Health
1 min read

গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকা

গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকা

গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকা

আসসালামুআলাইকুম প্রিয় দর্শক আজকে আলোচনা করবো গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকা সমূহ । প্রত্যেকটি গর্ভবতী মায়েদের জন্য  খাবারের তালিকা করতে হবে।  গর্ভকালীন সময় খুব আনন্দময় একটি সমঝোতায় আনন্দটাকে ধরে রাখার জন্য কিছু নিয়ম অবলম্বন করতে হবে।  গর্ভকালীন অবস্থায় খাবারের তালিকা। 

এ সময় মা ও শিশু  দুজন সুস্থ রাখার জন্য  অবশ্য  আপনাকে ভালো খাবারগুলো বেশি বেশি খেতে হবে। সারা বিশ্বে এখন  করণা মহামারীর কারণে দেশের বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দিন দিন বেড়ে যাচ্ছে তাই গর্ভবতী মায়েদের জন্য খুবই সর্তকতা অবলম্বন করে চলতে হবে।  বিশেষ খাবার দিকটা বুঝেশুনে কাজ করতে হবে। গর্ভবতী মায়েদের করোনার মহামারীর কারণে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হয়ে থাকে তাই গর্ভকালীন মায়েদের সুস্থতা জন্য ভালো যত্ন নেওয়ার প্রয়োজন ও দরকার।  একজন গর্ভবতী মহিলা তিনি নিজেকে খেয়াল রাখবে ঠিক আছে কিন্তু ফ্যামিলির সকলকে তাকে সহযোগিতা করার আহ্বান জানাচ্ছি।

গর্ভবতী মায়েদের সবদিক থেকে সুযোগ-সুবিধা রেস্ট বিশ্রাম খুবই জরুরি তাই পরিবারের সকলকে এই জিনিসটা বুঝে নিতে হবে।  তাই এই সময় আমরা পরিবারের সবাই একসঙ্গে কাজ সেরে নেব।  তাহলে কাজ করতে কষ্ট কম হবে।  একথা গুলো আমি শুধু একজন গর্ভবতী মায়েদের জন্য সুযোগ সুবিধার কারণে বলেছিলাম।   এই সময় একজন গর্ভবতী মায়েদের সুস্থ-সবল রাখা খুবই দরকার এবং শিশুকে ভালো রাখার জন্য তোমাকে অবশ্যই  রেস্টে রাখা দরকার।

 

গর্ভবতী মায়ের খাবার তালিকা সমূহঃ বিশ্রামের জন্য  সঠিক  নির্দেশনা  ও ব্যায়াম সম্পর্কে অবগত থাকা খুবই জরুরী। স্বাস্থ্যকর খাদ্য তালিকা বজায় রাখলে সেটি শুধু সংক্রমণ  থেকে দূরে রাখবে। তাই নয়। এর পাশাপাশি মানসিক দিক দিয়েও প্রফুল্লতা আনবে। গর্ভকালীন অবস্থায় মায়েদের পুষ্টিকর খাবার খুবই দরকার এবং খাবার তালিকায় পুষ্টিকর খাবার খাওয়া প্রয়োজন ।  জীবনে  অন্য দিনগুলো থেকে গর্ভকালীন সময়ে দিন গুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ এবং সবকিছু মেনটেইন করে চলতে হয় বিশেষ করে খাবারের দিক থেকে।

একজন গর্ভবতী মায়ের খাবার  সঠিক ভাবে  মেনে চলতে পারে তাহলে মা ও শিশুর  দুজনেই সুস্থ থাকবে। তাই আপনাকে অবশ্যই গর্ভকালীন অবস্থায় খাবার তালিকা  মেনটেন করে চলতে। যদি আপনি গর্ব অবস্থায় পরিকল্পনা গ্রহণ বা গর্ভবতী হন তাহলে আপনার জন্য সুনির্দিষ্ট কিছু খাদ্য তালিকা নিয়ে আজকের এই আলোচনা।

গর্ভবতী মায়ের ১ মাসের খাবার তালিকাঃ

গর্ভকালীন অবস্থায় প্রথম মাসে গর্ভবতী মায়ের খাবার খাবেন।আপনার গর্ভের সন্তান  ভিডিওটাকে সরাসরিভাবে প্রবাহিত করে থাকি।   গর্ভাবস্থার উপসর্গগুলো গর্ভাবস্থার আড়াই সপ্তাহ পরেই লক্ষণীয় হয়ে ওঠে।

নিচে উল্লেখ রয়েছে প্রথম মাসের গর্ভবতী মায়ের খাবার তালিকা সমূহঃ

দুর্গন্ধ জাত খাবার

গর্ভকালীন মায়ের প্রথম মাসের খাবার তালিকা দুধ টক দই।  দুর্গন্ধ খাবার  ফোর্টিফাইড

দ্রব্যাদি ক্যালসিয়াম, ভিটামিন ডি, প্রোটিন, স্বাস্থ্যকর চর্বি এবং ফলিক এসিডের একটি দুর্দান্ত উৎস।

ফোলেট সমৃদ্ধ খাবারঃ

প্রাথমিক বিকাশের সময় ফলিক অ্যাসিড নিউড়াল টিউব গঠনে সাহায্য করে। ফলিক অ্যাসিড খুব গুরুত্বপূর্ণ এটি শিশুর মস্তিষ্ক এনএন সেফালি মেরুদন্ডের টিফিন কিছু বড় জন্মগত ত্রুটি প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে ।আপনি ফলিক অ্যাসিড সম্পূর্ণ রূপক সার্ভেন্ট গ্রহণ করলেও আপনার খাদ্যতালিকায় ফ্লয়েড সমূহ খাবার যোগ করা গুরুত্বপূর্ণ।  এসব ধরনের খাবারের উদাহরণ হল টক জাতীয়  যেকোনো খাবার। বা সাইট এক্স ফল মটরশুটি মটর মসুর ডাল চাল রিয়াল জাতীয় খাবার।

হোল গ্রেইন গোটা শস্য জাতীয় খাবারঃ

জেনে নিন গোটা শস্যজাতীয় খাবার গুলো কার্বন-ডাই-অক্সাইড ডায়েটিং ফাইবার ভিটামিন বি কমপ্লেক্স আয়রন ম্যাগনেসিয়াম খনিজ পদার্থের উৎস সেলেনিয়াম আপনার গর্ভে শিশুর শারীরিক বৃদ্ধি মানসিক বিকাশের জন্য এগুলো অপ অপরিহার্য পুষ্টিকর উপাদান।  তাই এই খাবারগুলো খেতে পারেন। হোল গ্রেইন উদাহরণগুলো হল বাজরা  বাদামী চাল  ইত্যাদি।

মাছঃ

মাছের মধ্যে রয়েছে প্রোটিন।  এটি ওমেগা 3 ফ্যাটি এসিড ভিটামিন বি  ডি ই  ক্যালসিয়াম পটাশিয়াম জিংক আয়রন ম্যাগনেসিয়াম ফসফরাস প্রয়োজনীয় খনিজ পদার্থের একটি সরল প্রকৃতির সং।

 মুরগি ও ডিমঃ

হাঁস মুরগি তো রয়েছে প্রোটিনের চমৎকার উৎস।  ডিমে রয়েছে প্রচুর প্রোটিন ভিটামিন এ  বি ২  ক্যালসিয়াম রয়েছে। এর পাশাপাশি রয়েছে ব্রিটেনে জিংক আয়রন।  গর্ভবতী মায়েদের জন্য প্রথম এক মাস অবশ্যই আপনাকে মুরগির মাংস ও ডিম রাখা ।

বীজ ও  বাদাম 

বীজ এবং বাদামে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে স্বাস্থ্যকর চর্বি ভিটামিন প্রোটিন খনিজ পদার্থ ফ্লাভোনয়েডও  ডায়েটারি  ফাইবার।  গর্ভকালীন প্রথম এক মাস অবশ্যই আপনাকে এইসব খাবারগুলো খেতে হবে।

শাকসবজিঃ

গর্ভবতী মায়ের খাবার তালিকা  রাখতে গাজর,  মিষ্টি আলু, টমেটো, ব্রকলি, পালং শাক, বেগুন, ভুট্টা বাঁধাকপি ইত্যাদি।

আয়োডিনযুক্ত লবণঃ

গর্ভকালীন অবস্থায় আপনাকে অবশ্যই আয়োডিনযুক্ত লবণ ব্যবহার করা দরকার। আয়োডিনযুক্ত লবণ গর্ভের শিশুকে স্নায়ুতন্ত্র ও মস্তিষ্কের সঠিক বিকাশে সহায়তা করে।গর্ভকালীন অবস্থায় প্রথম মাসে আপনার শরীরের বেশ কিছু পরিবর্তন ঘটতে পারে।  হরমোন গত কারণে আপনার স্বাভাবিক মেজাজের পরিবর্তন ক্লান্তি অস্বস্তিকর সকালে অসুস্থ বোধ করা।

নিয়মিত বিরতিতে স্বাস্থ্যকর খাবার খান প্রচুর পরিমাণে পানি ব্যবহার করুন ।প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে এর সঙ্গে হালকা ব্যায়াম করতে হবে মানসিক চাপমুক্ত করতে হবে।  দুশ্চিন্তা থেকে দুরে থাকতে হবে।  টেনশন থেকে মুক্ত থাকতে হবে।  হাসি খুশি অনুভব করতে হবে ইত্যাদি।

কড লিভার অয়েলঃ

কড লিভার অয়েল ওমেগা 3 ফ্যাটি এসিড সমূহ খাবার ভ্রমণের মস্তিষ্ক বিকাশের জন্য অপরিহার্য । এতে রয়েছে ভিটামিন ডি। যা প্রিক্ল্যাম্পশিয়া প্রতিরোধে সহায়ক।

দ্বিতীয় মাসের গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকা সমূহঃ

দ্বিতীয় মাসে মায়ের খাবার তালিকা । এই সময় সকাল বেলা বেশি পরিমাণে খারাপ লাগতে পারে যেমন বমি বমি ভাব অস্বস্তিকর কারণ হয়ে দাঁড়ায়।  যার কারণে আপনাকে অবশ্যই পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে এবং পুষ্টিকর খাবার খাওয়া খুবই জরুরী।  এটি ভ্রমণের সঠিক বিকাশে সহায়তা করতে পারে। এই সময়ে ভ্রমণের নিউরাল টিউব বিকশিত হয় যা পরে মস্তিষ্ক মেরুদন্ড বিকশিত হয়।

 গর্ভবতী মায়েদের ২ মাসের  খাবার তালিকাঃ

আয়রন 

দ্বিতীয় মাসের  গর্ভবতী  মায়ের  আয়রনযুক্ত খাবার খাওয়া খুবই জরুরী। আয়রন একটি অপরিহার্য পুষ্টিকর উপাদান।  একজন গর্ভবতী মায়েদের শক্তিশালী রক্ত প্রয়োজন হয় আয়রন।  দ্বিতীয় মাসের গর্ভবতী মায়ের খাবার তালিকা তে রয়েছে, মেথি, মুরগি, ডিম, পালং শাক, বিটরুট ইত্যাদি।

 ফলিক এসিডঃ

প্রথম ত্রৈমাসিকেফলিক এসিড সমূহ খাবার অনাগত শিশুকে নিউরাল টিউব এর তরুণটি থেকে রক্ষা করতে সহায়তা করবে।  তাই অবশ্যই আপনাকে এই নিয়মগুলো মেনে চলতে হবে শিশুর ভালোর জন্য। ডিম, আখরোট, মসুর ডাল, শাক সবজি, লাল-সবুজে ইত্যাদি। গর্ভবতী মায়েদের জন্য ফলিক এসিডের সমূহ প্রাকৃতিক সম্পূর্ণ রূপ।

প্রোটিনঃ

দ্বিতীয় মাসের গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকা মুরগির ডিম দুধ মাংস মসুর ডাল শাক সবজি ইত্যাদি গর্ভাবস্থায় শুরু থেকে প্রোটিন অপরিহার্য। তাই আপনাকে শুরু থেকে লাস্ট পর্যন্ত এইসব খাবারগুলো খেতে হবে। এর সঙ্গে আপনি পর্যাপ্ত পরিমাণে পানি পান করতে থাকুন।

ক্যালসিয়ামঃ

দ্বিতীয় মাসের গর্ভবতী মায়ের খাবার তালিকা  অবশ্যই আপনাকে ক্যালসিয়াম যুক্ত খাবার রাখতে হবে। ক্যালসিয়াম মা ও শিশু দুজনকে ভাল রাখতে পারবে। তাই আপনাকে ক্যালসিয়ামযুক্ত খাবার অবশ্যই খেতে হবে। ফরমালিন ছাড়া খাবার এই সময় খাওয়া খুব জরুরি।

তাই যদি  ফরমালিন যুক্ত যদি কোন খাবার ঘরে থাকে তাহলে অবশ্যই সেই খাবারগুলো কে 10 থেকে 15 মিনিট ভিজিয়ে রাখুন তারপর খেয়ে নিন। অতএব গর্ভবতী মায়েদের কখনো ফরমালিন যুক্ত খাবার খাওয়া যাবেনা। দ্বিতীয় মাসের গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকায় রয়েছে ক্যালসিয়াম যুক্ত খাবার সেগুলোর মধ্যে কিছু খাবার উল্লেখ্য করব যেমন বাঁধাকপি শাকসবজি শালগম ইত্যাদি এ খাবারগুলোতে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম রয়েছে।

 চর্বিঃ

ঘি এবং সরিষার তেলের মতো স্বাস্থ্যকর চর্বি ভ্রূণের চোখ, মস্তিষ্ক, প্লাসেন্টা ও টিস্যু গঠনে সাহায্য করে।

জিংকঃ

 গর্ভবতী মায়ের ২ মাসের খাবার তালিকা সমূহঃ

গুলো অন্তর্ভুক্ত রয়েছে ।জিংক এর মধ্যে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন।   শাকসবজি মটরশুঁটি মুরগি মাছ সবই জিংকের সমৃদ্ধ উৎস।অ্যাসিড বিপাক এবং জৈবিক ক্রিয়াকলাপের জন্য জিংক এর প্রয়োজন।

 ফাইবারঃ

দ্বিতীয় মাসের গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকা রক্তের চাপ বজায় রাখতে এই খাবারগুলো প্রয়োজন গর্ভকালীন অবস্থায় কোষ্ঠকাঠিন্য থেকে দূরে রাখবে এই খাবারগুলো।  ফাইবার যুক্ত খাবার হজম শক্তি দূর করতে সাহায্য করে।  হজম শক্তি দূর করার খাবার জেনে নিন কলা কমলা বাঁধাকপি সেরিয়াল ইত্যাদি।

প্রোটিনঃ

দ্বিতীয় মাসের গর্ভবতী মায়েদের খাবার  তালিকা মসুর ডাল ডিম দুধ মাংস মাছ ইত্যাদি এসবই হচ্ছে টুডে সরবরাহ যুক্ত খাবার। তাই আপনার গর্ভকালীন অবস্থান দ্বিতীয় মাস এই খাবারগুলো খেতে হবে।

শুরু থেকে লাস্ট পর্যন্ত প্রোটিনযুক্ত খাবার খুবই অপরিহার্য।

গর্ভবতী মায়ের ৩  মাসের খাবার তালিকাঃ

 গর্ভবতী মায়ের ৩ মাসের  খাবার তালিকাঃ

তৃতীয় মাসের গর্ভবতী মায়েদের  ৯ থেকে ১২ সপ্তাহের জন্য একটি কঠিন  সময়ের মধ্যেই আসবো জীবন কাটাতে হয়। মা হওয়া উচিত নয় মা হওয়া খুবই কষ্ট করে একটি কাজ। আপনি যখন গর্ভবতী অনুভব করেন এবং গর্ভকালীন প্রথম থেকে লাস্ট পর্যন্ত শরীরে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে এবং তা এই সমস্যাগুলো মেনে চলতে হয় এবং ডেলিভারি হওয়ার পর সবকিছু আবার আগের মত ঠিক হয়ে যায়।

গর্ভকালীন তৃতীয় মাসে আপনার বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে যেমন শরীর ক্লান্ত দুর্বল মাথা ঘোরানো বমি বমি লাগে এরকম অস্বাস্থ্যকর লাগতে পারে মোটেও কোন কিছুই ভালো লাগেনা।  এই সময় সব থেকে বেশি গর্ভপাতের খবর পাওয়া যায়।

তাই তৃতীয় মাসের সময়ে মায়েদের মানসিক চাপমুক্ত থাকা খুবই দরকার। এবং সময় কখনো ভুল নেই টেনশন ফিল করবেন না এবং দুশ্চিন্তা করবেন না এবং মানসিক চাপ কখনো অনুভব করবেন না। এসব করলে আপনার গর্ভের শিশুর অনেক বড় ক্ষতি হতে পারে।  তৃতীয় মাসের গর্ভকালীন মায়েদের খাবার তালিকা এমন খাবার রাখতে হবে যেন একজন গর্ভবতী মায়ের জন্য খুব শান্তিময় এবং স্বস্তিকর একটি খাবার হয় যে খাবার খেলে গর্ভবতী মা সুস্থ থাকবেন।  প্রথম থেকে লাস্ট পর্যন্ত আপনাকে অবশ্যই প্রচুর পরিমাণে পানি খেতে হবে।

তাহলে জেনে নিন তৃতীয় মাসের গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকা সমূহঃ

 টাটকা ফল|

তৃতীয় মাসের গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকা তে রয়েছে ডালিম কলা পেয়ারা কমলা আপেল।  ইত্যাদি রয়েছে প্রচুর পরিমাণে পুষ্টি  অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে।  যার কারণে   শিশুর  সুস্থ  বৃদ্ধি  বিকাশ অপরিহার্য। তাই গর্ভকালীন তৃতীয় মাসের সময় আপনাকে অবশ্যই প্রচুর পরিমাণে ফল খেতে হবে।  সেই ফলগুলো অবশ্যই ফরমালিন ছাড়া ফল হতে হবে।

 ওমেগা 3 সমৃদ্ধ খাবারঃ

আখরোট,   সোয়াবিন ,  ক্যানোলা তেল, চিয়া বীজ,  ইত্যাদি।

 ফলিক সমৃদ্ধ খাবারঃ

তৃতীয় মাসে গর্ভবতী মায়েদের অবশ্যই অবশ্যই ফলিক সমৃদ্ধ খাবার গুলো খেতে হবে।  এর উপকারিতা হচ্ছে আপনার শিশুর মস্তিষ্ক মেরুদন্ড সঠিকভাবে বিকাশের দিক থেকে প্রবলেম হবে।  তাই ২. ফোলেট সমৃদ্ধ খাবারগুলো অবশ্যই খেতে হবে।

ভিটামিন বি ৬ সমৃদ্ধ খাবারঃ

গর্ভকালীন অবস্থায় তৃতীয় মাসের ভিটামিন বি৬  এর জন্য বমি বমি ভাব বমি প্রতিরোধ  সহায়তা করে।  ভিটামিন বি৬ সমৃদ্ধ খাবারএর মধ্যে রয়েছে চর্বিহীন হাঁস মুরগির মাংস বাদাম বীজ ইত্যাদি।

 ভিটামিন ডি

ভিটামিন-ডি শিশুর স্বাভাবিক কোষ বিভাজন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন রাখে।  ভিটামিন টি ইউনিয়ন সিমেন্ট বিকাশ হাড়ের বিকাশ ঘটে। ভিটামিন ডি সমৃদ্ধ খাবারচর্বিযুক্ত মাছ ডিমের কুসুম কড লিভার অয়েল ইত্যাদি।

দুগ্ধজাত পণ্যঃ

গর্ভকালীন মায়েদের তিন মাসের খাবার তালিকা দুই দুধ পনির এর মত খাবারের উপস্থিতি নিশ্চিত করতে হবে।  শক্তিশালী হাড় গঠনে ক্যালসিয়াম কাজ করে থাকে।

  প্রোটিনঃ

গর্ভবতী মায়েদের জন্য প্রোটিনযুক্ত খাবার তালিকার মধ্যে অবশ্যই রাখতে হবে। প্রোটিনযুক্ত খাবার গর্ভকালীন অবস্থায় খুবই দরকার এবং জরুরি। তাই  আপনাকে অবশ্যই প্রোটিন যুক্ত খাবার তালিকায় রাখতে হবে।

কার্বোহাইড্রেটঃ

কার্বোহাইড্রেট গর্ভবতী মায়েদের শরীরের জন্য খুবই দরকার।  কার্বোহাইড্রেট শরীরের জন্য শক্তি যোগায়।  তাই এই সময় শক্তির জন্য অবশ্যই কার্বোহাইড্রেট রাখতে হবে।  জটিল কার্বোহাইড্রেট পাওয়া যায় গোটা।  কার্বোহাইড আলু আলু থাকে।কার্বোহাইড্রেট গর্ভবতী মায়ের সুস্থ রাখে।

শাকসবজিঃ

গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকায় অবশ্যই তিন মাসের খাবার তালিকা তে রাখবেন শাকসবজি। শাকসবজি অবশ্যই খেতে হবে।  গর্ভবতী মা বিস্তৃত পরিসরে পুষ্টিকর খাবার গুলো খেতে হবে। পুষ্টিকর খাবার গুলো হল মিষ্টি কুমড়া পালং শাক মিষ্টি আলু টমেটো গাজর কুমড়া ভর্তা বেগুন বাঁধাকপি ইত্যাদি। এই খাবারগুলো মায়ের জন্য খুব উপকারী একটি খাবার তাই অবশ্যই আপনাকে গর্ভবতী মায়ের খাবার তালিকা ।

গর্ভবতী মায়ের  ৫ মাসের খাবার তালিকা সমূহঃ

গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকায় পঞ্চম মাসে ক্যালসিয়াম যুক্ত খাবার রাখতে হবে।  গর্ভধারণের পঞ্চম মাসের 17 থেকে 20 সপ্তাহ আপনাকে প্রতিদিন কমপক্ষে 347 অতিরিক্ত ক্যালসিয়াম গ্রহণ করতে হবে।  প্রায় 1 বা 2 পাউন্ড ওজন বাড়াতে হবে। পঞ্চ মাসের খাবার তালিকা তে আপনাকে অবশ্যই ক্যালসিয়াম প্রোটিনযুক্ত ক্যালসিয়াম খাবার থাকা জরুরি।

প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবারঃ

আপনি যখন পঞ্চরসের গর্ভবতী তখন আপনাকে অবশ্যই প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার।গুলো খেতে হবে গর্ভবতী মায়েদের পঞ্চম মাসের খাবার তালিকা তে রয়েছে গাল সিরিয়াল 20 বাদাম ছোলা পনির ইত্যাদি। খাবার রাখতে হবে।

 গোটা শস্য বা হোল গ্রেইনঃ

ভিটামিন ই  ভিটামিন বি ম্যাগনেসিয়াম আয়রনকমপ্লেক্স  গটা  সরষে সে প্রচুর পরিমাণে প্রয়োজন

  • ক) সালাত
  • খ). ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার
  • গ) ফল
  • ঘ)  উচ্চ ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার

 

 গর্ভবতী মায়ের ৭ মাসের  খাবার তালিকা সমূহঃ

সপ্তম আসে আপনার গর্ভে বাচ্চা নানা রকমের পরিবর্তনের বৃদ্ধি পাবে।  এই সময় আপনি ঠিকভাবে চলাফেরা করতে পারবেন না।  সবকিছু নিশ্চিত করার জন্য আপনাকে অবশ্যই স্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস বজায় রাখতে হবে।  স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা অন্তর্ভুক্ত অতিরিক্ত 450 সুপারিশ করতে হবে।  আপনাকে অবশ্যই এই সময়ের পরিমাণ মতো খাবার খেতে হবে।  অতিরিক্ত কোন খাবার খাওয়া যাবেনা। এবং শেষ শুকনো জাতীয় বা ভাজাপোড়া কোন খাবার না খাওয়াই উত্তম। এবং বেশি পরিমাণ  পানি পান করুন ।

গর্ভবতী মায়ের ৭ মাসের খাবার তালিকা সমূহঃ

  • ম্যাগনেসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার
  • আয়রন প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবার
  • ক্যালসিয়াম সমৃদ্ধ খাবার
  • ডি এইচ এ  সমৃদ্ধ খাবার

 

ডি এইচ এ এক ধরণের ফ্যাটি এসিড, যা গর্ভের শিশুর মস্তিষ্কের বিকাশে সহায়তা করে। মাছের তেল, চর্বিযুক্ত মাছ, আখরোট, ফ্লাক্স বীজে ডি এইচ এ থাকে।

 

  • ফাইবার সমৃদ্ধ খাবার
  •  ফলিক অ্যাসিড এসিড সমৃদ্ধ খাবার
  •  ভিটামিন সি সমৃদ্ধ খাবার

 

গর্ভবতী মায়েদের 9 মাসের খাবার তালিকাঃ

গর্ভকালীন অবস্থায় 9 মাস এখন হচ্ছে শেষের দিকে তাই এ সময় আপনাকে অবশ্যই পর্যাপ্ত পরিমাণ বিশ্রামের প্রয়োজন। । তৃতীয় ত্রৈমাসিকে আপনার খাদ্য ও জীবনধারা আপনার ও আপনার শিশুর উভয়ের স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলে।নবম মাসে প্রথম ও দ্বিতীয় ত্রৈমাসিকের মতো স্বাস্থ্যকর ও পুষ্টিকর খাবার গ্রহণ করুন।

গর্ভবতী মায়েদের 9 মাসের খাবার তালিকা সমূহ নিচে আলোচনা করা হলোঃ

 

গর্ভবতী মায়েদের 9 মাসের খাবার তালিকা তে রয়েছে শাক সবজি ফুলকপি মটরশুটি মিষ্টি আলু গাজর তাজা ফল টাটকা সবজি শসা মসুর ডাল ইত্যাদি।  পনির ডিম মাংস মাছ  পালং শাক  বাদাম কিসমিস ইত্যাদি।

গর্ভবতী মায়েদের খাবার তালিকা, গর্ভাবস্থায় কি কি সবজি খাওয়া যাবে না,

Rate this post