অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশ কি? পার্থক্য
ভূগোল
1 min read

অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশ কি? অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশের পার্থক্য

Updated On :

অক্ষাংশ এবং দ্রাঘিমাংশ পৃথিবীর যেকোনো স্থানের অবস্থান নির্ধারণ করতে সাহায্য করে এবং পৃথিবী পৃষ্ঠের যে কোন স্থানের ভৌগলিক অবস্থান সনাক্ত বা নির্ধারণ করার জন্য একটি সমন্বয় ব্যবস্থা গঠন করে।
অক্ষাংশ এবং দ্রাঘিমাংশ এর মাধ্যমে পৃথিবীর কেন্দ্র থেকে যেকোনো স্থানের কৌণিক দূরত্ব নির্ণয় করা যায়। অক্ষাংশ এবং দ্রাঘিমাংশ উভয়ই ডিগ্রী (°) এবং মিনিট (′) এ পরিমাপ করা হয়।
উদাহরণস্বরুপ, বাংলাদেশের ভৌগোলিক অবস্থান ২০°৩৪´ থেকে ২৬°৩৮´ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৮°০১´ থেকে ৯২°৪১´ দ্রাঘিমাংশ পর্যন্ত। এই আর্টিকেলে, অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশ কি? উভয়ের মধ্যে পার্থক্য নিয়ে আলোচনা করব।

অক্ষাংশ কি?

পৃথিবী পৃষ্ঠে কাল্পনিক অনুভূমিক রেখা যা নিরক্ষরেখার উত্তর বা দক্ষিণে দূরত্ব পরিমাপ করে, তাকে অক্ষাংশ (Latitude) বলে। এই কাল্পনিক রেখা বিষুবরেখার উপরে এবং নীচে অনুভূমিকভাবে প্রসারিত।
এই রেখাগুলিকে প্রায়ই অক্ষাংশের সমান্তরাল বা অক্ষাংশের বৃত্ত বলা হয় যা সবসময় বিষুব রেখার সমান্তরাল থাকে। পৃথিবী মোট 180টি অক্ষাংশ রেখা দ্বারা বিভক্ত।
বিষুবরেখার অক্ষাংশ ০ ডিগ্রি (শূন্য ডিগ্রি) ধরা হয়। বিষুবরেখা থেকে শুরু করে উত্তর মেরু পর্যন্ত ৯০ ডিগ্রি উত্তর-অক্ষাংশ আছে। তেমনিভাবে, বিষুবরেখা থেকে দক্ষিণ মেরু পর্যন্ত আছে ৯০ ডিগ্রি দক্ষিণ-অক্ষাংশ।
উদাহরণস্বরূপ, ট্রপিক অব ক্যানসার (Tropic of Cancer) নিরক্ষরেখার 23.5 ডিগ্রি উত্তর অক্ষাংশের রেখা। অন্যদিকে, ট্রপিক অব ক্যাপরিকন (Tropic of Capricorn) নিরক্ষরেখার 23.4394 ডিগ্রী দক্ষিণ অক্ষাংশের রেখা।

দ্রাঘিমাংশ কি?

পৃথিবী পৃষ্ঠের কাল্পনিক উল্লম্ব রেখা যা মূল মধ্যরেখার পূর্ব বা পশ্চিমে একটি বিন্দুর দূরত্ব চিহ্নিত করে, তাকে দ্রাঘিমাংশ (Longitude) বলে।
দ্রাঘিমাংশ পৃথিবীর মধ্যরেখার পরিপ্রেক্ষিতে সংজ্ঞায়িত করা হয়, যা উত্তর মেরু থেকে দক্ষিণ মেরু পর্যন্ত উল্লম্বভাবে প্রসারিত। আমাদের পৃথিবী 360 দ্রাঘিমাংশে বিভক্ত।
প্রধান বা মূলমধ্যরেখার দ্রাঘিমাংশ ০ ডিগ্রি (শূন্য ডিগ্রি)  ধরা হয়। এই রেখাটি ইংল্যান্ডের গ্রিনিচ শহরের ওপর দিয়ে গেছে বলে একে গ্রিনিচ মধ্যরেখা বা গ্রিনিচরেখা বলা হয়। মূল মধ্যরেখার পূর্বে ও পশ্চিমে ১৮০ ডিগ্রি করে দ্রাঘিমাংশ আছে।
দ্রাঘিমাংশ এবং সময়ের মধ্যে একটি ঘনিষ্ঠ সংযোগ আছে। একটি নির্দিষ্ট স্থানে সময় দ্রাঘিমাংশের সাথে পরিবর্তিত হয়। সাধারণত 15° দ্রাঘিমাংশের পার্থক্য সময়ের সাথে এক ঘন্টার পার্থক্যের সাথে মিলে যায়।

অক্ষাংশ ও দ্রাঘিমাংশের পার্থক্য

অক্ষাংশ এবং দ্রাঘিমাংশ এর মধ্যে প্রধান পার্থক্য হল যে, অক্ষাংশ হল নিরক্ষরেখার উত্তর বা দক্ষিণের পরিমাপ। অন্যদিকে, দ্রাঘিমাংশ হল প্রাইম মেরিডিয়ানের পূর্ব বা পশ্চিমের একটি পরিমাপ।
১. অক্ষাংশ (Latitudes) হল বিষুবরেখার উত্তর বা দক্ষিণে দূরত্বের পরিমাপ। বিপরীতে, দ্রাঘিমাংশ হল স্থানাঙ্ক যা প্রাইম মেরিডিয়ানের পূর্ব বা পশ্চিমের পরিমাপ নির্দিষ্ট করে।
২.অক্ষাংশ রেখা বিষুবরেখার উপরে এবং নীচে অনুভূমিকভাবে প্রসারিত। অন্যদিকে, দ্রাঘিমাংশ পৃথিবীর উত্তর মেরু থেকে দক্ষিণ মেরু পর্যন্ত উল্লম্বভাবে প্রসারিত।
৩. পৃথিবী মোট ১৮০ টি কাল্পনিক অক্ষাংশ রেখা দ্বারা বিভক্ত। বিপরীতে, পৃথিবীর চারপাশের দূরত্বকে 360 ডিগ্রি হিসাবে পরিমাপ করা হয় এবং প্রতিটি মেরিডিয়ান এক ডিগ্রি দ্রাঘিমাংশ পরিমাপ করে।
৪. অক্ষাংশের দিক পূর্ব থেকে পশ্চিম। পক্ষান্তরে, দ্রাঘিমাংশের দিক উত্তর থেকে দক্ষিণ।
৫. অক্ষাংশের 0 ডিগ্রি (শূন্য ডিগ্রি) রেখাটি বিষুব রেখা। বিপরীতে, দ্রাঘিমাংশে 0 ডিগ্রি রেখাটি প্রাইম মেরিডিয়ান বা মূল মধ্যরেখা।
5/5 - (11 votes)