Class 7 - বাংলা

ছবির রং : সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর (PDF)

1 min read

বিভিন্ন ঋতুতেও আমাদের চারপাশের পরিবেশের রূপ ও রং বদলে যায়। ছবির সেই নানান রং ও রঙের বৈচিত্র্যের কথাই লেখক হাশেম খান তার ‘ছবির রং’ লেখাটিতে ফুটিয়ে তুলেছেন।

ছবির রং সৃজনশীল প্রশ্ন | আমরা চারপাশে গাছ-লতা পাতা, ফুল, মাঠ, নদী, পাহাড়-পর্বত ইত্যাদি দেখি। তাদের রূপ আছে, রং আছে। সেই রূপকে নানান রঙে নিজের মতাে যাঁরা আঁকেন তাঁদের আমরা বলি চিত্রশিল্পী। বিভিন্ন ঋতুতেও আমাদের চারপাশের পরিবেশের রূপ ও রং বদলে যায়। ছবির সেই নানান রং ও রঙের বৈচিত্র্যের কথাই লেখক হাশেম খান তার ‘ছবির রং’ লেখাটিতে ফুটিয়ে তুলেছেন।


ছবির রং সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর

সৃজনশীল প্রশ্ন ১ : গত ডিসেম্বরে রিংকু তার মামার বাড়ি আলােকদিয়ায় বেড়াতে যায়। তার মা তাকে সেখানকার স্কুলে নিয়ে যান। বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে নানা রঙের অনেক ফুল আর প্রজাপতি দেখে সে মুগ্ধ হয়। সেখানে সে শিক্ষার্থীদের তৈরি উজ্জ্বল রঙের নানা ধরনের পুতুল, বিভিন্ন রং দিয়ে আঁকা ছবি দেখে অভিভূত হয়ে পড়ে।

ক. চাষিরা কোন মাসে দল বেঁধে ফসল কাটে?
খ. ‘এ দেশের প্রকৃতি, নানারূপে প্রতিফলন ঘটেছে।’ -বুঝিয়ে লেখাে।
গ. বিদ্যালয়ের দৃশ্যে কোন ঋতুর পরিচয় পাওয়া যায়?
ঘ. ‘বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের তৈরি পুতুল ও আঁকা ছবিগুলাে যেন আমাদেরই প্রকৃতি।’ -‘ছবির রং’ প্রবন্ধের আলােকে এ উক্তির তাৎপর্য বিশ্লেষণ করাে।

সৃজনশীল প্রশ্ন ২ : চিত্রকলা প্রদর্শনীতে জয়পুরহাট সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়সহ বেশ কিছু বিদ্যালয়ের স্টল রয়েছে। শিক্ষার্থীদের উজ্জ্বল আর সাহসী রঙে আঁকানাে ছবিগুলােতে বাংলার বিভিন্ন বিষয় ফুটে উঠেছে। অধিকাংশ চিত্রে ফুটে উঠেছে বাংলার মনােমুগ্ধকর প্রকৃতি। গ্রীষ্ম, বর্ষা, শরৎ, শীত ও বসন্ত ঋতুর বিশেষ বৈশিষ্ট্যগুলাে চমৎকারভাবে ফুটে উঠেছে এসব চিত্রে। চিত্রগুলাে দেখে উপলব্ধি করা যায় বাংলার শিল্পীদের শিল্পকর্ম কেন সারা বিশ্বে প্রশংসা পাচ্ছে।

ক. কোন ঋতুকে রঙের ঋতু বলা হয়?
খ. প্রাথমিক বা মৌলিক রং বলতে কী বােঝাে?
গ. উদ্দীপকে যে ঋতুগুলাের উল্লেখ রয়েছে ‘ছবির রং’ প্রবন্ধের আলােকে সেগুলাের বৈশিষ্ট্য ব্যাখ্যা করাে।
ঘ. উদ্দীপক ও ‘ছবির রং’ প্রবন্ধের আলােকে বাংলার শিল্পীদের শিল্পকর্ম সারা বিশ্বে প্রশংসা পাওয়ার কারণ বিশ্লেষণ করাে।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৩ : শরৎ হচ্ছে আকাশ ও মাটির মিলন। একদিকে নীলাকাশ, আরেক দিকে কচি ফসলের দুরন্তপনা; একদিকে সােনা রােদ, আরেকদিকে সবুজের কচি মুখ; সঙ্গে আকাশ মৃত্তিকার যে হৃদয়াবেগ, তা আমাদের হৃদয়কে নাড়া দিয়ে যায় ।

ক. নীল ও লাল রং মেশালে কোন রং পাওয়া যায়?
খ. প্রাথমিক রং বলতে কী বােঝ? ব্যাখ্যা করাে।
গ. উদ্দীপকে ‘ছবির রং’ প্রবন্ধের কোন দিকটি প্রতিফলিত হয়েছে? তুলে ধরাে।
ঘ. এদেশের শিল্পীদের আঁকা ছবিতে উক্ত দিকটির প্রভাব বিশ্লেষণ করাে।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৪ : পুতুল গ্রামের বাড়িতে ছুটি কাটায়। গাঁয়ের বাড়ির পাশেই বাস পালদের। পালদের জীবিকা চলে মাটির দ্রব্য তৈরি করে। সেদিন পুতুল পালদের বাড়িতে মাটির নানা উপকরণ তৈরি করতে দেখে অবাক হয়ে যায়। পােড়ামাটির টালি টিনের বিকল্প হিসেবে ব্যবহৃত হয়, যা অসাধারণ দক্ষতার সাথে পালরা তৈরি করেছে। শৈল্পিক কারুকার্যখচিত পুতুল, মূর্তি, নকশা আঁকা ছাইদানি, পেপার ওয়েট, মাটির ব্যাংক দেখে পুতুল অভিভূত হয়। রং ও তুলিতে এদেশের পালরা মন ও নজরকাড়া মৃৎশিল্প বানাচ্ছে।

ক. হলুদ ও নীল মেশালে কী রং পাওয়া যায়?
খ. অগ্রহায়ণ মাসে পুরাে মাঠে হলুদ বা গেরুয়া রঙের বাহার দেখা যায় কেন?
গ. উদ্দীপকে প্রকাশিত পালদের কর্মকাণ্ড গ্রামীণ লোকশিল্পীদের কার্যক্রমের সাথে কতটুকু সামঞ্জস্যপূর্ণ? ব্যাখ্যা করাে।
ঘ. ‘রং ও তুলিতে এদেশের পালরা মন ও নজরকাড়া মৃৎশিল্প বানাচ্ছে’ -‘ছবির রং’ প্রবন্ধের আলােকে উক্তিটির মূল্যায়ন করাে।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৫ : সপ্তম শ্রেণির ছাত্র রবিন মামাবাড়ি বেড়াতে গিয়ে বসন্তের প্রকৃতি দেখে মুগ্ধ হয়ে যায়। গাছে গাছে ফুটে আছে নানা রঙের ফুল। ফুলে ফুলে ঘুরে বেড়াচ্ছে বাহারি মৌমাছি আর ফড়িং। আনন্দিত মনে রবিন তার দেখা প্রকৃতিকে ছবির খাতায় তুলে আনতে বসে যায়। ছবি আঁকার ক্ষেত্রে সে মৌলিক ও দ্বিতীয় পর্যায়ের রংগুলােকেই প্রাধান্য দেয়।

ক. মাধ্যমিক পর্যায়ের রং কয়টি?
খ. শীতকালে পুরাে প্রকৃতি যেন রঙের উৎসবে মেতে ওঠে -ব্যাখ্যা করাে।
গ. উদ্দীপকের রবিনের মনােভাবে ‘ছবির রং’ প্রবন্ধের কোন দিকটির প্রকাশ ঘটেছে? ব্যাখ্যা করাে।
ঘ. রবিনের আঁকা ছবির বৈশিষ্ট্য ‘ছবির রং’ প্রবন্ধের আলােকে বিশ্লেষণ করাে।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৬ : শফি সম্প্রতি ব্রাজিল থেকে এসেছে। তার কাছ থেকে জানা যায় সেখানকার প্রকৃতি সম্পর্কে। এ মৌসুমে সেখানকার আকাশ থাকে একেবারে মেঘমুক্ত, গরমও বেশি নয়। গাছ থাকে প্রায় পাতাশূন্য। ফলের দেখা মেলা ভার। প্রায় গাছেই প্রচুর রং-বেরঙের ফুল দেখা যায়।

ক. মৌলিক রং কয়টি?
খ. বাংলার শিল্পীদের শিল্পকর্ম সারা বিশ্বে প্রশংসা পাচ্ছে কেন?
গ. শফির দেখা ব্রাজিলের মৌসুমটির সাথে বাংলাদেশের গ্রীষ্ম ঋতুর সাদৃশ্য ও বৈসাদৃশ্য তুলে ধরাে।
ঘ. ‘বাংলাদেশের গ্রীষ্ম ঋতুর চেয়ে শফির দেখা ব্রাজিলের মৌসুমটি বেশ মনােমুগ্ধকর।’ -উক্তিটির স্বপক্ষে তােমার মতামত ব্যক্ত করাে।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৭ : আমাদের চারপাশে রয়েছে গাছ-লতাপাতা, ফুল, মাঠ, নদী, পাহাড়, পর্বত। আরও আছে মানুষ ও পশুপাখি। তাদের রূপ ও রং আছে। সেই রূপকে নানা রঙে নিজের মতাে করে যারা আঁকেন তাদের আমরা বলি চিত্রশিল্পী। বিভিন্ন ঋতুতেও আমাদের চারপাশের পরিবেশের রূপ ও রং বদলে যায়। চিত্রশিল্পীও তাদের রঙের বৈচিত্র্যের কথাই লেখক তার ‘ছবির রং’ লেখাটিতে ফুটিয়ে তুলেছেন।

ক. হাশেম খান কোথায় জন্মগ্রহণ করেন?
খ. অতিথি পাখির পরিচয় দাও।
গ. ‘প্রকৃতির রং ছবি করেই চিত্রশিল্পী গড়ে তােলেন তারা সার্থক চিত্রকর্ম।’ তােমার মতামত দাও।
ঘ. উদ্দীপকের বর্ণনা অনুসারে ‘ছবির রং’ রচনাটির নামকরণের সার্থকতা বিচার করাে।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৮ : জাতীয় শােক দিবসে ছবি আঁকার প্রতিযােগিতা শুরু হয়েছে। পঞ্চম শ্রেণিতে অঙ্কন প্রতিযােগীদের সাথে ছবি আঁকছে। সকলের দৃষ্টি অংকনের দিকে। উজ্জ্বল রঙের ব্যবহারে কী নিখুঁতভাবে আঁকছে সে! যেন হৃদয়ের কথা তুলিতে ফুটে উঠছে। ডান হাত নেই বলে বাঁ হাতেই সব কাজ করতে হয় তাকে। আজকের প্রতিযােগিতায় অভ্কনের আঁকা ছবিটিই শ্রেষ্ঠস্থান অধিকার করেছে।

ক. ‘বাহার’ শব্দটির অর্থ কী?
খ. গ্রীষ্মকালে প্রকৃতিতে নানা রঙের খেলা চলে কেমন করে?
গ. উদ্দীপকের অংকনের ছবি আঁকার দিকটি ‘ছবির রং’ প্রবন্ধের কোন দিকটিকে তুলে ধরে? আলােচনা করাে।
ঘ. ‘যেন হৃদয়ের কথা তুলিতে ফুটেছে তার।’ -উক্তিটি ‘ছবির রং’ প্রবন্ধের আলােকে বিশ্লেষণ করাে।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৯ : এক সময়ে এদেশের গ্রামাঞ্চলের মেয়েরা অবসর সময়ে নকশিকাঁথা সেলাই করত। তারা কাঁথা সেলাই করার জন্য বিভিন্ন রং দিয়ে নকশা তৈরি করত এবং নানা রঙের সুতা দিয়ে কাঁথা সেলাই করত। মনে হতাে কথাগুলাে যেন প্রকৃতির অপরূপ রূপে সজ্জিত হয়েছে, যা এক সময় বাঙালিকে বিশ্ব দরবারে পরিচয় করিয়ে দিয়েছে। এ কথাগুলাে বাঙালির ঐতিহ্য বহন করে আসছে। কেননা কাঁথাগুলােতে প্রকৃতি ও মানুষের জীবন্ত চিত্র ফুটিয়ে তােলা হয়েছে। যে চিত্রগুলাে রং-বেরঙের সুতা দিয়ে নিখুতভাবে তৈরি করা হয়েছে।

ক. লাল ও হলুদ মিলে কী রং হয়?
খ. বাংলাদেশের শিশুদের ছবিকে আলাদা করে চেনা যায় কেমন করে?
গ. উদ্দীপকে ‘ছবির রং’ প্রবন্ধটির কোন দিকটা ফুটে উঠেছে? উপস্থাপন করাে।
ঘ. “উদ্দীপকে যেন ‘ছবির রং’ প্রবন্ধের আংশিক চিত্র প্রতিফলিত হয়েছে।” মূল্যায়ন করাে।

সৃজনশীল প্রশ্ন ১০ : ভারতের লক্ষ্নৌ থেকে নির্ঝর ও নিলয় ঢাকায় এসেছে। ঢাকার একটি চিত্র প্রদর্শনীতে যায় তারা। একটি ছবির কাছে এসে নির্ঝরের চোখ থমকে যায়। ছবিটি যশোরের ঐতিহ্য নিয়ে আঁকা। এটি যেন ভিন্ন কোনো প্রকৃতির ছবি।

ক. বাংলাদেশে ঋতু কয়টি?
খ. এ দেশের প্রকৃতির নানা রূপের প্রতিফলন ঘটেছে ছবিতে- বুঝিয়ে লেখো।
গ. নির্ঝরের দেখা ছবিটির বৈশিষ্ট্য কী- ব্যাখ্যা করো।
ঘ. চিত্রশিল্পকে বিশ্বের দরবারে তুলে ধরতে উদ্দীপকে উল্লিখিত ছবি আঁকার প্রয়োজনীয়তা ব্যাখ্যা করো।


ANSWER SHEET

উপরে ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করে ছবির রং সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর ডাউনলোড করে নাও।

Rate this post
Mithu Khan

I am a blogger and educator with a passion for sharing knowledge and insights with others. I am currently studying for my honors degree in mathematics at Govt. Edward College, Pabna.

Leave a Comment