Class 6 - ইসলাম শিক্ষা
1 min read

(৪র্থ অধ্যায়) ষষ্ঠ শ্রেণির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা সৃজনশীল প্রশ্ন (PDF)

ষষ্ঠ শ্রেণির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা ৪র্থ অধ্যায় সৃজনশীল প্রশ্ন : মহান আল্লাহ মানুষকে পৃথিবীতে সৃষ্টির সেরা হিসেবে পাঠিয়েছেন। মানুষের এই শ্রেষ্ঠত্বের মর্যাদা বজায় রাখতে হলে প্রয়োজন সুন্দর আচার-আচরণ। মানুষের দৈনন্দিন কাজকর্মের মাধ্যমে যেসব আচার ব্যবহার, চালচলন এবং স্বভাবের প্রকাশ ঘটে সেসবের সমষ্টিই আখলাক। এটি শুধু মানুষের সাথেই সীমাবদ্ধ নয়। বরং জীবজন্তু, পশুপাখি, গাছপালা ও পরিবেশের সাথেও সুন্দর আচরণ প্রয়োজন।

মানুষ সামাজিক জীব। পরিবার এবং সমাজবদ্ধ হয়ে বাস করে। কখনো আখলাক (আচরণ) প্রশংসনীয় হয় আবার কখনো নিন্দনীয় হয়। প্রশংসনীয় আচরণকে আখলাকে হামিদাহ্ বা সচ্চরিত্র বলে। আর নিন্দনীয় আচরণকে আখলাকে যামিমাহ্ বলে। আখলাকে হামিদাহ্ বা প্রশংসনীয় আচরণগুলো হলো সত্যবাদিতা, পিতামাতার প্রতি উত্তম ব্যবহার, শিক্ষকদের সম্মান করা, আত্মীয়স্বজন, প্রতিবেশী, সহপাঠীদের সাথে সদাচরণ, বড়োদের প্রতি শ্রদ্ধা ও ছোটোদের প্রতি স্নেহ ইত্যাদি।

আখলাকে যামিমাহ্ বা নিন্দনীয় আচরণগুলো হলো মিথ্যা কথা বলা, পরনিন্দা করা, আমানতের খিয়ানত করা, গালি দেওয়া, আত্মীয়তার সম্পর্ক ছিন্ন করা ইত্যাদি। প্রতিটি মানুষের আখলাকে হামিদাহ্ অর্জন ও আখলাকে যামিমাহ্ বর্জন করা উচিত। আমরা আখলাকে হামিদাহ্ অর্জন করব এবং আখলাকে যামিমাহ্ বর্জন করব।

ষষ্ঠ শ্রেণির ইসলাম ও নৈতিক শিক্ষা ৪র্থ অধ্যায় সৃজনশীল প্রশ্ন

সৃজনশীল প্রশ্ন ১ : বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের দুই বান্ধবী ফারজানা ও কাকলি। পড়াশোনা শেষে একই ব্যাংকে একই সাথে একই পদে চাকরিতে জয়েন করে। চার বছর পর কাকলি পদোন্নতি পায়। এতে ফারজানা মনে কিছুটা কষ্ট পায়। কিছুদিন পর থেকে ফারজানা কাকলির বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের কিছু দোষ-ত্রুটি অন্য সহকর্মীদের কাছে বলে বেড়াতে লাগলো। এতে অফিসের কর্মপরিবেশ কিছুটা ক্ষুণ্ণ হয়। একদিন তাদের অফিসের অফিস সহায়ক বৃদ্ধ হামিদা বেগম ফারজানা বেগমকে বলল, ‘আপা,
কোনো অবস্থাতেই কাকলি আপার অনুপস্থিতিতে তার সম্পর্কে কোনো সমালোচনা করা ঠিক নয়।’

ক. সিদক অর্থ কী?
খ. আখলাকে হামিদাহ্ বলতে কী বোঝায়? ব্যাখ্যা কর।
গ. ফারজানার কর্মকাণ্ডে কী প্রকাশ পেয়েছে? ব্যাখ্যা কর।
ঘ. উদ্দীপকের হামিদা বেগমের বক্তব্যের তাৎপর্য মূল্যায়ন কর।

প্রশ্নের উত্তর

ক. সিদক-এর অর্থ সত্যবাদিতা।

খ. মানুষের উত্তম বা প্রশংসনীয় আচরণকে আখলাকে হামিদাহ্ বলা হয়ে থাকে। মানুষ সামাজিক জীব। পরিবার এবং সমাজবদ্ধ হয়ে বাস করে। সমাজে বসবাস করতে গিয়ে মানুষের নানা আচার-আচরণের প্রকাশ ঘটে। এর মধ্যে কিছু আচরণ রয়েছে, যা সবার জন্য কল্যাণকর। এ ধরনের প্রশংসনীয় আচরণকে আখলাকে হামিদাহ বলা হয়ে থাকে।

গ. ফারজানার কর্মকাণ্ডে গিবত বা পরনিন্দা প্রকাশ পেয়েছে। গিবত অর্থ পরনিন্দা, অসাক্ষাতে দুর্নাম করা, অপরের দোষ প্রকাশ করা ইত্যাদি। ইসলামি পরিভাষায়, কারো অনুপস্থিতিতে যদি তার সম্পর্কে কষ্ট পাওয়ার মত কথা বলা হয় তাকে গিবত বলে। ফারজানার আচরণে এ নিন্দনীয় বিষয়টিই প্রকাশ পেয়েছে।

উদ্দীপকের দুই বান্ধবী ফারজানা ও কাকলি একই প্রতিষ্ঠানে একই পদে চাকরিতে যোগ দেয়। চার বছর পর শুধু কাকলির পদোন্নতি হয়। এতে ফারজানা মনে কষ্ট পায়। এর কিছুদিন পর থেকে সে অন্য সহকর্মীদের কাছে কাকলির পুরনো দোষত্রুটির কথা বলতে থাকে। এতে অফিসের কর্মপরিবেশ নষ্ট হয়। ইসলামের দৃষ্টিতে ফারজানার এ কাজটি গিবত। গিবত করা একটি নিন্দনীয় কাজ। এতে সমাজে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি হয়।

পারস্পরিক সম্পর্ক নষ্ট হয়। রাসুল (স.) বলেন, ‘গিবত বা পরনিন্দা ব্যভিচার অপেক্ষাও গুরুতর অপরাধ’ (আল-মুজামুল আওসাত)। আর ফারজানার মধ্যে এ নিন্দনীয় কাজটিই প্রকাশ পেয়েছে।

ঘ. গিবত সম্পর্কে হামিদা বেগমের বক্তব্যটি অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ । কারো অগোচরে তার দোষ ত্রুটি অন্যের কাছে প্রকাশকে গিবত বলে। যা ইসলামে অত্যন্ত নিন্দনীয় কাজ। গিবতের কারণে সমাজে অশান্তি ও কলহ বিবাদের সৃষ্টি হয়। মানুষের মধ্যে ঘৃণা ও শত্রুতা তৈরি হয়। গিবত শোনাও পাপের কাজ। কোনো অবস্থাতেই গিবত করা গ্রহণযোগ্য নয়। হামিদা বেগম তার বক্তব্যে গিবতকেই বোঝাতে চেয়েছেন।

উদ্দীপকের ফারজানা সহকর্মীদের কাছে কাকলির গিবত করায় অফিস সহায়ক বৃদ্ধ হামিদা বেগম প্রতিবাদ করেন। তিনি যথার্থই বলেন যে, অন্যের অনুপস্থিতিতে তার সমালোচনা করা কোনো অবস্থাতেই ঠিক নয়। পবিত্র কুরআনে গিবত করাকে মৃত ভাইয়ের শরীরের মাংস খাওয়ার সাথে তুলনা করা হয়েছে। যার গিবত করা হয় তিনি নিজের অজ্ঞাতেই অন্যের কাছে হেয় হন।
তাই সবার উচিত গিবত করা ও শোনা থেকে বিরত থাকা। পরিশেষে বলা যায়, গিবত প্রসঙ্গে হামিদা বেগমের বক্তব্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।

নিজে অনুশীলন করো

সৃজনশীল প্রশ্ন ২ : গাজীপুরের শান্তিনগর গ্রামে ডাক্তার মফিদুল হক একটি বৃদ্ধাশ্রম গড়ে তোলেন। দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে বিশেষ করে ঢাকা ও চট্টগ্রাম থেকে এসে অনেক বৃদ্ধ ও বৃদ্ধা এখানে থাকেন। তারা সারাক্ষণ নিজেদের মধ্যে গল্প করে সময় কাটান। কেউ কেউ জীবনের অনেক কাহিনি চেপে রাখতে পারলেও অনেকেই পারেন না। একদিন আহমেদুল হক সাহেব বললেন—’ উনার রুমেই থাকতেন দেশের একজন সাবেক উচ্চপদস্থ কর্মকর্তা ও নামকরা সাহিত্যিক। তার মৃত্যুর পর ঢাকায় অবস্থানরত তার চারজন সন্তানকে খবর দেওয়া হলেও তারা শেষবারের মতো বাবার মুখটি দেখার জন্য আসেনি। সাথে সাথেই অন্যরা বলে উঠল, ‘এটিতো এখানে অনেকবারই দেখেছি’। আমাদের ভয় সেখানেই।

ক. গিবত কী?
খ. আখলাকে হামিদাহ্ কেন প্রয়োজন? ব্যাখ্যা কর।
গ. উদ্দীপকের আহমেদুল হক সাহেবের মন্তব্যটিতে সন্তানদের আচরণে কী প্রকাশ পেয়েছে? ব্যাখ্যা কর।
ঘ. উদ্দীপকে বর্ণিত বয়স্কদের প্রতি তাদের সন্তানদের আচরণের শাস্তি ইসলামের আলোকে বিশ্লেষণ কর।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৩ : সমাজসেবক লতিফুর রহমানের সুখ ও সাফল্যের মূলে পিতামাতার অবদান রয়েছে বলে তিনি মনে করেন। পিতামাতার প্রতি তার পরম ভক্তি-শ্রদ্ধা ও কর্তব্যনিষ্ঠা রয়েছে। শত ব্যস্ততার মধ্যেও তিনি প্রতিদিন তার মাতাপিতার খোঁজ নেন। বৃদ্ধ মাকে তিনি প্রায়ই নিজ হাতে খাইয়ে দেন। অথচ তারই এলাকার এক ব্যক্তি চাকরি পাওয়ার পর বৃদ্ধ মাতাপিতাকে গ্রামের বাড়িতে জোরপূর্বক পাঠিয়ে দেয়। সে তাদের খোজখবর রাখে না।

ক. পিতামাতার আদেশ পালন করা কী?
খ. প্রতিবেশীর প্রতি কর্তব্য পালন বলতে কী বোঝায়?
গ. লতিফুর রহমানের প্রতিবেশীর আচরণে কোন আদেশের লঙ্ঘন হয়েছে তা ব্যাখ্যা কর।
ঘ. লতিফুর রহমানের বিশ্বাসবোধ এবং কর্মকাণ্ড পাঠ্যবইয়ের আলোকে মূল্যায়ন কর।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৪ : পাড়ার সকলে মিরাজকে আদর্শ ছেলে বলে জানে। কারণ বয়স্কদের প্রতি তার শ্রদ্ধাপূর্ণ ব্যবহার সবার মন কেড়ে নিয়েছে। ছোটরাও মিরাজকে খুব পছন্দ করে। অন্যদিকে তার ভাই স্কুলের সহপাঠীদের সাথে ভালো ব্যবহার করে না। পড়াশোনা, খাতা, পেন্সিল, টাকা-পয়সা এসব ব্যাপারে সাহায্য চাওয়া হলে সে খুবই বিরক্ত হয়।

ক. কাদেরকে আত্মীয় বলা হয়?
খ. মিথ্যাচার বলতে কী বোঝায়?
গ. পাড়ার মানুষের সাথে মিরাজের ব্যবহারে আখলাকে হামিদাহ্র কোন গুণটি প্রকাশিত হয়েছে? ব্যাখ্যা কর।
ঘ. সহপাঠীদের প্রতি মিরাজের ভাইয়ের আচরণ গ্রহণযোগ্য কি? যুক্তিসহ মতামত দাও।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৫ : পরীক্ষায় মারুফ ভালো ফলাফল করায় রাকিবের সহ্য হলো না। সে মারুফের অনুপস্থিতিতে তার দুর্নাম করতে লাগল। তার অন্য বন্ধু শিহাব বলল, ‘বন্ধু এটি নিন্দনীয় কাজ’ পবিত্র কুরআনে এ কাজকে মৃত ভাইয়ের গোশত খাওয়ার সাথে তুলনা করা হয়েছে।

ক. কুরাআনে অপচয়কারীদের কী বলে সম্বোধন করা হয়েছে?
খ. ‘তোমরা উত্তম ও পবিত্র জিনিস খাও’– ব্যাখ্যা কর।
গ. রাকিবের কাজটি ইসলামের দৃষ্টিতে কীরূপ হয়েছে। ব্যাখ্যা কর।
ঘ. শিহাবের উক্তিটি কুরআন ও হাদিসের আলোকে বিশ্লেষণ কর।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৬ : সাফিন একটি ভালো পরিবারের ছেলে। সে খারাপ বন্ধুদের সাথে চলতে চলতে একসময় মাদকাসক্ত হয়ে পড়ে। তার ভাই সাদেক তাকে মাদক উপশম কেন্দ্রে নিয়ে সংশোধনের চেষ্টা চালান। ডাক্তার তাকে মাদক আসক্ত বন্ধুদের সঙ্গ ত্যাগ করতে বলেন এবং মাদকের ক্ষতিকর দিকগুলো তুলে ধরেন। অবশেষে সাফিন এ ধ্বংসাত্মক অবস্থা থেকে মুক্তি পায়।

ক. মাদকাসক্তি সম্পর্কে মহানবি (স.) কী বলেছেন?
খ. মিথ্যাচারের পরিণাম’— ব্যাখ্যা কর।
গ. সাফিন মাদকাসক্ত হওয়ার ফলে কী কী সমস্যায় পড়া স্বাভাবিক ছিল? ব্যাখ্যা কর।
ঘ. সাফিনের সুস্থ, স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার ক্ষেত্রে ডাক্তারের পরামর্শের গুরুত্ব বিশ্লেষণ কর।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৭ : সাজিদ একদিন স্কুলে যাচ্ছিল। পথে সে শুনতে পেল গাছ থেকে পড়ে গিয়ে একটি ছেলের হাত ও পা ভেঙে গেছে। তাড়াতাড়ি হেঁটে গিয়ে দেখতে গেল ছেলেটি তাদের প্রতিবেশী নাহিদ। সে তখন বাড়ি ফিরে গিয়ে নাহিদের বাবা মাকে খবর দিল এবং নিকটস্থ হাসপাতালে নিতে সাহায্য করল।

ক. হাদিস অনুযায়ী কত ঘর পর্যন্ত লোকদের প্রতিবেশী বলা হয়?
খ. প্রতিবেশীর প্রতি দুইটি কর্তব্য ব্যাখ্যা কর।
গ. নাহিদের প্রতি সাজিদের দায়িত্ব পালন ইসলামি দৃষ্টিকোণ থেকে ব্যাখ্যা কর।
ঘ. সাজিদের কাজে প্রতিবেশীর অধিকার রক্ষার পূর্ণরূপ ফুটে ওঠেনি মন্তব্যটি বিশ্লেষণ কর।

ANSWER SHEET

উপরে ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করে এই প্রশ্নের উত্তরগুলো ডাউনলোড করে নাও।

Rate this post