Class 7 - ডিজিটাল প্রযুক্তি
1 min read

৭ম শ্রেণির ডিজিটাল প্রযুক্তি শিখন অভিজ্ঞতা ১ সেশন ৭ উত্তর (PDF)

৭ম শ্রেণির ডিজিটাল প্রযুক্তি শিখন অভিজ্ঞতা ১ সেশন ৭ : শৈবাল আজকে বিদ্যালয় আসার সময় দেখল অনেক মেঘ করেছে, ও ক্লাসে এসে তার বন্ধুদের বলল ‘জানিস আজকে বৃষ্টি হবে’। শৈবাল তার বন্ধুদের তার চারপাশের পরিবেশ পর্যবেক্ষণ করে একটি তথ্য দিল।

এটি হচ্ছে তার মতামত। একই তথ্য যদি শৈবাল একটি মেঘের ছবি তুলে, সেখানে তার নাম ও তারিখসহ বৃষ্টির পূর্বাভাস লিখে কোনো একটি মাধ্যমে প্রচার তথ্যটিকে বলতে পারতাম শৈবালের তৈরি ‘বিষয়বস্ত বা কনটেন্ট।

দোকান থেকে মালা কলম কিনতে গিয়ে দেখল, দুটি কলম কিনলে দোকানি তাকে একটি কলম ফ্রি দিয়েছেন। মালা খুব খুশি হলো আর তার সব বন্ধুদের খবরটি জানিয়ে দিল। মালা তার অভিজ্ঞতা থেকে এই তথ্য তার বন্ধুদের দিল।

মালা যদি বাজারে একটি পোস্টারে ওই দোকানের বিজ্ঞাপন দেখত, “দুটি কলম কিনলে একটি কলম ফ্রি” তাহলে ওই পোস্টারের বিজ্ঞাপনটিকে বলা যেত একটি “বিষয়বস্ত বা কনটেন্ট”।

৭ম শ্রেণির ডিজিটাল প্রযুক্তি শিখন অভিজ্ঞতা ১ সেশন ৭

কনটেন্ট বা বিষয়বন্ত হলো একটি নির্দিষ্ট বিষয়ের উপর বিভিন্ন রকম তথ্যের সংকলন (সংযোগ বা একত্র করা) যা বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করে পাঠক বা দর্শকের বোঝার উপযোগী করে তৈরি করা হয়। বইয়ের গল্প, নাটক, সিনেমা, খবর, গান এ সবগুলোই হচ্ছে কনটেন্ট। কনটেন্ট বা বিষয়বস্ত শুধু যে আমাদের তথ্য দেয় তা কিন্তু নয়, এটি আমাদের বিনোদনও দেয়।

আমরা একটু ভেবে দেখলেই বুঝতে পারব, আমরা সারা দিন নানান রকম কনটেন্ট আমাদের চারপাশে দেখতে পাই। যেমন গান শুনতে পাই, টেলিভিশন দেখতে পাই, দোকানের মধ্যে অনেক রকম পোস্টার দেখতে পাই। কিন্তু এর মধ্যে ডিজিটাল কনটেন্ট কোনোগুলো? যে কনটেন্টগুলো ইন্টারনেটের মাধ্যমে প্রচার এবং আমাদের কাছে পৌঁছে দেওয়া হয় সেগুলো হচ্ছে ডিজিটাল কনটেন্ট।

কনটেন্ট (Content) কী?

উত্তর: কনটেন্ট বা বিষয়বস্তু হলো নির্দিষ্ট বিষয়ের ওপর বিভিন্ন রকমের তথ্যের সংকলন, যা বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করে পাঠক বা দর্শকের বোঝার উপযোগী করে তৈরি করা হয়। যেমন- সিনেমা, গান, কার্টুন, গল্প ইত্যাদি।

ডিজিটাল কনটেন্ট (Digital Content) কী?

উত্তর: যে কনটেন্টগুলো ইন্টারনেট বা ইলেকট্রিক মাধ্যমে পাঠক বা দর্শকের বোঝার উপযোগী করে তৈরি করা হয়, তাকে ডিজিটাল কনটেন্ট বলে। যেমন- টেলিভিশন সংবাদ, অনলাইন নিউজ ইত্যাদি।

আমার পাশের বন্ধুর সঙ্গে গল্প করি

আমি গতকাল থেকে আজকে পর্যন্ত কি কি কনটেন্ট দেখেছি তা আমার পাশের বন্ধুর সঙ্গে গল্প করি। এর মধ্যে কোনোটা ডিজিটাল ছিল কিনা সেটিও বন্ধুকে বলব। বলার সময় একটু সুন্দর করে গুছিয়ে বলব, কী দেখেছি? কখন দেখেছি? কেন ভালো/মন্দ লেগেছে?

নিচের ঘরে আমার বন্ধু যে কনটেন্ট দেখেছে তার যেকোনো ৩টি লিখি এবং তা ডিজিটাল কনটেন্ট কিনা, তা টিক চিহ্ন দিয়ে বুঝিয়ে দেই।

আমার বন্ধু যে কনটেন্ট দেখেছে

১. দেয়ালে লাগানো পোস্টার – (ডিজিটাল ????)
২. টেলিভিশনে সংবাদ পরিবেশন – (ডিজিটাল নয় ????)
৩. অনলাইন নিউজ পোর্টালে একটি আর্টিকেল – (ডিজিটাল ????)

সেমিনার আয়োজন

আমরা গত কিছুদিন দলীয়ভাবে একটি সমস্যা নিয়ে গবেষণা করেছি এবং সমস্যার সমাধানও খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছি। কিন্তু সে সমাধান শুধু আমার প্রতিবেদনের লেখা হয়ে বন্দী থাকলে কী হবে? সবচেয়ে ভালো হয় আমরা যদি একটি সেমিনার আয়োজন করতে পারি।

সেমিনারে আমরা আমাদের সমাধানগুলো বিভিন্নভাবে সবার কাছে উপস্থাপন করব। আমরা বিভিন্ন রকম কনটেন্ট বা বিষয়বস্তর আকারে এগুলো উপস্থাপন করতে পারি, যেমন-

  • কম্পিউটার ব্যবহার করে উপস্থাপনা;
  • ছবি দিয়ে গল্প বলা;
  • মোবাইল ফোনের ক্যামেরায় তৈরি নাটক;
  • ফোনের ত্যানিমেশন ব্যবহার করে গল্প বলা;
  • ডিজিটাল পোস্টার তৈরি;

আাগামী সেশনের প্রস্তুতি

আমরা দলের সবাই মিলে চিন্তা করব আমরা কী বা কেমন কনটেন্টের মাধ্যম আমাদের বিদ্যালয়ের সবাইকে সচেতন করতে চাই। নিজে নিজে ভেবে নিয়ে আসব আর পরবর্তী দিন দলের সবাই মিলে ঠিক করব আমরা কোন কাজটি করতে পারি।

এ ক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে, আমাদের হাতের কাছে যে ধরনের প্রযুক্তিগত সুবিধা আছে সেগুলোকে কাজে লাগিয়েই আমরা আমাদের কনটেন্ট তৈরি করব। প্রযুক্তির সুবধা না থাকলে আমরা গান, কবিতা, ছড়া, গল্প বলা, নাটক মঞ্চায়ন ইত্যাদির মাধ্যমেও সচেতন করতে পারি।

ANSWER SHEET

Rate this post