Blog
1 min read

বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে ?

বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে

বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে ?

সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে? আপনারা অনেকেই এ বিষয়ে গুগল সার্চ করে থাকেন। পৃথিবীতে অনেক প্রধানমন্ত্রী রয়েছেন তাদের মধ্যে ভালো খারাপ গুন থাকাটাই স্বাভাবিক।তবে সকল দিক থেকে বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে আজকে এ পোস্টের মাধ্যমে আপনাদের সামনে তুলে ধরার চেষ্টা করব।

বিশ্বের নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে? বা বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে? এই প্রশ্নের উত্তর পেতে হয়তোবা আপনি উদগ্রীব হয়ে রয়েছেন। আসলে রাজনীতির দাবা খেলা খুবই সুক্ষ ও জটিল বিষয়। কখন কাকে কিভাবে কোন বিষয়ে ব্যস্ত রাখতে হবে বা কার নামে কখন প্রচার প্রপাগান্ডা চালাতে হবে, এই সকল বিষয় রাজনীতির অন্তর্ভুক্ত। তাই বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে, এ বিষয়টি প্রশ্নসাপেক্ষ। বিশ্ব পরিচালনার দায়িত্বে যারা রয়েছেন তাদের অনেকের জনগন ক্ষিপ্ত। এ কারণে তারা জানতে চায় যে বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী বা বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে? এবং মনে মনে সে যে প্রধানমন্ত্রী কে ঘৃণা করে তার নামটি কামনা করে। 

কেননা যদি সে বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রীর তালিকায় তার অপছন্দের প্রধানমন্ত্রী কে দেখতে পায় তাহলে সে মনে মনে তৃপ্তি লাভ করতে পারবে। এবং তার ধারণা যে সঠিক প্রমাণ করতে পারবে।যাই হোক নিকৃষ্টের যে ক্রাইটেরিয়া সেটা সকল দেশের, সকল জাতির, সকল ভাষা কিংবা সকল ধর্ম ক্ষেত্রে এক নাও হতে পারে। যেমন ধরেন বাংলাদেশে ক্রিপ্টোকারেন্সি বৈধ নয়। কিন্তু বিশ্বের অনেক দেশেই বিটকয়েন লেনদেন বৈধ। সে ক্ষেত্রে বাংলাদেশের যদি কেউ এই ধরনের ক্রিপ্টোকারেন্সির লেনদেন করে তাহলে সে অপরাধী বলে গণ্য হবে।

পক্ষান্তরে যে সকল দেশে ক্রিপ্টোকারেন্সি বৈধ শেষে এটা লেনদেন করা কোন অপরাধ নয়। তাই খারাপ, বা নিকৃষ্ট পরিমাপ করার নির্দিষ্ট কোন প্যারামিটার নেই। এমনকি সময়ের সাথে ভালো ও মন্দের পার্থক্য বদলে যায়। আজকে যেটা নিকৃষ্ট বলে বিবেচিত, ২০ বছর পর সেটি নিকৃষ্ট বলে বিবেচিত নাও হতে পারে।

তাই বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে? এই প্রশ্নের উত্তর জানতে চাওয়া এক ধরনের বোকামি। যাইহোক আপনি যেহেতু জানতে চান যে বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রীর নাম, তাহলে পুরো আর্টিকেলটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। আশা করি আপনি আপনার প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবেন।

বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে – কিভাবে বাছাই করা হয়?

রাজনৈতিক প্রশ্নগুলোর উত্তর বা উৎকৃষ্ট, নিকৃষ্ট সম্পর্কিত প্রশ্ন গুলোর উত্তর দেশ, জাতি, ধর্ম ও ভাষার ব্যবধানের কারণে ভিন্ন ভিন্ন হতে পারে। বিশ্বের গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র গুলোতে প্রত্যেক দেশের বিরোধী দল এবং তাদের নেতাকর্মীরা মনে করে বর্তমান ক্ষমতাসীন দল এবং তার প্রধানমন্ত্রী  বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী।

বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে? এই ধরনের প্রশ্ন  বিশ্বের যেকোনো দেশের বিরোধী দলকে জিজ্ঞাসা করলে তারা ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রীর নাম বলবে? তাহলে কি বিশ্বের সকল প্রধানমন্ত্রী নিকৃষ্ট? কখনই সেটা হতে পারে না। আবার যদি আপনি বিশ্বের ক্ষমতাসীন দলের নেতা-কর্মীদেরকে জিজ্ঞাসা করেন যে পৃথিবীর মধ্যে সবচেয়ে ভালো প্রধানমন্ত্রী কে? তাহলে তারা এককথায় বর্তমান প্রধানমন্ত্রীর নাম বলবে। তাহলে কি বিশ্বের সকল ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রী ভালো? এটাও কেউ দাবি করতে পারবে না। কেননা, প্রধানমন্ত্রী যেই হোক না কেন কখনোই কোন প্রধানমন্ত্রী দেশের সকল মানুষের প্রিয় পাত্র হতে পারবে না। তাই বিশ্বের সবচেয়ে খারাপ প্রধানমন্ত্রী কে? এ প্রশ্নের সঠিক উত্তর পাওয়া মুশকিল।

বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে? – গুগলের উত্তর

বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর খোঁজার জন্য বর্তমানে সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত সার্চ ইঞ্জিন গুগল। গুগোলকে প্রশ্ন করলে সেকেন্ডের মধ্যে হাজার হাজার উত্তর সামনে এনে হাজির করে। এটা কিভাবে করে? সেই প্রক্রিয়াটা জানলেই আমরা বুঝতে পারবো গুগোল এর উত্তর কতটুকু সঠিক?

এখানে আমি এটা বোঝাতে চাচ্ছি না যে, গুগল ভুল উত্তর প্রদর্শন করে। কিন্তু এটা আপনাকে মানতেই হবে যে গুগোল সবসময় ১০০% সঠিক উত্তর প্রদান করতে পারেনা। গুগলের অনেক বিতর্কিত ও ভুল তথ্যের নজির আমাদের কাছে আছে। গুগোল যে কোন প্রশ্নের উত্তর বের করার জন্য নিজস্ব অ্যালগরিদম ব্যবহার করে। অর্থাৎ ইন্টারনেটে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বিভিন্ন তথ্য ঘেঁটে রিলেভেন্ট রেজাল্টগুলো শো করে।

এক্ষেত্রে আপনাকে মনে রাখতে হবে যে, ইন্টারনেটে যে সকল তথ্য দেওয়া রয়েছে সেগুলো কোন না কোন মানুষ ইন্টারনেটে আপলোড করেছে। অর্থাৎ ইন্টারনেটে মানুষের আপলোড করা তথ্যের ভিত্তিতেই গুগোল প্রশ্নের উত্তর আমাদের সামনে নিয়ে আসে।

তার মানে আপনি যদি কোনো বিষয় সম্পর্কে তথ্য ইন্টারনেটে আপলোড করেন, এবং কোন ব্যক্তি যদি সেই বিষয় সম্পর্কে জানতে চেয়ে গুগোল কে প্রশ্ন করে, আর গুগলের কাছে যদি আপনার ইনফর্মেশন টি সবচেয়ে বেশি রিলেভেন্ট মনে হয় তাহলে সেই ব্যক্তিকে গুগোল আপনার তথ্যটি সবার প্রথমে প্রদর্শন করবে।

বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে? তালিকায় কে কে আছেন?

আপনার যদি খুব জানতে ইচ্ছা হয় বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে? তাহলে আপনার জন্য একটি খুশির সংবাদ রয়েছে। বিশ্বের কিছু প্রধানমন্ত্রী রয়েছে যারা ইতিহাসের খলনায়ক উপাধি পেয়েছে। এবং বিশ্বে তাদের পক্ষে সাফাই করার মত কোন অনুসারী অবশিষ্ট নেই।

ইতিহাসের এরকম খলনায়ক এর তালিকায় এক নাম্বারে যারা নম্বর চলে আসে তাকে আমি আপনি সবাই চিনি। তাকে চিনি মানে তাকে দেখিনি, তার নাম শুনেছি বা ইতিহাস থেকে জেনেছি। সে হলো জার্মানির কুখ্যাত শাসক এডলফ হিটলার। সার্বিক বিবেচনায়, নিষ্ঠুরতার পরিমাপে, এবং জনবিচ্ছিন্ন নেতা হিসেবে এডলফ হিটলার কেই বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী উপাধি দেয়া যেতে পারে।

আশা করা যায় বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রীর উপাধি এডলফ হিটলারকে প্রদান করলে, উপাধিটি যথাপোযুক্ত হবে। এডলফ হিটলার ছাড়াও আরো অনেক খলনায়ক ইতিহাসের পাতায় রয়ে গেছে। জর্জ ডব্লিউ বুশ ২০০ বছরের মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী বলেন বিবেচিত। এটা আমার মুখের কথা নয় তাদের দেশের অর্থাৎ ইউএসএ’র বিখ্যাত ইউনিভার্সিটি UVM (University of Vermont) তাদের এক প্রতিবেদনে এ বিষয়টি তুলে ধরে।

 

বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী তালিকায় আরও অনেকেরই নাম রয়েছে যেমনঃ জেমস বুকানন, ওয়ারেন জি. হার্ডিং,অ্যান্ড্রু জনসন, ফ্র্যাঙ্কলিন পিয়ার্স, মিলার্ড ফিলমোর, জন টাইলার সহ আরো অনেকে। যাই হোক আমরা ইতিহাস না ঘেঁটে, শুধুমাত্র মনের ঘৃণা বা খেদ কে কেন্দ্র করে  বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কে? এ ধরনের প্রশ্নের উত্তর খোঁজার চেষ্টা করি।

অথচ বর্তমান বিশ্বে যে সকল শাসকবর্গ রয়েছে তাদের মধ্যে ইতিহাসে জায়গা করে নেওয়ার মতো (ভালো হিসেবে বা খারাপ হিসেবে) কতজন শাসক করেছে সেটা বিবেচ্য বিষয়।তাই খামোখা অপ্রয়োজনীয় বিষয় নিয়ে মাথা না ঘামিয়ে, ইতিহাস পড়ুন, ইতিহাস সম্পর্কে জানুন রাজনৈতিক অনেক সমস্যার সমাধান পেয়ে যাবেন।

সুপ্রিয়া পাঠক আমরা আশা করছি আপনারা আমাদের এই আর্টিকেল থেকে বিশ্বের সবচেয়ে নিকৃষ্ট প্রধানমন্ত্রী কারা সে সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।

Rate this post