Class 6 - বিজ্ঞান
1 min read

ষষ্ঠ শ্রেণির বিজ্ঞান ২য় অধ্যায়: জীবজগৎ (PDF)

ষষ্ঠ শ্রেণির বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর : আমাদের চারদিকে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে বিভিন্ন বস্ত্র, এদের কারো জীবন আছে আবার কারো নেই। চেয়ার, টেবিল, হাঁড়ি-পাতিল, ইট, লোহা কেমন বস্ত? আবার আম, জাম, কাঁঠাল, শাপলা, ইলিশ, কই, রুই, গরু, হরিণ এরাই বা কি? যাদের মধ্যে জীবন নেই তারা ঘড়।

আবার যাদের মধ্যে জীবন আছে তারা জীব। প্রকৃতিতে বিভিন্ন রকমের জীব আছে। যেমন উদ্ভিল, মানুষ, গরু, ছাগল, মাছ, পাখি ইত্যাদি। পানির শেওলা বা ব্যাঙের ছাতাও জীব। এ্যামিবা, ব্যাকটেরিয়া অতিক্ষুদ্র জীব। এ সকল জীব নিয়ে জীবজগৎ গঠিত হয়েছে।

ষষ্ঠ শ্রেণির বিজ্ঞান ২য় অধ্যায় সৃজনশীল প্রশ্নের উত্তর

সৃজনশীল প্রশ্ন ১ : শ্রেণিকক্ষে শিক্ষক ফার্ন ও একটি ফুলসহ নয়নতারা গাছ দেখিয়ে বললেন, দুইটি গাছের মধ্যে একটির ফুল আছে এবং ফল হয় তবে এমন কিছু উদ্ভিদ আছে যাদের ফুল হয় কিন্তু ফল হয় না।

ক. সমাঙ্গদেহী উদ্ভিদ কী?
খ. সাইকাসকে নগ্নবীজী উদ্ভিদ বলার কারণ কী?
গ. শ্রেণিকক্ষে প্রদর্শিত সপুষ্পক উদ্ভিদটি যে রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত তার সনাক্তকারী বৈশিষ্ট্য লেখো ।
ঘ. জীবজগতের জীবগুলোর “৫ম রাজ্যটি ৪র্থ রাজ্যের উপর নির্ভরশীল”— উক্তিটির যথার্থতা নিরূপণ করো।

প্রশ্নের উত্তর

ক. যেসকল উদ্ভিদ দেহকে মূল, কাণ্ড ও পাতায় বিভক্ত করা যায় না সেসকল উদ্ভিদই হলো সমাঙ্গদেহী উদ্ভিদ।

খ. নগ্নবীজী উদ্ভিদের ফুলে ডিম্বাশয় থাকে না ফলে ডিম্বকগুলো নগ্ন থাকে। নিষেকের পর এ ডিম্বকগুলো বীজে পরিণত হয় এবং তা নগ্ন অবস্থায় থাকে। সাইকাস উদ্ভিদে নগ্নবীজী উদ্ভিদের এ বৈশিষ্ট্যগুলো দেখা যায় বলেই একে নগ্নবীজী উদ্ভিদ বলা হয়।

গ. শ্রেণিকক্ষে প্রদর্শিত সপুষ্পক উদ্ভিদটি হলো নয়নতারা। এটি প্লান্টি রাজ্যের অন্তর্ভুক্ত । নিচে প্লান্টি রাজ্যের সনাক্তকারী বৈশিষ্ট্য উল্লেখ করা হলো—

i. এ রাজ্যের উদ্ভিদ দেহে সবুজ বর্ণ কণিকা বা ক্লোরোফিল থাকে।
ii. ক্লোরোফিল থাকায় এ রাজ্যের উদ্ভিদ নিজের খাদ্য নিজে তৈরি করতে পারে। তাই এরা স্বভোজী।
iii. এদের কোষপ্রাচীর সেলুলোজ দ্বারা গঠিত।
iv. এদের কোষ সুগঠিত নিউক্লিয়াসযুক্ত ।
v. এরা এক বা বহুকোষী হতে পারে।

ঘ. জীবজগতের শ্রেণিকরণে ৪র্থ রাজ্যটি হলো প্লান্টি এবং ৫ম রাজ্যটি অ্যানিমেলিয়া। এদেরকে যথাক্রমে বলা হয় উদ্ভিদজগৎ এবং প্রাণিজগৎ। প্রাণিজগৎ উদ্ভিদ জগতের উপর সম্পূর্ণরূপে নির্ভরশীল। কারণ প্রাণীরা নিজের খাদ্য নিজে তৈরি করতে পারে না, তাই খাদ্যের জন্য উদ্ভিদের উপর নির্ভর করতে হয়।

প্রাণী তথা মানুষ তাদের বাসস্থান, বস্ত্র সবকিছুর জন্যই উদ্ভিদের উপর নির্ভরশীল। এছাড়া প্রাণিজগতের বেঁচে থাকার জন্য অক্সিজেন অত্যাবশ্যক যা উদ্ভিদ থেকেই প্রাণিরা পেয়ে থাকে। এ আলোচনা থেকে সহজেই বুঝা যায় যে, শ্রেণিকরণের ৫ম রাজ্যটি অর্থাৎ অ্যানিমেলিয়া, ৪র্থ রাজ্য প্লান্টির উপর নির্ভরশীল— উক্তিটি যথার্থ।

নিজে অনুশীলন করো

সৃজনশীল প্রশ্ন ২ : ঈদের ছুটি শেষে ষষ্ঠ শ্রেণির বিজ্ঞান ক্লাসে শিক্ষক ছাত্রছাত্রীদের বিদ্যালয়ের চারপাশে দেখা বিভিন্ন জীবের একটা তালিকা তৈরি করতে বললে শামীম ও নবনীতা দুটি তালিকা শিক্ষককে দেখালো৷ শামীমের তালিকা: কেঁচো, প্রজাপতি, ব্যাঙ, মুরগি, চড়ুই পাখি, ছাগল, পিঁপড়া। নবনীতার তালিকা: ব্যাঙ, মুরগি, কাক, ফার্ন, জাম গাছ, চড়ুই পাখি ৷

ক. অভিযোজন কাকে বলে?
খ. ‘লিচুগাছ’ কোন ধরনের উদ্ভিদ? ব্যাখ্যা করো।
গ. উদ্দীপকে উল্লিখিত শামীমের তালিকা থেকে জীবগুলোকে প্রধান বৈশিষ্ট্যের ওপর নির্ভর করে একটি ছকে সাজাও।
ঘ. শামীম ও নবনীতার তালিকা দুটির মধ্যে কোন পার্থক্য আছে কি? যুক্তিসহ বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৩ : রাইজোবিয়াম, ইউগ্লেনা, অ্যামিবা, পেনিসিলিয়াম, ফার্ণ, আম, কাঁঠাল, মাছ, পাখি, মানুষ এরা সবাই জাব, বোশষ্ট্য অনুসারে এরা বিভিন্ন রাজ্যে বিভক্ত।

ক. নগ্নবীজী উদ্ভিদ কাকে বলে?
খ. পাইনাসকে নগ্নবীজী উদ্ভিদ বলা হয় কেন?
গ. উদ্দীপকের জীবগুলোকে বিভিন্ন রাজ্যে বিভক্ত করো।
ঘ. কোন কোন বৈশিষ্ট্যের কারণে উদ্দীপকের জীবগুলো একটি অপরটি থেকে আলাদা ব্যাখ্যা করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৪ : তমা শিক্ষকের সঙ্গে বোটানিক্যাল গার্ডেনে বেড়াতে গিয়ে মস, ফার্ন, শৈবাল, ছত্রাক প্রভৃতি ক্ষুদ্র উদ্ভিদ দেখে অবাক হলো এবং লক্ষ করল এদের কোনোটিরই ফুল, ফল নেই। সে স্যারকে জিজ্ঞাসা করল এ সকল উদ্ভিদ কীভাবে বংশবৃদ্ধি করে। স্যার বললেন স্পোর বা রেণু উৎপাদনের মাধ্যমে।

ক. ফল কাকে বলে?
খ. আদি উদ্ভিদের ২টি বৈশিষ্ট্য লেখো।
গ. তমার দেখা উদ্ভিদগুলো কোনটি কোন জগতের ব্যাখ্যা করো ।
ঘ. তমার স্যার বংশবৃদ্ধির যে পদ্ধতির কথা বলেছে তা কতটুকু যথার্থ? বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৫ : রুই, কাতলা, ইলিশ, ব্যাঙ, বোয়াল, শিং, মাগুর, সাপ, টিকটিকি, কুমির, কাক, কোকিল, ময়না, টিয়া, ছাগল, ঘোড়া, ঈগল প্রভৃতি হচ্ছে আমাদের নিকট পরিবেশের মেরুদণ্ডী প্রাণী। এদের প্রত্যেকের দেহে মেরুদণ্ড বিদ্যমান।

ক. নগ্নবীজী উদ্ভিদ কাকে বলে?
খ. পক্ষীকুল শ্রেণিভুক্ত প্রাণীর দুটি বৈশিষ্ট্য লিখ।
গ. উপরোক্ত প্রাণীগুলোর মধ্যে কোনটি কোন শ্রেণিভূক্ত তা শনাক্ত করে লিখ।
ঘ. উক্ত প্রাণীগুলোকে শ্রেণিবিভক্ত করার কারণ বিশ্লেষণ করো।

সৃজনশীল প্রশ্ন ৬ : একবার বর্ষা মৌসুমে সবুজ গ্রামের বাড়িতে বেড়াতে গেল। বাড়ির আঙ্গিনায় ঘোরার সময় সবুজ সাদা ছাতার মতো কিছু বস্তু দেখতে পায়। সে কাছে গিয়ে লক্ষ করল এগুলোর দেহে সুতার জালের মতো মূল আছে।

ক. সমাঙ্গ উদ্ভিদ কী?
খ. ছত্রাক খাদ্য উৎপাদন করতে পারে না কেন?
গ. সবুজের দেখা বস্তুটির চিহ্নিত চিত্র অঙ্কন করো।
ঘ. সবুজের দেখা বস্তুটির খাদ্য হিসেবে গ্রহণযোগ্য কি-না এ সম্পর্কে তোমার মতামত বিশ্লেষণ করো।

ANSWER SHEET

উপরে ডাউনলোড বাটনে ক্লিক করে এই প্রশ্নের উত্তরগুলো ডাউনলোড করে নাও।

Rate this post