Blog
1 min read

বিটকয়েন(Bitcoin)কী এবং এর আবির্ভাব

বিটকয়েন কী

বিটকয়েন এমন একটি ইলেকট্রনিক মুদ্রা যা ব্যবহারকারী তার নিজস্ব পরিচয় গোপন করে বিনিময় করতে পারবে। এই মুদ্রার বাস্তব কোনো অস্তিত্ব নেই।

এর আদান-প্রদান হয় বিশ্বের বিভিন্ন স্থানে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা কম্পিউটারের মাধ্যমে।

একটি লেনদেনে বিটকয়েনের(Bitcoin) সাথে সম্পৃক্ত বিশ্বের সকল কম্পিউটার অংশগ্রহণ করে।

কম্পিউটার গুলো জটিল অ্যালগরিদম এর মাধ্যমে আদান-প্রদান রেকর্ড করে থাকে। তাই বিটকয়েনের(Bitcoin) হ্যাকিং এর সম্ভাবনা খুবই কম।

বিটকয়েন এর আবির্ভাব

সপ্তম শতকে কাগজে টাকার প্রচলন হলেও  ১৭ শতকের দিকে তা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে।

তখন প্রায় সব দেশ গোল্ড স্ট্যান্ডার্ড মেনে চলত, এটি বুঝায় টাকার মূল্য নির্ধারণ হবে সোনার উপর ভিত্তি করে।

১৯৭১ সালে আমেরিকা সহ বেশকিছু দেশ গোল্ড স্ট্যান্ডার্ড ছেড়ে বেরিয়ে আসে যাতে করে তারা আর গোল্ড স্ট্যান্ডার্ড মানবে না এবং এতে করে সরকারের হাতে সম্পূর্ণ ক্ষমতা চলে যায় টাকার মূল্য নির্ধারণের ক্ষেত্রে যাতে করে মুদ্রানীতির পরিবর্তন  সরকার সহজেই করতে পারে ।

এর ফলে বর্তমান সময়ে আমরা যে কাগজের টাকা দেখতে পাই এই টাকার মূল্য দাঁড়িয়ে আছে আমাদের সরকারের উপর বিশ্বাস যে প্রণয়ন করে তার উপর বিশ্বাস এই টাকাকে বলা হয় ফিআট মানি(FIAT Money) ।

কিন্তু কিছু কিছু সময় সরকার ও নীতি নির্ধারকদের ভুলের কারনে এই টাকা বাজারে অস্থিরতা ছড়িয়ে দেয়,  যেমন ২০০৮ সালে আমেরিকায় মুদ্রা বাজারে অস্থিরতা দেখা যায়। এর ফলে টাকার জন্য আমাদের সরকারের উপর বিশ্বাস কিছুটা হলেও কমে আসে।

কি হবে যদি আমরা সরকারকে বিশ্বাস করতে না পারি!

২০০৮ সালে আমেরিকায় তীব্র অর্থনৈতিক সংকটের বছর হোয়াইট পেপার নামের একটি থিসিস প্রকাশিত হয়।

৯ পৃষ্ঠার এই থিসিস পেপারে সাতাশি নাকামুতো এক নতুন ইলেক্ট্রনিক মুদ্রার আবির্ভাব ঘটান যা বিশ্বকে চমকে দেয়।

নতুন এই মুদ্রার জন্য আপনাকে আর সরকারের উপর বিশ্বাস স্থাপনের প্রয়োজন নেই। সাতাশি নাকামুতো যার নাম দেন “বিটকয়েন”(Bitcoin)।

 বিটকয়েনের(Bitcoin) দাম

প্রথম দিকে বিটকয়েন(Bitcoin) মাইনিং করা হতো শখের বশে, এর কোন আর্থিক মূল্য ছিল না।

২০১০ সালের ২২ শে মে লেজলু হানিয়েজ নামের এক ব্যক্তি ১০,০০০ বিটকয়েনের(Bitcoin) বিনিময়ে ২৫ ডলারের দুটি পিজ্জা বিক্রি করেন। এটিই বিটকয়েনের(Bitcoin) ইতিহাসে প্রথম বিটকয়েন দিয়ে কোন বস্তু কিনা হয়।

২০১০ সালের শেষর দিকে বিটকয়েনের আর্থিক মূল্য দাড়ায় .৩৯ ডলার। ২০১১ সালে তা বেড়ে দাড়ায় ১ ডলারে।

২০১৩ সালে এর দাম ১০০০ ডলারে পৌছায় আবার একই বছর তা ১০০ ডলারে নেমে আসে।

২০১৭ সালের ডিসেম্বরে বিটকয়েনের(Bitcoin) দাম দাড়ায় ২০,০০০ ডলার। এসময় বিভিন্ন দেশ বিটকয়েনের(Bitcoin) বিরুদ্ধে ব্যবস্হা নিতে শুরু করে।

যার ফলে ২০১৮ সালে এর দাম ৩,২০০ডলারে নেমে আসে।

২০২১ এ আবার বিটকয়েন স্বরুপে ফিরে আসে, ৩৬,১২০ ডলারে এর দাম উঠে আসে।

বিশ্বের অন্যতম প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান গুলো এর প্রতি আগ্রহ দেখাতে শুরু করেছে।

 বিটকয়েন(Bitcoin) ব্যবহারে সমস্যা

বিটকয়েন(Bitcoin) ব্যবহারে বিভিন্ন সমস্যা দেখা যায়।

সিল্ক রোড নামক কুখ্যাত ডার্ক সাইটের মাধ্যমে অস্ত্র ও মাদক কেনাবেচা হতো বিটকয়েন ব্যবহার করে।

আবার এটি ব্যবহারে কোন প্রমাণ থাকে না ফলে অপরাধী শনাক্ত করা যায় না। এর জন্য অনেক দেশ এটিকে অবৈধ ঘোষণা করেছে।

5/5 - (20 votes)