আইসোটোপ কি? (What is an Isotope in Bengali?)

আইসোটোপ হলো একই মৌলের বিভিন্ন ভরসংখ্যা বিশিষ্ট পরমাণু।

আইসোটোপের বৈশিষ্ট্য (Properties of Isotope in Bengali)

নিচে আইসোটোপের বৈশিষ্ট্যসমূহ আলোচনা করা হল :

১. মৌলের প্রত্যেকটি আইসোটোপের ভর সংখ্যা ভিন্ন ভিন্ন।
২. কোন মৌলের প্রত্যেকটি আইসোটোপের রাসায়নিক ধর্ম একই থাকে।
৩. প্রকৃতিতে বিভিন্ন আইসোটোপ বিভিন্ন পরিমাণে বিদ্যমান থাকে।
৪. ভিন্ন ভর সংখ্যার সাথে আইসোটোপের ভরও ভিন্ন হয়।

 

অনুশীলনী

১। কার্বনের আইসোটোপ কয়টি?
উত্তর : ৩টি।

২। ট্রিটিয়াম কোন মৌলের আইসোটোপ?
উত্তর : হাইড্রোজেন।

৩। ট্রিটিয়াম আইসোটোপে নিউট্রন সংখ্যা কত?
উত্তর : ২।

৪। কার্বনের দ্বিতীয় আইসোটোপের ভরসংখ্যা কত?
উত্তর : ১৩।

৫। দুইটি আইসোটোপের মধ্যে কোনটি সমান হতে পারে না?
উত্তর : ভরসংখ্যা।

৬। আইসোটোপের তেজস্ক্রিয় বিকিরণ ব্যবহার করে কোন রোগের চিকিৎসা করা হয়?
উত্তর : ক্যান্সার।

৭। তেজস্ক্রিয় আইসোটোপ কাকে বলে?
উত্তর : যে সকল অস্থায়ী আইসোটোপ তেজস্ক্রিয় রশ্মি ও কণা বিকিরণ করে তাদেরকে তেজস্ক্রিয় আইসোটোপ বলে।

৮। ট্রিটিয়াম আইসোটোপ কেন?
উত্তর : হাইড্রোজেনের সকল পরমাণুতে একটি করে প্রোটন ও ইলেকট্রন থাকে। টিট্রিয়ামের ক্ষেত্রে দেখা যায় এর পরমাণুতে একটি প্রোটন, একটি ইলেকট্রন ও দুইটি নিউট্রন রয়েছে। উভয় পরমাণুতে প্রোটন সংখ্যা সমান কিন্তু ভর সংখ্যা ভিন্ন। তাই, ট্রিটিয়াম হাইড্রোজেনের একটি আইসোটোপ।

৯। চিকিৎসাক্ষেত্রে কেন আইসোটোপ ব্যবহার করা হয়?
উত্তর : বিভিন্ন রোগ নির্ণয়ে ও নিরাময়ে তেজষ্ক্রিয় আইসোটোপের ব্যবহার করা হয়। ক্যান্সার আক্রান্ত কোষ ধ্বংস করা যায় আইসোটোপের তেজষ্ক্রিয় বিকিরণ ব্যবহার করে। এছাড়াও তেজষ্ক্রিয় রশ্মি ব্যবহার করে ডাক্তারি যন্ত্রপাতি জীবাণুমুক্ত করা হয়।
এসব কারণেই চিকিৎসা ক্ষেত্রে তেজষ্ক্রিয় আইসোটোপ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

১০। তেজস্ক্রিয় আইসোটোপ ব্যবহারের ক্ষতিকর প্রভাব বর্ণনা কর।
উত্তরঃ তেজস্ক্রিয় পদার্থ থেকে বিভিন্ন ধরনের রশ্মি নির্গত হয়। এই পদার্থসমূহের কোনোটির সময়-কাল (life time) কম, কোনোটির বেশি। তেজস্ক্রিয়তা ক্যান্সার হওয়ার বিশেষ একটি কারণ। সঠিক মাত্রায় ব্যবহার না করলে তা কল্যাণকর না হয়ে অকল্যাণের কারণ হয়ে দাঁড়ায়।
কেমোথেরাপিতে তেজস্ক্রিয় পদার্থ ব্যবহার হয়। কেমোথেরাপির ফলে মাথার চুল পড়ে যায়, বমি বমি ভাব হয়। অনেক সময় আমাদের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যাকটেরিয়াকে মেরে ফেলে।

১১। আইসোটোপ ও আইসোবারের মধ্যে পার্থক্য কি?
উত্তরঃ আইসোটোপ হল একই পরমাণুর বিভিন্ন রূপ, যাতে ভর সংখ্যা ভিন্ন। আর আইসোবার হল একই ভরসংখ্যা বিশিষ্ট ভিন্ন ভিন্ন মৌলের পরমাণু। কাজেই আইসোটোপসমূহের মধ্যে মৌলিক বৈশিষ্ট্যে অনেক মিল থাকবে, কিন্তু আইসোবারসমূহের মধ্যে কোন মিল নাও থাকতে পারে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x