল্লেখ করা যেতে পারে। যদিও মাও কখনই তার আদর্শগুলোকে স্পষ্টভাবে সংজ্ঞায়িত করতে সক্ষম হননি যার মাধ্যমে এটি বাস্তবে পরিণত হবে। নিম্মে মাওবাদের মৌলিক আদর্শের বৈশিষ্ট্য ও বিষয়বস্তু বিস্তারিত বর্ণনা করা হল।
  • মাওবাদী মতাদর্শের কেন্দ্রীয় বৈশিষ্ট্য হ’ল সহিংসতা এবং সশস্ত্র বিদ্রোহকে রাষ্ট্রীয় ক্ষমতা দখলের উপায় হিসাবে ব্যবহার করা।
  • মাওবাদী মতাদর্শ সহিংসতাকে সমর্থন করে এবং সহিংসতার জন্য প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়।
  • প্রতিকারের একমাত্র উপায় হিসাবে সহিংসতার আশ্রয় নেওয়ার জন্য প্ররোচিত করে।
  • মাওবাদীদের লড়াই মূলত সব ধরনের নিপীড়নের বিরুদ্ধে।
  • সর্বজনীন ন্যায়বিচার ও সাম্যের আদর্শের জন্য লড়াই। এটি পুরোনো কনফুসিয়ান আদর্শের সাথেও সামঞ্জস্যপূর্ণ ছিল।
  • মাও-এর মতে, বিপ্লবের জন্য একটি অপরিহার্য শর্ত জনগণের চেতনা এবং ইচ্ছা।
  • বিপ্লবের মাওবাদী আদর্শ নির্মাণের চেয়ে ধ্বংসের ওপর বেশি জোর দেয়। মাও দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করতেন যে “ধ্বংস ছাড়া কোনো নির্মাণই ঘটে না; ধ্বংস যখন চলছে তখনই নির্মাণের প্রক্রিয়া শুরু হয়।
  • বিপ্লবী কৌশল ও কার্যপদ্ধতি হিসেবে মাওবাদ। কিভাবে বিপ্লব ঘটাতে হবে, উন্নত করতে হবে এবং টিকিয়ে রাখতে হবে সেই বিষয়ে বিভিন্ন কৌশল ও কার্যপদ্ধতিও প্রতিনিধিত্ব করে।
  • মাওবাদী বিপ্লবী কৌশলের কেন্দ্রীয় মিশন জনসমর্থন সম্পর্কিত। বিশেষ করে মাও চীনা বিপ্লবের প্রধান শক্তি হিসেবে কৃষকদের অন্তর্ভুক্ত করার ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন।
  • মাওবাদ শহুরে শ্রমিক-শ্রেণি-কেন্দ্রিক সংগঠিত কৌশল থেকে আলাদা করেছে যা গোঁড়া মার্কসবাদ-লেনিনবাদের পক্ষপাতী।
  • মাওবাদ, মার্কসবাদ-লেনিনবাদের সকল বৈশিষ্ট্যে বিশ্বাস করে। শুধুমাত্র এর কিছু অতিরিক্ত উপাদান রয়েছে, যা মার্কসবাদ-লেনিনবাদের বাইরে মাও দ্বারা বিকশিত। এই উপাদানগুলি নিম্নরূপ: নতুন গণতন্ত্র (New Democracy), জনযুদ্ধ (People’s war), ভর লাইন তত্ত্ব (Mass line theory), সাংস্কৃতিক বিপ্লব (Cultural revolution), দ্বন্দ্ব (Contradiction), তৃতীয় বিশ্বের তত্ত্ব (Theory of the three worlds), কৃষিভিত্তিক সমাজতন্ত্র (Agrarian socialism)।
5/5 - (15 votes)
Mithu Khan

I am a blogger and educator with a passion for sharing knowledge and insights with others. I am currently studying for my honors degree in mathematics at Govt. Edward College, Pabna.