b

প্রশ্ন-১। স্নায়ুতন্ত্রকে কত ভাগে ভাগ করা যায়?
উত্তরঃ ৩ ভাগে।

প্রশ্ন-২। সাধারণত একটি নিউরনে কয়টি অ্যাক্সন থাকে?
উত্তরঃ এক।

প্রশ্ন-৩। নাইট্রোজেন ঘটিত বর্জ্য নিষ্কাশনে মানবদেহের কোন অঙ্গটি প্রধান ভূমিকা রাখে?
উত্তরঃ বৃক্ক।

প্রশ্ন-৪। মানবদেহের প্রধান রেচন অঙ্গ কি/কোনটি?
উত্তরঃ বৃক্ক।

প্রশ্ন-৫। উদ্ভিদের ফুল ফোঁটাতে সাহায্যকারী হরমোনের নাম কি?
উত্তরঃ ফ্লোরিজেন।

প্রশ্ন-৬। পেশির ক্রিয়া দ্বারা সংঘটিত ক্রিয়াকে কি বলে?
উত্তরঃ প্রতিবর্ত ক্রিয়া।

প্রশ্ন-৭। মস্তিষ্কের প্রধান অংশের নাম কি?
উত্তরঃ মস্তিষ্কের প্রধান অংশের নাম হলো গুরুমস্তিষ্ক বা সেরিব্রাম।

প্রশ্ন-৮। নিউরন কি?
উত্তরঃ স্নায়ুতন্ত্রের গঠন ও কার্যকরী এককই হচ্ছে নিউরন।

প্রশ্ন-৯। ফ্লোরিজেন কি বা ফ্লোরিজেন কাকে বলে?
উত্তরঃ ফ্লোরিজেন হলো এক প্রকার হরমোন, যা পাতায় উৎপন্ন হয়।

প্রশ্ন-১০। কোষ দেহ কি?
উত্তরঃ কোষ দেহ হচ্ছে নিউরনের প্রধান অংশ।

প্রশ্ন-১১। দৃষ্টিশক্তি ও শ্রবণশক্তির সাথে সম্পর্কযুক্ত কোনটি?
উত্তরঃ মধ্যমস্তিষ্ক।

প্রশ্ন-১২। লঘু মস্তিষ্কের প্রধান কাজ কি?
উত্তরঃ লঘু মস্তিষ্কের প্রধান কাজ হলো দেহের ভারসাম্য রক্ষা করা।

প্রশ্ন-১৩। স্নায়ুতন্ত্রের চালক কে?
উত্তরঃ স্নায়ুতন্ত্রের চালক হচ্ছে মস্তিষ্ক।

প্রশ্ন-১৪। পাতায় উৎপন্ন হরমোনের নাম কি?
উত্তরঃ পাতায় উৎপন্ন হরমোনের নাম ফ্লোরিজেন।

প্রশ্ন-১৫। প্রতিবর্ত ক্রিয়া কি?
উত্তরঃ তাৎক্ষণিক আত্মরক্ষার জন্য কোন অঙ্গের তড়িৎ ক্রিয়ার নাম হলো প্রতিবর্ত ক্রিয়া।

প্রশ্ন-১৬। মানবদেহের ছাঁকনি যন্ত্রটি কোন বর্জ্য পদার্থ রক্ত থেকে পৃথক করে?
উত্তরঃ ইউরিয়া।

প্রশ্ন-১৭। মস্তিষ্কের আবরণী পর্দার নাম কি?
উত্তরঃ মেনিনজেস।

প্রশ্ন-১৮। স্নায়ুতন্ত্রর রং কী?
উত্তরঃ সাদা।

প্রশ্ন-১৯। বীজের সুপ্তাবস্থা কাঁচাতে সাহায্য করে কোনটি?
উত্তরঃ জিব্বেরেলিন।

প্রশ্ন-২০। ফলের অকালে ঝরে পড়া রোধ হয় কোনটির প্রভাবে?
উত্তরঃ অক্সিন।

প্রশ্ন-২১। মানব মস্তিষ্কের প্রধান অংশগুলো কি কি?
উত্তরঃ থ্যালামাস ও হাইপোথ্যালামাস।

প্রশ্ন-২২। অগ্রমস্তিষ্কের সবচেয়ে বড় অংশটি কোনটি?
উত্তরঃ সেরেব্রাম।

প্রশ্ন-২৩। ফ্লোরিজেন নামক হরমোন কোথায় উৎপন্ন হয়?
উত্তরঃ পাতায়।

প্রশ্ন-২৪। নিউরন কোষ বিভাজিত হয় না কেন?
উত্তরঃ সেন্ট্রিওল নেই।

প্রশ্ন-২৫। মানবদেহের দীর্ঘতম কোষ কোনটি?
উত্তরঃ নিউরন।

প্রশ্ন-২৬। মেরুরজ্জুর বাইরের দিকে কোন ধরনের পদার্থ থাকে?
উত্তরঃ শ্বেত পদার্থ।

প্রশ্ন-২৭। কোনটিকে মূত্র উৎপাদনের কারখানা বলা হয়?
উত্তরঃ কিডনি।

প্রশ্ন-২৮। মানবদেহে রেচন অঙ্গ কয়টি?
উত্তরঃ ৩টি।

প্রশ্ন-২৯। মেডুলার কাজ কি কি?
উত্তরঃ মেডুলার কাজ হচ্ছে-

 

  • হৃদস্পন্দন নিয়ন্ত্রণ।
  • খাদ্যগ্রহণ নিয়ন্ত্রণ।
  • শ্বসন নিয়ন্ত্রণ।

 

প্রশ্ন-৩০। ফল, ফুল, বীজ, পাতা ও মূলে কোন হরমোনটি দেখা যায়?
উত্তরঃ ইথিলিন।

প্রশ্ন-৩১। উদ্ভিদের ক্ষতস্থান পূরণে সাহায্য করে কোন হরমোন?
উত্তরঃ ইন্ডোল অ্যাসেটিক এসিড।

প্রশ্ন-৩২। মস্তিষ্কের বোঁটা বলা হয় কোনটিকে?
উত্তরঃ মেডুলা।

প্রশ্ন-৩৩। বৃদ্ধি প্রতিবন্ধক হরমোন কোনটি?
উত্তরঃ ইথিলিন।

প্রশ্ন-৩৪। উদ্ভিদের পুষ্প প্রস্ফুটন কীসের উপর নির্ভরশীল?
উত্তরঃ উদ্ভিদের পুষ্প প্রস্ফুটন দিবালোকের দৈর্ঘ্যের উপর নির্ভরশীল।

প্রশ্ন-৩৫। আম ঝড়ে পড়ার জন্য দায়ী কোনটি?
উত্তরঃ ইথিলিন।

প্রশ্ন-৩৬। কোন হরমোন উদ্ভিদের বৃদ্ধি প্রতিবন্ধক হিসেবে কাজ করে?
উত্তরঃ অ্যাবসাইসিক এসিড।

প্রশ্ন-৩৭। ফল পাকাতে সাহায্য করে কোন হরমোন?
উত্তরঃ ইথিলিন।

প্রশ্ন-৩৮। ছোট দিনের উদ্ভিদ এর একটি উদাহরণ দাও।
উত্তরঃ চন্দ্রমল্লিকা।

প্রশ্ন-৩৯। স্নায়ু তাড়না এক স্নায়ুকোষ থেকে অন্য স্নায়ুকোষে কোনটির মাধ্যমে পরিবাহিত হয়?
উত্তরঃ সিন্যাপস।

প্রশ্ন-৪০। মস্তিষ্কের যোজক বলা হয় কোনটিকে?
উত্তরঃ পনস।

প্রশ্ন-৪১। ক্রেন্দ্রীয় স্নায়ুতন্ত্রের অংশ কয়টি?
উত্তরঃ ২টি।

প্রশ্ন-৪২। ফলের অকালে ঝড়ে পড়া রোধ করে কোনটি?
উত্তরঃ অক্সিন।

প্রশ্ন-৪৩। গুরু মস্তিষ্কের বহিঃস্তরের বর্ণ কেমন?
উত্তরঃ ধূসর।

প্রশ্ন-৪৪। দেহের ভারসাম্য রক্ষা করে কোনটি?
উত্তরঃ লঘু মস্তিষ্ক।

প্রশ্ন-৪৫। গ্যাসীয় হরমোন কোনটি?
উত্তরঃ ইথিলিন।

প্রশ্ন-৪৬। বহুকোষী প্রাণীর পৌন্টিক নালি এবং দেহ প্রাচীরের মধ্যবর্তী ফাঁকা স্থানকে কি বলে?
উত্তরঃ ইলিয়াম বলে।

প্রশ্ন-৪৭। গুরুমস্তিষ্কের উপরিভাগ অংশকে গ্রে ম্যাটার বলা হয় কেন?

উত্তরঃ দেখতে ধূসর বর্ণের।

প্রশ্ন-৪৮। ক্রোধ, লজ্জা, গরম ও নিদ্রা এগুলো নিয়ন্ত্রণ করে কে?

উত্তরঃ গুরু মস্তিষ্ক।

প্রশ্ন-৪৯। স্নায়ুতন্ত্রের গঠন ও কাজের একককে কি বলে?

উত্তরঃ নিউরন।

প্রশ্ন-৪৯। কোন অঙ্গটি ছাঁকনির কাজ করে?

উত্তরঃ বৃক্ক।

প্রশ্ন-৫০। মেরুরজ্জুর কোনটির ভিতর দিয়ে অনুভূতিবাহী স্নায়ুতন্ত্র একস্থান থেকে অন্যস্থানে যায়?

উত্তরঃ শ্বেত পদার্থ।

প্রশ্ন-৫১। সমগ্র স্নায়ুতন্ত্রের চালক কোনটি?

উত্তরঃ মস্তিষ্ক।

প্রশ্ন-৫২। নিউরনে কোনটি থাকে না?

উত্তরঃ সেন্ট্রিওল।

প্রশ্ন-৫৩। শাখাকলমে মূল উৎপাদনে সাহায্য করে কোনটি?

উত্তরঃ অক্সিন।

প্রশ্ন-৫৪। মানবদেহের নাইট্রোজেনযুক্ত বর্জ্য নিষ্কাশনে দেহের কোন অঙ্গটি প্রধান ভূমিকা রাখে?

উত্তরঃ বৃক্ক।

প্রশ্ন-৫৫। নিউরনের প্রধান অংশের নাম কি?

উত্তরঃ কোষ দেহ।

প্রশ্ন-৫৬। কে প্রথম ‘অক্সিন’ হরমোন আবিষ্কর করেন?

উত্তরঃ চার্লস ডারউইন।

প্রশ্ন-৫৭। মানুষের মস্তিষ্কের প্রধান অংশ কয়টি?

উত্তরঃ ৩টি।

প্রশ্ন-৫৮। মস্তিষ্কের কোন অংশটি হৃদস্পন্দন ও খাদ্য গ্রহণ করে?

উত্তরঃ মেডুলা।

প্রশ্ন-৫৯। কোন হরমোনটি পত্রমুকুলকে পুষ্পমুকুলে পরিণত করে?

উত্তরঃ ফ্লোরিজেন।

প্রশ্ন-৬০। কোষ দেহ হতে উৎপন্ন লম্বা সুতার মতো অংশকে কি বলে?

উত্তরঃ অ্যাক্সন।

প্রশ্ন-৬১। আমাদের নিঃশ্বাসের বায়ুতে শতকরা কতভাগ কার্বন ডাইঅক্সাইড থাকে?

উত্তরঃ ৪ ভাগ।

প্রশ্ন-৬২। দেহকোষের শ্বসনে উৎপন্ন কার্বন ডাইঅক্সাইড কিভাবে ফুসফুসে যায়?

উত্তরঃ রক্তের মাধ্যমে।

প্রশ্ন-৬৩। মূত্রের মাধ্যমে নিষ্কাশিত নাইট্রোজেনঘটিত বর্জ্যের পরিমাণ কত?

উত্তরঃ ৮০%।

প্রশ্ন-৬৪। কোন ক্রিয়ার ফলে দেহে ইউরিয়া তৈরি হয়?

উত্তরঃ বিপাক।

প্রশ্ন-৬৫। দেহের বর্জ্য নিষ্কাশন প্রক্রিয়াকে কি বলা হয়?

উত্তরঃ রেচন।

প্রশ্ন-৬৬। মেরুরজ্জুর শ্বেতপদার্থ কোথায় অবস্থিত?

উত্তরঃ বাইরে।

প্রশ্ন-৬৭। মেরুরজ্জু কোথায় সংরক্ষিত থাকে?

উত্তরঃ মেরুদণ্ডে।

প্রশ্ন-৬৮। স্নায়ুতন্ত্রের চালক হিসেবে কোনটিকে বিবেচনা করা হয়?

উত্তরঃ মস্তিষ্ক।

প্রশ্ন-৬৯। গুরুমস্তিষ্কের অন্তঃস্তরের সাথে কোনটি সম্পর্কিত?

উত্তরঃ স্নায়ুতন্তু।

প্রশ্ন-৭০। কোনটি তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া নিয়ন্ত্রণ করে?

উত্তরঃ গুরুমস্তিষ্ক।

প্রশ্ন-৭১। অ্যাক্সনের উৎপত্তিস্থল কোথায়?

উত্তরঃ কোষদেহে।

প্রশ্ন-৭২। অ্যাক্সনের আকৃতি কিসের মতো?

উত্তরঃ সুতা।

প্রশ্ন-৭৩। অ্যাক্সন ডেনড্রনের সাথে কোথায় মিলিত হয়?

উত্তরঃ সাইন্যাপসে।

প্রশ্ন-৭৪। উদ্ভিদের বৃদ্ধি ও বিকাশ প্রভাবকারী বস্তুটি কি?

উত্তরঃ হরমোন।

প্রশ্ন-৭৫। আগাছা দমনে কোনটি ব্যবহার করা হয়?

উত্তরঃ অক্সিন।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x