Class 6 - বিজ্ঞান
1 min read

ষষ্ঠ শ্রেণির বিজ্ঞান ৮ম অধ্যায়: মিশ্রণ (PDF)

ষষ্ঠ শ্রেণির বিজ্ঞান ৮ম অধ্যায় সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর : দৈনন্দিন জীবনে আমরা নানা রকমের জিনিস ব্যবহার করে থাকি। এদের কোনোটি বিশুদ্ধ আর কোনোটি মিশ্রণ। মিশ্রণের মধ্যে আবার কোনোটি দ্রবণ, কোনোটি সাসপেনসন আর কোনোটি কলয়েড।

ষষ্ঠ শ্রেণির বিজ্ঞান ৮ম অধ্যায় সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর

সৃজনশীল প্রশ্ন ১ : ঔষধ খাওয়ানোর সময় আদিল প্রতিবারই লক্ষ করে মা ঔষধের বোতল ঝাঁকিয়ে নেন। কিন্তু দুধ খাওয়ানোর সময় ঝাঁকান না।

ক. অসমস্বত্ব মিশ্রণ কী?
খ. দ্রবণীয়তা বলতে কী বোঝায়?
গ. ঔষধের বোতল আদিলের মা কেন ঝাঁকিয়ে নেন ব্যাখ্যা করো।
ঘ. মিশ্রণ দুটি কি একই? তোমার উত্তরের পক্ষে যুক্তি দাও।

প্রশ্নের উত্তর

ক. যেসব মিশ্রণে উপাদানগুলো সুষম অনুপাতে থাকে না এবং একটি উপাদান থেকে আরেকটি উপাদান সহজে আলাদা করা যায় সেসব মিশ্রণই হলো অসমস্বত্ব মিশ্রণ।

খ. কোনো নির্দিষ্ট তাপমাত্রায় ১০০ গ্রাম দ্রাবক (যেমন-পানি) নিয়ে কোনো দ্রবের (যেমন-লবণ) সম্পৃক্ত দ্রবণ তৈরি করতে যতটুকু দ্রবের প্রয়োজন হয়, তাকে ঐ দ্রাবকে দ্রবের দ্রবণীয়তা বলে। যেমন— ২৫°C তাপমাত্রায় ১০০ গ্রাম পানিতে সর্বোচ্চ ৩৬ গ্রাম লবণ দ্রবীভূত হতে পারে। অতএব, ২৫°C তাপমাত্রায় পানিতে লবণের দ্রবণীয়তা ৩৬ গ্রাম।

গ. উদ্দীপকের ঔষধটি ছিল একটি সাসপেনসন। এটি এক ধরনের মিশ্রণ যা অনেকক্ষণ যাবৎ রেখে দিলে উপাদানসমূহ আংশিকভাবে আলাদা হয়ে যায় ও বোতলের নিচে তলানি পড়ে যায়। এ অবস্থায় বোতলে থাকা ঔষধ পান করলে তা সঠিকভাবে কাজ করে না। তাই, ঔষধ সেবনের পূর্বে উপাদানগুলোকে সুষমভাবে মিশিয়ে নেওয়ার জন্যই আদিলের মা ঔষধের বোতল ঝাঁকিয়ে নেন।

ঘ. ঔষধ হলো সাসপেনসন কিন্তু দুধ হলো কলয়েড। তাই মিশ্রণ দুটি এক নয়। সাসপেনসন হলো এমন এক ধরনের মিশ্রণ যা অনেকক্ষণ যাবৎ রেখে দিলে উপাদানসমূহ আংশিকভাবে আলাদা হয়ে যায়। তাই ঔষধের বোতল রেখে দিলে অনেকক্ষণ পর এর উপাদানসমূহ পৃথক হয়ে বোতলের নিচে তলানি হিসেবে পড়ে।

সাসপেনসনের কণাগুলোর আকার ১ মাইক্রোমিটার বা তার বেশি হয়। তাই কণাগুলো দ্রুত তলানি না পড়লেও অনেকক্ষণ পরে তলানি পড়ে। অপরদিকে, কলয়েড হলো এমন এক ধরনের মিশ্রণ, যেখানে অতিক্ষুদ্র কোনো বস্তুকণা অপর বস্তুকণার মাঝে ভাসমান অবস্থায় থাকে এবং রেখে দিলে কখনই কোনো তলানি পড়ে না। দুধ হলো পানি ও চর্বির কলয়েড।

যেখানে চর্বির কণাগুলো পানিতে দ্রবীভূত না হয়ে ছড়িয়ে থাকে। দুধে পানির পরিমাণ বেশি বলে এটিকে অবিচ্ছিন্ন ফেজ বা দশা এবং চর্বির পরিমাণ কম বলে এটিকে ডিসপারসড ফেজ বা দশা বলে। এক্ষেত্রে ভাসমান কণাগুলোর আকার ১-১০০০ ন্যানোমিটার হয়ে থাকে। তাই, দুধ ও ঔষধ মিশ্রণ দুটি এক নয়।

নিজে অনুশীলন করো

সৃজনশীল প্রশ্ন ২ : হাবিব ল্যাবরেটরিতে দস্তার পাত নিয়ে কাজ করতে গেলে পাতটি এসিডের মধ্যে পড়ে যায়। সে অনেক চেষ্টা করেও পাতটি তুলতে পারল না। কিন্তু তার বন্ধু করিম এ কাজটি করার সময় দস্তার পাতটি যখন পানিতে পরেছিল তখন এমনটি ঘটেনি।

ক. পানিতে দ্রবীভূত অক্সিজেন কোন ধরনের দ্রবণ?
খ. ময়লাযুক্ত লবণ পানির মিশ্রণ কোন ধরনের?
গ. হাবিব দস্তার পাতটি তুলতে না পারার কারণ ব্যাখ্যা করো।
ঘ. করিমের ঘটনায় কোনো দ্রবণ তৈরি হয়েছে কিনা বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৩ : অন্তু প্রতিদিন ইফতারের পূর্বে শরবত তৈরি করে। শরবত তৈরিতে সে চিনি, পানি, ট্যাং ও লেবুর রস ব্যবহার করে।

ক. দ্রবণ কাকে বলে?
খ. উদ্দীপক থেকে দ্রব ও দ্রাবক পৃথক করে লেখো।
গ. অন্তু কীভাবে সম্পৃক্ত দ্রবণকে অসম্পৃক্ত এবং অসম্পৃক্ত দ্রবণকে সম্পৃক্ত দ্রবণে পরিণত করতে পারবে? ব্যাখ্যা করো।
ঘ. অন্তর প্রস্তুতকৃত পানীয়টি কী একটি দ্রবণ, নাকি মিশ্রণ? বিশ্লেষণপূর্বক মতামত দাও।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৪ : রহিমের পড়ার ঘরের তাপমাত্রা ২৫° সেলসিয়াস। তার গৃহশিক্ষক বাইরে থেকে তাকে পড়াতে আসলে সে গ্লাসে ২০০ গ্রাম পানি নিয়ে চিনির শরবত তৈরি করে শিক্ষককে খেতে দিল। অপর দিকে তার ছোট সমপরিমাণ পানি নিয়ে শরবত বানাতে গিয়ে চিনির পরিবর্তে ভুলক্রমে লবণ দিয়ে ফেলেছে।

ক. অসমসত্ত্ব মিশ্রণ কাকে বলে?
খ. জলীয় দ্রবণে ঘনমাত্রা নিরুপণে দ্রবণের বর্ণ কিরূপ ভূমিকা রাখে?
গ. রহিমের প্রস্তুতকৃত শরবতে চিনির সর্বোচ্চ দ্রবণীয়তা নির্ণয় করো।
ঘ. উদ্দীপকে উল্লিখিত দুইজনের প্রস্তুতকৃত শরবত কোন ধরনের দ্রবণ? দুইজনের ব্যবহৃত সর্বোচ্চ দ্রব্যের পরিমাণে কোনো তারতম্য আছে কি? গাণিতিক যুক্তিসহ বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৫ : স্কুল থেকে বাড়ি ফেরার পর ৬ষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র উৎসকে তার মা চিনির শরবত খেতে দিলেন। উৎস শরবত খাবার আগে ভাবল চিনির শরবতে দ্রাবক হলো পানি আর দ্রব হলো চিনি।

ক. পাতলা দ্রবণ কাকে বলে?
খ. তরল-তরল দ্রবণ কীভাবে তৈরি করতে হয় ব্যাখ্যা করো।
গ. উদ্দীপকের শরবতে তাপের প্রভাব বর্ণনা করো।
ঘ. পানিকে সার্বজনীন দ্রাবক বলা হয়— বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৬ : রনি বাজার থেকে লবণ ও চিনির প্যাকেট কিনে বাসায় আসার পথে লবণের প্যাকেটটি হাত থেকে মাটিতে পড়ে ফেটে গেল। সে মাটি থেকে লবণের প্যাকেটটি তুলে দেখতে পেল যে লবণের সাথে কিছু বালি মিশে গেছে। এরপর সে বাসায় এসে একটি গ্লাসে পানি ও চিনি এবং অপর গ্লাসে পানি ও বালিযুক্ত লবণ মিশিয়ে দ্রবন প্রস্তুত করল।

ক. চিনির শরবতে দ্রব কোনটি?
খ. দ্রব ও দ্রাবকের দুটি পার্থক্য লেখো।
গ. রনি লবণের দ্রবণ থেকে কীভাবে উপকরণগুলোকে পৃথক করবে?
ঘ. উদ্দীপকের দ্রবণ দুটির মধ্যে কোনটি সমস্বত্ব এবং কেন? ব্যাখ্যা করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৭ : রহিম মিয়া সমুদ্র উপকূলীয় অঞ্চলের একজন লবণ চাষী। তিনি তার একটি জমিতে লবণ চাষ উপযোগী করে লবণ উৎপাদন শুরু করলেন। লবণ উৎপাদন করায় অন্যান্য ফসলের তুলনায় তিনি অধিক লাভবান হলেন। ফলে তার অর্থনৈতিক অবস্থার অনেক উন্নতি হলো।

ক. কোন পদ্ধতিতে লবণ উৎপাদন করা হয়?
খ. বাষ্পীভবন ও বাষ্পীকরণের মধ্যে দুটি পার্থক্য লেখো।
গ. রহিম মিয়ার লবণ উৎপাদন প্রক্রিয়া ব্যাখ্যা করো।
ঘ. রহিম মিয়ার উৎপাদিত লবণে বালি মিশ্রিত থাকলে তা কীভাবে সম্পূর্ণ পরিষ্কার করা যাবে নিজের ভাষায় লেখো।

ANSWER SHEET

উপরে ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করে এই প্রশ্নের উত্তরগুলো ডাউনলোড করে নাও।

Rate this post