যে ফিল্ডের উপর ভিত্তি করে ডেটাবেজের ফিল্ডের তথ্যাবলি / রেকর্ড শনাক্ত , অনুসন্ধান , সম্পর্ক স্থাপন ইত্যাদি কাজ করা হয় তাকে কী বা কী – ফিল্ড (Key) বলা হয় । এক বা একাধিক অবস্থা বর্ণনা করার জন্য কী ফিল্ড ব্যবহার করা হয়। একটি উদাহরণ দেয়া যাকঃ
” কোন ক্লাশে ১০ জন ছাত্র আছে, আর তাদের সবারই আলাদা আলাদা রোল নম্বর আছে। একটি ডেটাবেজ এ ঐসব ছাত্রদের তথ্য দেয়া আছে। সেখান থেকে আলাদা আলাদা তথ্য খুজে বের করার জন্য তাদের রোল নম্বরের ভিত্তিতে খুজলেই হবে। তো ঐ ডেটাবেজে রোল নম্বরকে আমরা কী ফিল্ড বা কী বলতে পারি। “
কী ফিল্ডের সাহায্যে দুই বা ততোধিক ফাইলের মধ্যে সম্পর্ক স্থাপন বা রেকর্ড সনাক্ত ছাড়াও বিভিন্ন কাজ করা যায়। কী ফিল্ড প্রধানত তিন (৩) প্রকারঃ

  1. প্রাইমারি কী (Primary Key)
  2. কম্পোজিট প্রাইমারি কী (Composite Primary Key)
  3. ফরেন কী (Foreign Key)

প্রাইমারি কী (Primary Key)

যে ফিল্ড কোন একটি রেকর্ডকে অদ্বিতীয়ভাবে (Unique) সনাক্ত করে তাকে প্রাইমারি কী বলে। অর্থাৎ, ডেটা টেবিলের যে ফিল্ডের মানসমূহ দ্বারা একটি রেকর্ডকে অন্যান্য রেকর্ড থেকে সম্পূর্ণরূপে আলাদা করা যায় সেই ফিল্ডকে প্রাইমারি কী বলা হয়। এ জাতীয় ফিল্ডের  প্রতিটি ডেটা ভিন্ন হতে হয় অর্থাৎ কোন ডুপ্লিকেট ডেটা থাকতে পারে না। কোন ফাইলে সাধারণত এক বা একাধিক ফিল্ড থাকে । এই ফিল্ডগুলোর মধ্যে কমপক্ষে একটি ফিল্ড থাকবে যার ডেটাগুলো অদ্বিতীয়।
উদাহরনঃ নিচের টেবিলটিতে একটি ক্লাসের ছাত্রদের রোল, নাম, প্রাপ্ত নম্বর দেখানো হয়েছে। এখানে প্রতিটি ছাত্রের রোল অদ্বিতীয়। এই ফিল্ডের সাহায্যেই একাধিক ফাইলের মধ্যে সম্পর্ক স্থাপন সম্ভব। তাই এটিই (Roll No.) হলো প্রাইমারি কী (Primary Key)

কী ফিল্ড (Key) – প্রাইমারি কী, কম্পোজিট প্রাইমারি কী, ফরেন কী

কম্পোজিট প্রাইমারি কী (Composite Primary Key)

অনেক ক্ষেত্রে কোন টেবিলে সুনির্দিষ্ট কোন প্রাইমারি কী নাও থাকতে পারে । এক্ষেত্রে দু’টি ফিল্ডের সমন্বয়ে প্রাইমারি কী গঠন করা হয়ে থাকে যার সাহায্যে ঐ টেবিলের যে কোন রেকর্ডকে অদ্বিতীয়ভাবে (Unique) সনাক্ত করা যায় । তাদেরকে বলা হবে কম্পোজিট প্রাইমারি কী । এ প্রাইমারি কী – গুলোর একটিকে প্রাথমিক কী বিবেচনা করে বাকিগুলোকে বলা হবে অল্টারনেট কী ।
উদাহরনঃ নিচের টেবিলটিতে একটি স্কুলের ডেটাবেজে সব শ্রেণির ছাত্রের নাম, রোল, ক্লাসের নাম দেয়া আছে। এখান থেকে আমরা যদি কোনো একজন ছাত্রের তথ্য খুজতে চাই তবে কীভাবে করবো? এখানে তো, রোল নম্বর ধরে খুজতে গেলে বিভিন্ন ক্লাসে একই রোল নম্বর আছে, আবার নামও একই হতে পারে। তাই যদি আমরা প্রথমে রোল সিলেক্ট করি এবং পরে কোন ক্লাসে খুজবো সেটা সিলেক্ট করে নিই তবে সহজেই তথ্য বের করতে পারবো। তাই এই টেবিলটি তে Roll NO. এবং Class মিলে তৈরি হয়েছে কম্পোজিট প্রাইমারি কী ।

কী ফিল্ড (Key) – প্রাইমারি কী, কম্পোজিট প্রাইমারি কী, ফরেন কী

ফরেন কী (Foreign Key)

একটি টেবিলের প্রাইমারি কী অন্য ডেটা টেবিলে সাধারণ কী হিসাবে ব্যবহৃত হয় তাহলে প্রথম ফাইলের / টেবিলের প্রাইমারি কী – কে দ্বিতীয় ফাইলের / টেবিলের জন্য ফরেন কী বলা হয় ।
এটি সাধারনত হয় রিলেশনাল ডেটাবেজের ক্ষেত্রে । ফরেন কীর সাহায্যে একটি টেবিলের সাথে অন্য টেবিলের সম্পর্ক স্থাপন করা হয় ।
উদাহরনঃ নিচের প্রথম টেবিলটিতে প্রাইমারি কী হলো product ID এবং দ্বিতীয় টেবিলটিতে product ID একটি
সাধারন কী হিসেবে ব্যবহার করা হয়েছে । প্রথম টেবিল এ প্রোডাক্ট লিস্ট রয়েছে । আর ২য় টিতে প্রোডাক্ট বিক্রির তালিকা রয়েছে যা Product ID এর দ্বারা
রিলেশন করা যায়। দ্বিতীয় টেবিলে প্রাইমারি কী হলো invoice ID ।
সুতরাং, product ID হলো ফরেন কী ।

কী ফিল্ড (Key) – প্রাইমারি কী, কম্পোজিট প্রাইমারি কী, ফরেন কী

প্রাইমারি কী এবং ফরেন কী এর মধ্যে পার্থক্য (Difference between Primary Key and Foreign Key)

প্রাইমারি কী

  1. যে কী দিয়ে কোন নির্দিষ্ট এনটিটির কোন এনটিটি সেটকে সম্পূর্ণরূপে শনাক্ত করা যায় তাকে প্রাইমারি কী বলা হয় ।
  2. এ ফিল্ডের প্রত্যেকটি ভ্যালু Unique বা অদ্বিতীয় ।
  3. এটি NULL নয় ।
  4. ডেটা সনাক্তকরণে ব্যবহৃত হয় ।
  5. একটি টেবিলে একটিমাত্র প্রাইমারি কী থাকে ৷

ফরেন কী

  1. একটি টেবিলের প্রাইমারি কী অন্য ডেটা টেবিলে সাধারণ কী হিসেবে ব্যবহৃত হয় তাহলে এ কী – কে ফরেন কী বলা হয় ।
  2. এটি সর্বদা প্রাইমারি কী – কে রেফার করে ।
  3. এটি NULL ।
  4. দুটি টেবিলের মধ্যে রিলেশন তৈরি করতে ব্যবহৃত হয় ।
  5. একটি টেবিলে বিভিন্ন টেবিলের একাধিক ফরেন কী থাকতে পারে ।

ডেটাবেজ সম্পর্কিত এই আর্টিকেলে আমরা জানবো কী ফিল্ড (Key Field) সম্পর্কে –

  • কী ফিল্ড
  • প্রাইমারি কী
  • কম্পোজিট প্রাইমারি কী
  • ফরেন কী
  • প্রাইমারি কী এবং ফরেন কী এর মধ্যে পার্থক্য

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x