Blog
1 min read

স্মার্ট কার্ড কিভাবে পাবো

স্মার্ট কার্ড কিভাবে পাবো
স্মার্ট কার্ড কিভাবে পাবো

 

স্মার্ট কার্ড কিভাবে পাবো: জাতীয় পরিচয় পত্র বর্তমান সময়ে প্রত্যেকের জন্য খুবই মূল্যবান একটি সম্পদ।  সারা বাংলাদেশের প্রত্যেক নাগরিকের জন্য একটি করে জাতীয় পরিচয় পত্র নির্ধারণ করা হয়েছে।  জাতীয় পরিচয় পত্রের দুই ধরনের কার্ড রয়েছে।  একটি হচ্ছে স্মার্ট কার্ড এবং অপরটি কাগজে লেমিনেটিং করা সাধারণ কার্ড।  যদি আপনার মনে প্রশ্ন থাকে যে স্মার্ট কার্ড কিভাবে পাবো তাহলে আজকের আর্টিকেলটি শেষ পর্যন্ত  পড়ুন।

স্মার্ট কার্ড গুলো মূলত মেশিন রিডেবল।  এই মেশিন রিডেবল কার্ডের ডিজিটাল ডিভাইস এর সাহায্যে বাংলাদেশের নাগরিকদের বিভিন্ন তথ্য সংরক্ষণ করার থাকবে।  যেগুলো নাগরিক জীবনে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা প্রাপ্তির ক্ষেত্রে সহযোগিতা করবে।

 

তবে জরুরি প্রয়োজনে স্মার্ট কার্ড অথবা নরমাল কার্ড দুইটাই কাজে লাগানো যায়।  যেমন বিভিন্ন চাকরির ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি জমা দিতে হয়,  অথবা বিভিন্ন ব্যাংক প্রতিষ্ঠানেও জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি জমা দিতে হয়,  এছাড়া জমিজমাসংক্রান্ত কাজেও জাতীয় পরিচয় পত্রের ফটোকপি জমা দিতে হবে এ ধরনের জরুরি কাজে যখন আপনার আইডি কার্ডের ফটোকপি জমা দিতে হবে তখন স্মার্ট কার্ড অথবা নরমাল কার্ড যেকোনটাই জমা দিতে পারেন।  এ সকল ক্ষেত্রে স্মার্ট কার্ড অথবা নরমাল জাতীয় পরিচয় পত্র কার্ডের মধ্যে তেমন পার্থক্য করা হয় না।

তবে আপনার যদি স্মার্ট কার্ডের প্রতি দুর্বলতা থাকে অথবা যদি আপনার স্মার্ট কার্ড কবে পাবেন সে সম্পর্কে কৌতূহল থাকে তাহলে আপনি নিচে প্রদত্ত উপায় জেনে নিতে পারবেন।  কখন আপনি আপনার স্মার্ট  আইডি কার্ড হাতে পাবেন।  তাই আপনি যদি এখনও নিজের স্মার্টকার্ড না পেয়ে থাকেন তাহলে কিভাবে সেটা দেখবেন বা পাবেন সেই সম্পর্কে জেনে নিন।

 এসএমএস এর মাধ্যমে স্মার্ট কার্ড কিভাবে পাবো?

জাতীয় পরিচয় পত্রের স্মার্ট কার্ডের জন্য মোবাইল এসএমএস অপশনটি ব্যবহার করতে পারেন।  আপনার স্মার্টফোন অথবা যেকোনো মোবাইল থেকে মেসেজ অপশনে গিয়ে SC লিখে স্পেস দিয়ে NID লিখে স্পেস দিয়ে ১৭ ডিজিটের আইডি নম্বর লিখতে হবে।

আপনার এনআইডি নম্বর (nid number) যদি ১৩ ডিজিটের হয় তাহালে এনআইডি এর শুরুতে আপনার জন্ম সাল বসিয়ে দিয়ে ১৭ ডিজিট করে নিতে হবে।

এর পরে মেসেজ পাঠিয়ে দিবেন ১০৫ নম্বরে। যেকোনো সিম অপরেটর থেকে আপনি এসএমএস পাঠাতে পারবেন।

এই মেসেজ পাঠানোর পর আপনার মোবাইলে একটা ফিরতি ম্যাসেজ আসবে।  সেখানে যদি লেখা থাকে যে, “Your card distribution date is not scheduled yet, please try later” তাহলে বুঝতে হবে আপনার স্মার্ট কার্ড বিতরনের তারিখ এবং স্থান এখনো নির্ধারিত হয়নি।

এভাবে করে কিছুদিন পর পর এসএমএস পাঠিয়ে আপনি আপনার স্মার্ট কার্ডের স্ট্যাটাস চেক করতে পারবেন।  তারপর আরেকটি উপায় হচ্ছে 105 নম্বরে সরাসরি ফোন করে জিজ্ঞেস করা।  নির্বাচন কমিশনের হেলপ্লাইন নাম্বার এটি।  এছাড়াও 105 নম্বরে ফোন করে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র সংক্রান্ত যেকোন সমস্যার সমাধানের জন্য তাদের কাছে সহায়তা পেতে পারেন।

মোবাইলের মাধ্যমে এসএমএস পাঠানোর নমুনা SC 19948589618000099 Send 105

অনলাইনে স্মার্ট কার্ড বিতরণের তথ্য জানার উপায়?

আপনি যদি আপনার স্মার্ট কার্ড বিতরণের তথ্য অনলাইন থেকে জানতে চান তাহলে সেটাও জানতে পারবেন। এর জন্য আপনাকে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনার এর ওয়েবসাইটে যেতে হবে।

ওয়েব সাইট থেকে আপনার এনআইডি কার্ডের অথবা ভোটার নিবন্ধন ফরমের স্লিপ নম্বর,  জন্ম জন্ম তারিখ এবং ক্যাপচা পুরন করে আপনার ড্যাসবোর্ডের প্রবেশ করতে হবে। এক্ষেত্রে আপনার বর্তমান এবং স্থায়ী ঠিকানা দেওয়ার পর মোবাইল নাম্বার ভেরিফিকেশন করে পাশাপাশি ফেস ভেরিফিকেশন করে আপনাকে ড্যাশবোর্ডে প্রবেশ করতে হবে ।

ড্যাশবোর্ডে প্রবেশ করার পর স্ট্যাটাস নামে একটি অপশন দেখতে পাবেন সেখানে ক্লিক করলেই আপনি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের স্মার্ট কার্ড বিতরণ সংক্রান্ত তথ্য জানতে পারবেন।

এক্ষেত্রে আপনি বিভিন্ন ধরনের ইউটিউব চ্যানেল গুলোতে পরিপূর্ণ টিউটরিয়াল পেয়ে যাবেন।

তাহালে আজকে আমরা জানলাম স্মার্ট কার্ড কিভাবে পাবো এবং স্মার্ট কার্ড চেক করার উপায় সম্পর্কে। আমার লেখা আর্টিকেল যদি আপনার কাছে ভালো লাগে তাহালে কমেন্টে জানাবেন।

Rate this post