রোজা

মহিলাদের তারাবির নামাজের নিয়ম

1 min read

মাহে রমজান মাসে প্রত্যেকটি মসজিদে তারাবি নামাজ পরশ ঠিক হয়ে থাকে। এই তারাবির নামাজে মুসলমান ভাইয়েরা মসজিদে উপস্থিত থেকে 8 রাকাত অথবা 20 রাকাত তারাবির নামাজ আদায় করে থাকেন। সাধারণত আপনারা ইমামের সাথে এই নামাজ পড়েন বলে অনেক নিয়ম ইমাম সাহেবের দ্বারা পরিচালিত হয়ে থাকে। কিন্তু মহিলারা যারা বাড়িতে তারাবির নামাজ পড়ে তারা কোন নিয়ম অনুসরণ করে তারাবির নামাজ আদায় করবে তা জানতে হলে আমাদের ওয়েবসাইটের দেওয়া পোস্ট পড়তে হবে।

মহিলাদের সুবিধার জন্য আমাদের ওয়েবসাইটে তারাবির নামাজের নিয়ম আলোচনা করা হলো। আজকে এই পোষ্টের মাধ্যমে মহিলারা তারাবির নামাজ আদায় করার বিস্তারিত নিয়ম জানতে পারবেন এবং এখান থেকে আপনারা সকল তথ্য পেয়ে যাবেন। আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে তারাবির নামাজের নিয়ত, তারাবির নামাজের দোয়া এবং অন্যান্য তথ্য সূচিপত্রে গিয়ে দেখে নিতে পারেন। মহিলাদের তারাবির নামাজের নিয়ম আমাদের ওয়েবসাইটে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে এই কারণে যে প্রত্যেকটি মা-বোন রমজান মাসে এশার নামাজের পরে মাহে রমজান মাস উপলক্ষে তারাবির নামাজ আদায় করে থাকেন।

তাই এই তারাবির নামাজ আদায় করার ক্ষেত্রে অনেক মহিলা আছেন যারা জানেননা কোন নিয়ম অনুসরণ করে এবং কিভাবে এই তারাবির নামাজ আদায় করতে হয়। প্রথমত আপনারা আমাদের ওয়েবসাইট থেকে তারাবির নামাজের নিয়ত দেখবেন। তারাবির নামাজ দুই রাকাত করে পড়তে। আর প্রতি চার রাকাত পর পর মোনাজাত করতে হয়। তাই আপনারা যখন তারাবির নামাজের নিয়ত পড়ে নিবেন তখন কিভাবে নিয়ত করে এই নামাজের জন্য প্রস্তুত হতে হবে তা জানতে। আর নামাজের প্রতি ওয়াক্তে প্রত্যেক সুরের সঙ্গে আপনাদের সুবিধা মত কোরআন শরীফের যে কোন সূরা পড়তে পারবেন।

এভাবে দুই রাকাত দুই রাকাত করে নামাজ পড়বেন এবং প্রতি চার রাকাত পর পর মোনাজাত করবেন। তাছাড়া চার রাকাত নামাজ শেষ হওয়ার পর সুবহানা জিল মুলকি এই দোয়াটি পাঠ করবেন। যদি কেউ একান্তই না জানেন তাহলে সূরা ইখলাস পাঠ করবেন। তবে সুবহানা জিল মুলকি এই দোয়াটি মুখস্ত করার চেষ্টা করবেন। এভাবে আপনারা আপনাদের সুবিধা অনুযায়ী তারাবির নামাজ আদায় করবেন। অনেক মহিলারা একত্রিত হয়ে জামাতের মাধ্যমেই নামাজ আদায় করতে পারেন।

মূলকথা হলো নিয়ত ঠিক রেখে তারাবির নামাজ আদায় করলেই হল। তবে তারাবির নামাজের অন্যান্য যেসকল বেসিক বিষয় রয়েছে অর্থাৎ তারাবির নামাজের নিয়ত দোয়া এগুলো আপনারা মুখস্থ করে নিবেন এবং সেই অনুযায়ী নামাজ পড়লে শুদ্ধ ভাবে নামাজ আদায় করা হবে। পরবর্তীতে তারাবির নামাজ শেষ করে আপনারা বিতরের তিন রাকাত ওয়াজিব নামাজ আদায় করে নিবেন।

মাহে রমজান মাসে আমাদেরকে সিয়াম সাধনা করার পাশাপাশি পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করতে হবে। ইফতার করার পর শরীরে ক্লান্তি আসলেও একটু কষ্ট করে তারাবির নামাজ আদায় করতে হবে। আপনি একটু কষ্ট করলে মহান আল্লাহপাকের নৈকট্য হাসিল করতে পারবেন এবং তারাবির নামাজ আদায় করার পর মহান আল্লাহ পাকের নিকট আপনার দাবি দাওয়া পেশ করতে পারেন অথবা সাহায্য চাইতে পারেন।

Rate this post
Mithu Khan

I am a blogger and educator with a passion for sharing knowledge and insights with others. I am currently studying for my honors degree in mathematics at Govt. Edward College, Pabna.

Leave a Comment