Class 6 - Bangla
1 min read

আয়না গল্পের সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর (PDF)

আয়না গল্পের সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর : এদেশে তখনো আয়নার প্রচলন হয়নি। এক চাষি ধান ক্ষেতে একটি আয়না কুড়িয়ে পেলে তা নিয়ে নানা রকম বিড়ম্বনার সৃষ্টি হয়। চাষি আয়নাটি কলসির ভেতর লুকিয়ে রাখে আর মাঝে মাঝে বের করে আয়নায় দেখা ছবির সাথে কথা বলে। একদিন চাষির বউ আয়নাখানা আবিষ্কার করে এবং সেটার ভেতর আরেকজন রমনীকে দেখে হুলস্থূল কাণ্ড বাধিয়ে ফেলে। পাড়া প্রতিবেশীরাও বিষয়টি জেনে যায়। তখন এক পর্যায়ে আয়নার রহস্য আবিষ্কৃত হয়।

আয়না গল্পের সৃজনশীল প্রশ্ন ও উত্তর

সৃজনশীল প্রশ্ন ১ : এক বনে এক অত্যাচারী সিংহ ছিল। বনের এক খরগোশ ঠিক করল সিংহকে সে উচিত শিক্ষা দেবে। খরগোশ সিংহকে একটি কূপ দেখিয়ে দিয়ে বলল, ‘এই কূপে আর একটি সিংহ আছে, সে দাবি করছে, সে এই বনের রাজা।’ এ কথা শুনে সিংহ রেগে আগুন! উঁকি দিয়ে সে কূপের পরিষ্কার পানিতে নিজের প্রতিচ্ছবি দেখে তর্জন-গর্জন শুরু করল। কূপের সিংহের প্রতিচ্ছবিও ঠিক একই রকম প্রতিক্রিয়া দেখাল। শেষ পর্যন্ত সিংহ ক্ষেপে গিয়ে কূপের গভীর পানিতে ঝাঁপ দিল।

ক. আয়নাটি চাষি কোথায় লুকিয়ে রাখল?
খ. ‘আসুক আগে মিনসে বাড়ি, আজ দেখাবই এর মজা’ কথাটি বুঝিয়ে লেখো।
গ. উদ্দীপকের সিংহ ‘আয়না’ গল্পে চাষিবউয়ের সাথে কোনদিক থেকে সাদৃশ্যপূর্ণ তা ব্যাখ্যা করো।
ঘ. “উদ্দীপক ও ‘আয়না’ গল্পের মূলভাব একই কিন্তু পরিণতি ভিন্ন”– এ বিষয়ে তোমার মত দাও।

প্রশ্নের উত্তর

ক. আয়নাটি চাষি পানির কলসির ভিতর লুকিয়ে রাখল।

খ. আয়নায় নিজের চেহারাকে সতিন ভেবে ক্রুদ্ধ হয়ে চাষিবউ এ মন্তব্য করেছে। চাষি ধানখেতে একটি আয়না কুড়িয়ে পায়। সেখানে মুখ রাখতেই তার নিজের ছবি ভেসে উঠল। সে ছবিকে মৃত বাবা মনে করে ঘরে পানির কলসির ভেতর যত্ন করে লুকিয়ে রাখল। চাষিবউ সে আয়নায় নিজের ছবি দেখে ভাবে স্বামী আরেকটি বিয়ে করে নতুন বউ ঘরে এনেছে। তাই বাড়ি এলে চাষিকে মজা দেখাবে বলে মন্তব্য করেছে।

গ. উদ্দীপকের সিংহ ‘আয়না’ গল্পে বর্ণিত চাষিবউয়ের সাথে বোকামির দিক থেকে সাদৃশ্যপূর্ণ। ‘আয়না’ গল্পের চাষিবউ আয়নায় নিজের ছবিকে অন্য মেয়ে ভেবে মনে করে তার স্বামী বুঝি আরেকটা বিয়ে করেছে। এ নিয়ে চাষির সাথে তার মনোমালিন্য সৃষ্টি হয়। আয়না সম্পর্কে অজ্ঞ হওয়ার কারণেই এমন বিড়ম্বনায় পড়তে হয় তাদের।

নতুন কোনো বিষয় সম্পর্কে মানুষ না জানলে কারো কাছ থেকে জেনে নেওয়া উচিত। প্রকৃত বিষয় না জেনে মনগড়া ধারণা করলে প্রায়ই সমস্যার সৃষ্টি হয়। উদ্দীপকের সিংহ নিজের হিতাহিত জ্ঞান দ্বারা পরিচালিত না হয়ে খরগোশের কথা শুনেই পানিতে ভেসে ওঠা নিজের ছবি দেখে তর্জন-গর্জন শুরু করে এবং এক পর্যায়ে পানিতে ঝাঁপ দিতেও দ্বিধা করেনি। আয়না সম্পর্কে অজ্ঞ হওয়ার কারণেই এমন বিড়ম্বনায় পড়তে হয় চাষিবউকেও। অর্থাৎ উদ্দীপকের সিংহ এবং চাষিবউয়ের মধ্যে একই ধরনের বোকামির চিত্র ফুটে উঠেছে।

ঘ. ‘আয়না’ গল্পে আয়নার ব্যবহার সম্পর্কে অজ্ঞ মানুষদের বিড়ম্বনার কথা হাস্যরসাত্মকভাবে তুলে ধরা হয়েছে। ‘আয়না’ গল্পে সহজ-সরল চিন্তার কারণে কৃষক আয়নাটি চিনতে পারে নি। যার কারণে আয়নার মধ্যে নিজের চেহারা দেখে তার বাবাকে মনে করে। আবার চাষিবউ নিজের চেহারাকে অন্য মেয়ের ছবি মনে করে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে দ্বন্দ্বেরও সৃষ্টি হয়। পরবর্তীতে এর ব্যবহারের কথা জানতে পেরে তাদের বিভ্রান্তি দূর হয়।

উদ্দীপকের সিংহ কোনো বাছবিচার ছাড়াই খরগোশের কথায় বিশ্বাস করে এবং কূপের ভিতরের প্রতিচ্ছবি সম্পর্কে না জেনেই তর্জন-গর্জন করে। নিজের প্রতিচ্ছবিকে অন্য সিংহের ছবি মনে করে কূপে ঝাঁপ দেয়।

উদ্দীপক এবং গল্পের মূলভাবে দেখা যায়, প্রকৃত বিষয় সম্পর্কে না জানার কারণেই এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে। তবে ‘আয়না’ গল্পে আয়না সম্পর্কে একসময় সবাই বুঝতে পারার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। অর্থাৎ অজ্ঞতার কারণে প্রথমে বিড়ম্বনা সৃষ্টি হলেও পরবর্তীতে তার সমাধান মিলেছে। অন্যদিকে, উদ্দীপকে বর্ণিত সিংহকে বোকামির জন্য চরম শাস্তি পেতে হয়েছে। এমন করুণ পরিণতি ‘আয়না’ গল্পের ক্ষেত্রে ঘটেনি। তাই বলা যায়, উদ্দীপক ও ‘আয়না’ গল্পের মূলভাব একই কিন্তু পরিণতি ভিন্ন।

নিজে অনুশীলন করো

সৃজনশীল প্রশ্ন ২ : রজত একদিন নদীতে গোসল করতে গিয়ে একটি উজ্জ্বল পাথর খুঁজে পেল। সে ভাবতে লাগল, এটি সাপের মণি। এটি অত্যন্ত মূল্যবান বস্তু। সে বাড়িতে এসে অত্যন্ত যত্ন করে বস্তুটি রেখে দিল। সে ভাবল কিছুদিনের মধ্যেই সে বড়লোক হয়ে যাবে। কেননা সে ছোটবেলায় নানির কাছে শুনেছিল সাপের মণি পেলে মানুষ ধনী হয়ে যায়। একদিন রজত মায়ের কাছে জানতে পারল, এটি সাপের মণি নয়, বরং এটি একটি চকচকে মার্বেল।

ক. আয়নার প্রকৃত মালিক কে?
খ. আয়না পেয়ে চাষির অনুভূতি কেমন হয়েছিল?
গ. উদ্দীপকের রজতের সঙ্গে ‘আয়না’ গল্পের চাষির সাদৃশ্য ব্যাখ্যা করো।
ঘ. ‘উদ্দীপকের রজত ও আলোচ্য গল্পের চাষি একে অপরের প্রতিরূপ’— বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৩ : আধুনিকতার ছোঁয়া লাগেনি এমন এক গ্রামের মেয়ে লিপি। সে কোনোদিন বৈদ্যুতিক বাতি দেখেনি। এক সময় কাজের উদ্দেশ্যে সে শহরে আসে। প্রথম দিন রাতে বাড়ির মালিক মিসেস রাজিয়া বাতি বন্ধ করে দেওয়ার জন্য লিপিকে বলেন। লিপি বাতির খুব কাছে গিয়ে ফুঁ দিতে থাকে। কিন্তু বাতি কোনোভাবেই বন্ধ হয় না। মিসেস রাজিয়া বিষয়টি বুঝিয়ে বলেন, মূলত আধুনিক জগৎ সম্পর্কে জ্ঞানের অভাবে এ বিভ্রান্তির সৃষ্টি।

ক. চাষি আয়নাটি এনে কোথায় লুকিয়ে রেখেছিল?
খ. চাষি কেন কাজের ফাঁকে ছুটে ছুটে বাড়ি আসত?
গ. উদ্দীপকে ‘আয়না’ গল্পের যে দিকটি ফুটে উঠেছে তার স্বরূপ ব্যাখ্যা করো।
ঘ. “আধুনিক জগৎ সম্পর্কে জ্ঞানের অভাবে এ বিভ্রান্তির সৃষ্টি”— উদ্দীপক ও ‘আয়না’ গল্পের আলোকে উক্তিটি বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৪ : আবুল মিয়া সহজ-সরল, কিছুটা বোকা ধরনের লোক। একদিন শহরের রাস্তায় সে একটা রেডিও কুড়িয়ে পায়। সে এর আগে কখনো রেডিও দেখেনি। রেডিওর একটা গোল বোতাম ঘোরাতে ঘোরাতে হঠাৎ রেডিওতে কথা বলে ওঠে। সে অবাক হয়ে ভাবে নিশ্চয়ই এর মধ্যে কোনো জিন, পরি লুকিয়ে আছে। সে এটাকে বাড়িতে এনে একটি গোপন জায়গায় রাখে। মাঝে মাঝে বের করে সে বিড়বিড় করে মনের বাসনাগুলো বলে তারপর রেডিও অন করে। সে মনে মনে ভাবে, এ আজব যন্ত্র একদিন তার ভাগ্য বদলে দেবে।

ক. চাষির বউ কাকে বুবুজান বলেছিল?
খ. চাষি আয়নায় নিজের চেহারা দেখে অবাক হলো কেন?
গ. উদ্দীপকে আবুল মিয়ার মনোভাবের সাথে ‘আয়না’ গল্পের চাষির যে সাদৃশ্য পাওয়া যায় তা ব্যাখ্যা করো।
ঘ. ‘এ আজব যন্ত্র একদিন তার ভাগ্য বদলে দেবে’– ‘আয়না’ গল্প অবলম্বনে উক্তিটি বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৫ : জনাব আসগর আলীর বাড়িতে গ্রামের সাধারণ মানুষ উঠানে বসে টেলিভিশন দেখে। টেলিভিশন দেখার মধ্য দিয়ে তাদের মাঝে এক কৌতূহল জাগে। তারা ভাবে চারকোনা বাক্সের মধ্যে কীভাবে মানুষ ও আমার প্রশ্ন অনুশীলন করতে ব্রাউজারের অন্যান্য জীবজন্তুর ছবি দেখা যায়? এ পর্যায়ে তারা ভাবে এটা জাদুর বাক্স যা একের পর এক জাদু দেখিয়ে যাচ্ছে।

ক. চাষি কী ধান বুনেছিল?
খ. আয়নায় চাষি নিজের ছবি দেখে অবাক হলো কেন?
গ. উদ্দীপকের গ্রামবাসীর মনোভাবের সাথে ‘আয়না’ গল্পে বর্ণিত গ্রামবাসীর মানসিকতার সাদৃশ্য বর্ণনা করো।
ঘ. উদ্দীপক ও আয়না গল্পের চিত্র এক নয়— তোমার উত্তরের স্বপক্ষে যুক্তি দাও।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৬ : কাদিরের সদ্য বিয়ে করা বউ সাবিনা বোকা স্বভাবের । কখনো মোবাইল ফোন দেখেনি। তাই মোবাইলে কাদিরের কথা বলা তাঁর বোন বাইরে গেলে ও সে মোবাইলটি নিয়ে নম্বর চাপতে থাকে। টাকা না থাকায় সে ওপাশ থেকে বার বার একটি মেয়ের কণ্ঠ শুনতে পায়। তার স্বামী আরেকটা বিয়ে করেছে মনে করে সে চিৎকার দিয়ে কাঁদতে থাকে।

ক. চাষি আয়নাটি কোথায় লুকিয়ে রেখেছিল?
খ. আয়না পেয়ে চাষির অনুভূতি কেমন হয়েছিল?
গ. উদ্দীপকে ‘আয়না’ গল্পের যে দিকটি প্রতিফলিত হয়েছে তা তুলে ধরো।
ঘ. “আধুনিক জগৎ সম্পর্কে জ্ঞানের অভাবে এই বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়েছে।” আয়না গল্প অবলম্বনে বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৭ : এক কুকুর মুখে মাংস নিয়ে জলের পাশ দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিল। হঠাৎ তার চোখ পড়ল জলের ভিতর, সে দেখল যে অন্য একটি কুকুরও মুখে মাংস নিয়ে তার দিকে তাকিয়ে আছে। কুকুরটি ভাবল যে, এই এক টুকরো মাংস দিয়ে কী আর হবে? যদি ঐ টুকরোটাও পাওয়া যায় তবে বেশ হয়। এই ভেবে সে জলের ভিতর থাকা কুকুরটার দিকে গর্জে উঠল। আর অমনি তার মুখের মাংস জলে পড়ে গেল। সে দেখল জলের ভেতরের কুকুরটার মুখেও আর মাংসের টুকরোটা নেই।

ক. চাষি আয়নাটি কোথায় পেয়েছিল?
খ. চাষি আয়নায় তার চেহারা দেখে অবাক হলো কেন? ব্যাখ্যা করো।
গ. উদ্দীপকের কোন দিকটি ‘আয়না’ গল্পের সাদৃশ্যপূর্ণ? বিশ্লেষণ করো।
ঘ. “কুকুরটি ‘আয়না’ গল্পের চাষির বউয়ের প্রতিচ্ছবি” উক্তিটির পক্ষে যুক্তিপূর্ণ মতামত ব্যক্ত করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৮ : একদিন এক শেয়াল মুখে করে এক টুকরো মাংস নিয়ে নদীর পাশ দিয়ে যাচ্ছিল। শেয়াল নদীর পানিতে নিজের মুখ দেখে শত্রু ভেবে ঝাঁপিয়ে পড়লো এবং সাথে সাথে সে তার মাংসের টুকরোটাও হারিয়ে ফেললো।

ক. চাষীর বউ কাকে বুবুজান বলেছিলো?
খ. আয়নাকে তুলে চাষী চুমু দিলো কেনো?
গ. উদ্দীপকের সাথে ‘আয়না’ গল্পের কোন চরিত্রের সাদৃশ্য রয়েছে? ব্যাখ্যা করো।
ঘ. “অজ্ঞতা ও ধারণার অভাবই উদ্দীপক ও ‘আয়না’ গল্পের মূলসুর।” আলোচনা করো।

ANSWER SHEET

উপরে ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করে এই প্রশ্নের উত্তরগুলো ডাউনলোড করে নাও।

Rate this post