পড়াশোনা
1 min read

ষষ্ঠ শ্রেণির গণিত প্রথম অধ্যায় প্রশ্ন ও উত্তর

প্রশ্ন-১। ৫৫৫ সংখ্যাটির ডানদিক থেকে দ্বিতীয় স্থানে ৫ এর স্থানীয় মান কত?

উত্তরঃ ৫০।

প্রশ্ন-২। কোনো অঙ্ক এক এক স্থান করে বামদিকে সরে গেলে তার মান উত্তরোত্তর কত বৃদ্ধি পাবে?

উত্তরঃ দশগুণ।

প্রশ্ন-৩। অঙ্ক বলতে কি বুঝায়?

উত্তরঃ পাটিগণিতে দশটি প্রতীক দ্বারা সব সংখ্যাই প্রকাশ করা যায়। এ প্রতীকগুলো হলো : ১, ২, ৩, ৪, ৫, ৬, ৭, ৮, ৯, ০। এগুলোকে অঙ্ক বলা হয়। এদের মধ্যে প্রথম নয়টি প্রতীককে সার্থক অঙ্ক এবং শেষেরটিকে শূন্য বলা হয়। সংখ্যাগুলোর স্বকীয় বা নিজস্ব মান যথাক্রমে এক, দুই, তিন, চার, পাঁচ, ছয়, সাত, আট, নয় ও শূন্য।

প্রশ্ন-৪। অঙ্কপাতন কাকে বলে?

উত্তরঃ কোনো সংখ্যাকে অঙ্ক দ্বারা লেখাকে অঙ্কপাতন বলে। উদাহরণস্বরূপ- ১৯ সংখ্যাটিতে দুইটি অঙ্ক ব্যবহৃত হয়েছে। অঙ্ক দুটি হলো ১ ও ৯।

প্রশ্ন-৫। স্থানীয় মান কী?

উত্তরঃ সংখ্যায় ব্যবহৃত কোনো অঙ্ক অবস্থানের জন্য যে সংখ্যা প্রকাশ করে, তাকে ঐ অঙ্কের স্থানীয় মান বলে।

প্রশ্ন-৬। পাটিগণিতে কয়টি প্রতীক দ্বারা সব সংখ্যাই প্রকাশ করা যায়?

উত্তরঃ ১০টি।

প্রশ্ন-৭। নিযুতের ঘরে ৫ এবং লক্ষের ঘরে ৪ থাকলে কীভাবে পড়তে হয়?

উত্তরঃ ৫৪ লক্ষ।

প্রশ্ন-৮। ১, ২, ৩, ৪, ৫, ৬, ৭, ৮, ৯, ০ প্রতীকগুলোর মধ্যে স্বাভাবিক সংখ্যা কয়টি?

উত্তরঃ ৯।

প্রশ্ন-৯। ৬ বিলিয়ন সমান কত?

উত্তরঃ ৬০০ কোটি।

প্রশ্ন-১০। ১ থেকে ১০ এর মধ্যে কয়টি মৌলিক সংখ্যা আছে?

উত্তরঃ ৪টি।

প্রশ্ন-১১। ১০ এর গুণনীয়ক কয়টি?

উত্তরঃ ৪।

প্রশ্ন-১২। মৌলিক সংখ্যা কাকে বলে?

উত্তরঃ যেসকল সংখ্যার গুণনীয়ক কেবল ১ এবং ঐ সংখ্যা তাকে মৌলিক সংখ্যা বলে।

প্রশ্ন-১৩। যৌগিক সংখ্যা কাকে বলে?

উত্তরঃ যেসকল সংখ্যার গুণনীয়ক ১ এবং ঐ সংখ্যাটি ছাড়াও এক বা একাধিক সংখ্যা আছে। তাদেরকে যৌগিক সংখ্যা বলে। যেমন, ৪, ৬, ৮ ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১৪। গ.সা.গু কাকে বলে?

উত্তরঃ দুই বা ততোধিক সংখ্যার সাধারণ গুণনীয়কগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় গুণনীয়ককে ঐ সংখ্যাগুলোর গ.সা.গু (গরিষ্ঠ সাধারণ গুণনীয়ক) বলে।

প্রশ্ন-১৫। ল.সা.গু কাকে বলে?

উত্তরঃ দুই বা ততোধিক সংখ্যার ক্ষুদ্রতম সাধারণ গুণিতককে ঐ সংখ্যাগুলোর ল.সা.গু (লঘিষ্ঠ সাধারণ গুণিতক) বলে।

প্রশ্ন-১৬। গ.সা.গু ও ল.সা.গু এর মধ্যে সম্পর্ক কি?

উত্তরঃ দুইটি সংখ্যার গুণফল = সংখ্যাদ্বয়ের গ.সা.গু ✕ সংখ্যাদ্বয়ের ল.সা.গু।

প্রশ্ন-১৭। ভগ্নাংশ কাকে বলে?

উত্তরঃ কোন বস্তু বা পরিমাণের অংশ নির্দেশ করতে যে সংখ্যা শ্রেণি ব্যবহূত হয় তাকে ভগ্নাংশ বলে।

প্রশ্ন-১৮। লব কাকে বলে?

উত্তরঃ ভগ্নাংশের ক্ষেত্রে দাগের ওপর যে সংখ্যা লেখা হয়, তাকে লব বলে।

প্রশ্ন-১৯। দশমিক ভগ্নাংশ কাকে বলে?

উত্তরঃ দশমিক চিহ্নের সাহায্যে প্রকাশিত ভগ্নাংশকে দশমিক ভগ্নাংশ বলে। যেমন, ৭.২৫, ০.৭৫ ইত্যাদি।

প্রশ্ন-২০। সাধারণ ভগ্নাংশ কাকে বলে?

উত্তরঃ ভাগের অংশ হলো ভগ্নাংশ। কোনো বস্তুকে নির্দিষ্ট সংখ্যক ভাগে ভাগ করে তাকে হর দ্বারা এবং ঐ নির্দিষ্ট অংশ থেকে গৃহীত অংশকে লব দ্বারা প্রকাশ করে যে গাণিতিক রূপদান করা হয় তাকে সাধারণ ভগ্নাংশ বলে।

প্রশ্ন-২১। সাধারণ ভগ্নাংশ কত প্রকার ও কি কি?

উত্তরঃ সাধারণ ভগ্নাংশ ৩ প্রকার। যথা- প্রকৃত ভগ্নাংশ, অপ্রকৃত ভগ্নাংশ এবং মিশ্র ভগ্নাংশ।

প্রশ্ন-২২। 30 থেকে 70-এর মধ্যে মেীলিক সংখ্যাগুলো লেখ।

উত্তরঃ 30 থেকে 70 এর মধ্যে মেীলিক সংখ্যাগুলো হলো- 31, 37, 41, 43, 47, 53, 59, 61, 67।

Rate this post