বৈশ্বিক উষ্ণায়ন বলতে বোঝায় পৃথিবীর গড় তাপমাত্রা ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাওয়া। পৃথিবীর তাপমাত্রা এভাবে বৃদ্ধির ফলে পর্বতের চূড়ার ও মেরু অঞ্চলের জমাটবদ্ধ বরফ গলে যাচ্ছে। এই বরফ গলা পানি গড়িয়ে সমুদ্রে পড়ায় পানির পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। ফলে সমুদ্রপৃষ্ঠের উচ্চতা বেড়ে যাচ্ছে। এভাবে তাপমাত্রা বাড়তে থাকলে সমুদ্রের পানির উচ্চতা দিন দিন বাড়তে থাকবে। ফলস্বরূপ বাংলাদেশের সমুদ্র উপকূলীয় অঞ্চলসহ পৃথিবীর নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে যাবে। এছাড়া তাপমাত্রা বৃদ্ধির ফলে বিরূপ আবহাওয়া যেমন- খরা, অনাবৃষ্টি, অতিবৃষ্টি, সাইক্লোন, ঘূর্ণিঝড় ইত্যাদি ঘটনা বেশি বেশি ঘটবে।

বৈশ্বিক উষ্ণায়ন রোধের উপায় কী?
বৈশ্বিক উষ্ণায়ন রোধের প্রধান উপায় হলো কার্বন ডাইঅক্সাইডের নিঃসরণ কমানো। এক্ষেত্রে কয়লা, পেট্রোলিয়াম ও প্রাকৃতিক গ্যাসের ব্যবহার কমিয়ে নবায়নযোগ্য জ্বালানি যেমন- সৌরশক্তি, বায়ুপ্রবাহ থেকে উৎপন্ন বিদ্যুৎ শক্তির ব্যবহার বাড়াতে হবে। এছাড়াও যেহেতু গাছপালা কার্বন ডাইঅক্সাইড গ্রহণ করে তাই বেশি করে গাছ লাগাতে হবে

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x