হজরত মুহাম্মদ (স) দশম হিজরিতে জীবনের শেষ হজ পালন করলেন। এরপর তিনি আর হজ পালন করার সুযোগ পাননি। মহানবি (স)-এর জীবনের এই শেষ হজকেই বিদায় হজ বলে।

 

হজের ফরজ ও ওয়াজিব কয়টি ও কি কি?

হজের ফরজ তিনটি। এগুলো হলো–

  1. ইহরাম বাঁধা : হজের প্রথম ফরজ হলো ইহরাম বাঁধা। কয়েকটি অনুষ্ঠানের মাধ্যমে হজ বা উমরার নিয়ত করাকে ইহরাম বলে। অয়ু, গোসলের পরে সেলাইবিহীন সাদা কাপড় পরে ইহরাম বাঁধতে হয়। মৃতপ্রায় ফকিরের বেশে আল্লাহর দরবারে হাজির হতে হয়। এ সময় রঙিন কাপড় পরা যাবে না।
  2. ওকুফ বা অবস্থান : হজের দ্বিতীয় ফরজ হলো ৯ই জিলহজ তারিখে আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করা।
  3. তওয়াফে জিয়ারত : হজের তৃতীয় ফরজ হলো তওয়াফে জিয়ারত করা। কুরবানির দিনগুলোতে অর্থাৎ জিলহজ মাসের ১০ থেকে ১২ তারিখের মধ্যে কাবাঘর তওয়াফ বা প্রদক্ষিণ করাকে তওয়াফ বা প্রদক্ষিণ।
হজের ওয়াজিব হচ্ছে সাতটি। নিচে তা দেওয়া হলোঃ
১. আরাফার ময়দান হতে প্রত্যাবর্তনের সময় মুযদালিফায় অবস্থান করা।
২. সাফা ও মারওয়া পাহাড়দ্বয়ের মাঝখানে দৌড়ানো বা সাঈ করা।
৩. শয়তানকে কংকর নিক্ষেপ করা।
৪. তাওয়াফে বিদা অর্থাৎ মক্কার বাইরে থেকে আগত হাজিদের জন্য বিদায়কালীন তাওয়াফ করা।
৫. মাথা মুড়ানো বা চুল ছাঁটা।
৬. কুরবানি করা।
৭. দম দেওয়া।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x