বয়স বাড়লে চুল সাদা হবেই, এটা স্বাভাবিক বিষয়। কিন্তু অল্প বয়সেই চুল পেকে যাচ্ছে? তাহলে তো সেটা চিন্তার বিষয়। একটু খেয়াল করলেই দেখবেন যে আজকাল টিনেজ বা ইয়াং ছেলে মেয়েদেরও অনেকের চুল পেকে যাচ্ছে বা দুই তিনটা করে সাদা চুল ভিজিবল হচ্ছে। কিন্তু এর পেছনে কোন কারণগুলো দায়ী, সেটা কি জানেন? যেকোনো প্রবলেমের সল্যুশন জানতে চাওয়ার আগে কারণ অনুসন্ধান করা উচিত। আজকের ফিচার প্রিম্যাচিউর হেয়ার গ্রেয়িং নিয়েই।

চুল সাদা হয়ে যাওয়া কি স্বাভাবিক? 

আমাদের যে হেয়ার ফলিকল আছে, সেটাতে পিগমেন্ট সেল থাকে। আমাদের শরীরের ত্বকের রং নির্ধারণ করে পিগমেন্ট সেল, এটা থেকে মেলানিন নামক এক ধরনের রঞ্জক পদার্থ উৎপাদিত হয়। সেই মেলানিনই নির্ধারণ করে আমাদের চুলের কালার। সময়ের সাথে সাথে যখন হেয়ার ফলিকলের এই পিগমেন্ট কমে যেতে থাকে আর মেলানিন প্রোডাকশন বন্ধ হয়ে যায়, তখনই চুল সাদা হয়ে যায়।

অল্প বয়সেই চুল পেকে যাচ্ছে, কিন্তু কারণ কী?

মাথার কালো চুল পেকে সাদা হয়ে যাচ্ছে, এ চিন্তায় রাতের ঘুম হারাম! কিন্তু এর জন্য কোন ফ্যাক্টরগুলো দায়ী সেটা আমরা অনেকেই জানি না! সমাধানের পথ খোঁজার আগে কারণগুলো জেনে নেওয়া জরুরি। চলুন দেখে নেই প্রিম্যাচিউর হেয়ার গ্রেয়িং এর কমন কিছু কারণ।

১) ভিটামিন বি ১২-এর ঘাটতি

শরীরে ভিটামিন বি ১২-এর ডেফিসিয়েন্সি হলে হেয়ার ফলিকলের মেলানিন প্রোডাকশন কমে যায়। এর ফলে চুল পাকা শুরু হয়। সেই সাথে চুল দুর্বল ও রুক্ষ হয়ে যায়। রক্তের মাধ্যমে সারা শরীরে অক্সিজেন প্রবাহ হয়, এমনকি আমাদের চুলের গোড়াতেও। হেলদি রেড ব্লাড সেল তৈরির জন্য একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হচ্ছে ভিটামিন বি ১২। তাই ভিটামিন বি ১২-এর ঘাটতি হলে pernicious anemia হতে পারে। আপনার যদি সব সময় দুর্বল লাগে এবং অল্প বয়সেই চুল সাদা হয়ে যায়, তাহলে আপনার শরীরে ভিটামিন বি ১২-এর ডেফিসিয়েন্সি থাকতে পারে।

২) থাইরয়েড প্রবলেম

অল্প বয়সেই চুল পেকে যাচ্ছে? তাহলে থাইরয়েড টেস্ট করুন। থাইরয়েড ডিজঅর্ডারের জন্য যে হরমোনাল ইমব্যালেন্স হয়, সেটার জন্য চুল তাড়াতাড়ি পেকে যায়। থাইরয়েড হরমোন বিভিন্ন বডি ফাংশন ও মেটাবলিজম কন্ট্রোল করে। এটি যদি খুব বেশি বা অল্প পরিমাণে উৎপাদিত হয়, তাহলে সেটা মেলানিন প্রোডাকশনে ইফেক্ট ফেলে।

৩) অল্প বয়সেই চুল পেকে যাচ্ছে- এর কারণ হতে পারে স্ট্রেস 

টেনশন করতে করতে চুল পেকে গেলো!’ এই কথাটা অনেকের মুখেই শুনেছি। আসলে এটা জাস্ট একটা প্রবাদ বাক্য না, কথাটা কিন্তু সত্যি। স্ট্রেস ও টেনশন থেকে ঘুমের সমস্যা, উচ্চ রক্তচাপ, ক্ষুধামন্দা আরও কত ধরনের ক্ষতি যে হয়! মানসিক চাপ কিন্তু আপনার ত্বক ও চুলেও বিরূপ প্রভাব ফেলে। অকালেই চুল সাদা হয়ে যাওয়ার পেছনে এই কারণটি প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে দায়ী।

৪) জেনেটিক্যাল বা বংশগত

বাবা-মা বা পরিবারের অন্য সদস্যদের যদি প্রিম্যাচিউর হেয়ার গ্রেয়িং হয়ে থাকে, তাহলে এটি আপনার ক্ষেত্রেও ঘটতে পারে। জেনেটিক্যাল বা বংশগত কারণে অনেকেরই ২০-৩০ বছরের মধ্যে চুল সাদা হয়ে যায়।

এছাড়াও ইম্যুনিটি কম থাকা, অতিরিক্ত ধূমপান, অপরিমিত খাদ্যাভ্যাস, ভিটামিন ডি-এর অভাব, চুলের গোড়াতে সরাসরি হিট দেওয়া, বিভিন্ন অসুখ, অনিয়ন্ত্রিত জীবনযাপন এসব কারণেও অনেকের দ্রুত চুল পাকে।

ঘরোয়া সমাধান

কারণ তো জানা হলো, এবার আসি সমাধানে। প্রিম্যাচিউর হেয়ার গ্রেয়িং প্রিভেন্ট করতে কিছু প্রাকৃতিক উপাদান দারুণ কাজ করে। চলুন জেনে নেই স্বল্প বাজেটে প্রাকৃতিকভাবে চুলের যত্ন নেওয়ার উপায় সম্পর্কে।

আমলা প্যাক

হেয়ার ফলিকলে মেলানিন প্রোডাকশন বুস্ট করে আমলা বা আমলকী। এতে আছে অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও অ্যাসেনশিয়াল ভিটামিনস। তাই অল্প বয়সেই চুল পেকে যাচ্ছে এই অভিযোগ যাদের আছে, তারা হেয়ার কেয়ারে ইনক্লুড করুন আমলা হেয়ার প্যাক। চুলের কালার রিস্টোর তো করবেই, সেই সাথে চুল হবে শাইনি ও সিল্কি। চলুন জেনে নেই কীভাবে ঘরে বসেই এই প্যাকটি বানিয়ে নেওয়া যায়।

  • কোকোনাট হেয়ার অয়েল- ২ চা চামচ
  • আমলা গুঁড়ো- ২ টেবিল চামচ
  • টকদই- পরিমাণমতো

সব উপাদান একসাথে মিক্স করে চুলে ভালোভাবে লাগিয়ে নিন, অপেক্ষা করুন ৪০ মিনিট। এবার মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুল ওয়াশ করে ফেলুন। মাসে অন্তত ২ বার এই হেয়ার প্যাক অ্যাপ্লাই করুন।

হেনা প্যাক

পাকা চুল ঢাকতে যুগ যুগ ধরেই এই উপাদানটি ব্যবহৃত হয়ে আসছে। অনেকেই আছেন যারা চুলে কেমিক্যাল ইউজ করতে চান না, সেক্ষেত্রে ন্যাচারাল সল্যুশন হিসাবে হেনা ইউজ করা যেতেই পারে। আরেকটা কথা, মেহেদি বা হেনা ব্যবহারে চুল হয় ঝলমলে ও মজবুত। সেই সাথে মাথার তালু ঠান্ডা থাকে, চুল পড়া কমে। তাহলে দেখলেন তো, একটি উপাদানের কত গুণাগুণ! হেয়ার কালার এর জন্য কীভাবে ঘরে বসেই এই প্যাকটি বানিয়ে নেওয়া যায় সেটা জেনে নিন তাহলে।

  • হেনা পাউডার- ৩ টেবিল চামচ
  • কফি পাউডার- হাফ চা চামচ
  • চায়ের লিকার- ৪ চা চামচ
  • আমন্ড অয়েল- কয়েক ড্রপসব উপকরণগুলো মিক্স করে স্মুথ পেস্ট বানিয়ে নিন। এবার চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত ভালোভাবে হেনা প্যাক লাগিয়ে নিন। এবার শাওয়ার ক্যাপ পরে অপেক্ষা করুন ২ ঘন্টা। তারপর ভালোভাবে চুল ধুয়ে নিন। একবারে কালার না হলে সেইম প্রসেসে আবারও হেনা অ্যাপ্লাই করুন। মাসে অন্তত ১ বার চুলে হেনা প্যাক ব্যবহার করুন, তাহলে ভালো রেজাল্ট পাবেন।

    চুলে মেলানিন প্রোডাকশন কীভাবে বাড়ানো যায়?

    চুলের সুস্থতার জন্য ভেতর থেকেও পুষ্টি নিশ্চিত করতে হবে। কিছু খাবার আছে যেগুলো হেয়ার ফলিকলে মেলানিন উৎপাদন করে। তাই রেগুলার ডায়েটে সেই খাবারগুলো রাখতে হবে। ভিটামিন সি, এ ও বি ১২ যুক্ত খাবার হেয়ার পিগমেন্ট রিটেইনে হেল্প করে। লেবু, আনারস, আঙুর, ক্যাপসিকাম, গাজর, কলিজা, ডিম এগুলো খেতে হবে। সেই সাথে রেগুলার চুলে হিট দেওয়া থেকে বিরত থাকতে হবে। চুল পাকা শুরু করলে টেনে টেনে তোলা থেকে বিরত থাকতে হবে, এতে হেয়ার রুট ড্যামেজ হতে পারে।

    যাদের অল্প বয়সেই চুল পেকে যাচ্ছে, তাদের জন্য কিছু ইফেক্টিভ টিপস শেয়ার করলাম। আশা করি আপনারা উপকৃত হবেন। অনলাইনে অথেনটিক প্রোডাক্ট কিনতে পারেন শপ.সাজগোজ.কম থেকে অথবা সাজগোজের ৪টি শপ- যমুনা ফিউচার পার্ক, বেইলি রোডের ক্যাপিটাল সিরাজ সেন্টার, উত্তরার পদ্মনগর (জমজম টাওয়ারের বিপরীতে) ও সীমান্ত সম্ভার থেকেও বেছে নিতে পারেন আপনার পছন্দের প্রোডাক্টটি।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x