সচিবালয় হলো বাংলাদেশের প্রশাসনিক ব্যবস্থার কেন্দ্রবিন্দু। প্রশাসনিক সংগঠনের পদসোপানে সচিবালয়ের স্থান সর্বোচ্চ। সচিবালয় হলো সকল ক্ষমতার আধার।

সচিবালয়ের গঠন (Composition of Secretariat)

সচিবালয় কয়েকটি মন্ত্রণালয় ও বিভাগের সমন্বয়ে গঠিত। সচিবালয় হচ্ছে কোনো বৃহত্তর প্রতিষ্ঠানের প্রশাসনিক দপ্তর। সচিবালয়কে কেন্দ্র করে বাংলাদেশের প্রশাসনিক ব্যবস্থা আবর্তিত হয়। সচিব হলেন সচিবালয়ের প্রধান প্রশাসনিক কর্মকর্তা। সচিবকে বিভিন্ন কাজে অতিরিক্ত সচিব, যুগ্ম সচিব, উপসচিবসহ বহুসংখ্যক কর্মকর্তা-কর্মচারী সহযোগিতা করে থাকেন। সচিবালয় বাংলাদেশের বিভাগীয় ও জেলা প্রশাসনের সাথে সরাসরি সংযুক্ত। সচিবালয়ে গৃহীত নীতিমালা বাস্তবায়নের জন্য বিভাগ, জেলা, উপজেলা পর্যায়ের অফিস, বিভিন্ন বিভাগ ও দপ্তরে প্রেরণ করা হয়।

সচিবালয় মন্ত্রণালয়সমূহের সমন্বিত অফিস। মন্ত্রণালয় সচিবালয়ের একটি সাংগঠনিক ও প্রশাসনিক শাখা। সচিবালয়ে একাধিক বিভাগ থাকলেও এক একটি বিভাগের ভার অর্পিত হয় একজন অতিরিক্ত সচিব বা সচিবের ওপর। প্রতিটি মন্ত্রণালয়ে একাধিক শাখা থাকে। উপসচিব শাখার দায়িত্বে থাকেন। এরপর রয়েছে সেকশন যার দায়িত্বে থাকেন সহকারী সচিবগণ। মন্ত্রণালয়ের কাজের পরিমাণের ওপর নির্ভর করে কর্মকর্তাদের সংখ্যা নির্ধারিত হয়।

 

সচিবালয়ের কার্যাবলি (Functions of Secretariat)

১। নীতি নির্ধারণ : সরকারের যাবতীয় সিদ্ধান্ত সচিবালয়ে গৃহীত হয়। এক্ষেত্রে সচিব হলেন মন্ত্রীর উপদেষ্টা ও পরামর্শ দাতা। সচিব মন্ত্রণালয়ের সঠিক নীতি নির্ধারণের লক্ষ্যে মন্ত্রীকে প্রয়োজনীয় সকল তথ্য ও উপাত্ত সরবরাহ করেন। নীতি নির্ধারণ ও সিদ্ধান্ত গ্রহণে মন্ত্রী সচিবের মতামতকে গুরুত্ব প্রদান করেন।

২। প্রণীত নীতিমালার বাস্তবায়ন : প্রণীত নীতিমালা বাস্তবায়নে সচিবালয় থেকে যাবতীয় নির্দেশনা ক্রমান্বয়ে বিভাগ, জেলা, উপজেলা পর্যায়ে স্থানীয় প্রশাসনিক ইউনিটসমূহে প্রেরণ করা হয়।

৩। হিসাব নিকাশ পরীক্ষা : সচিবালয় মন্ত্রণালয়সমূহের হিসাব-নিকাশসমূহ পরীক্ষা করে থাকে। সচিব মন্ত্রণালয়ের মুখ্য হিসাব রক্ষণ কর্মকর্তা। মন্ত্রণালয় বরাদ্দকৃত অর্থ বিধিমোতাবেক ব্যয় করা হয়েছে কিনা তার হিসাব নিকাশ তিনি পরীক্ষা করেন। মন্ত্রণালয়ের আর্থিক বিবরণীর জন্য তাকে জাতীয় সংসদের হিসাব কমিটিতে জবাবদিহি করতে হয়।

৪। সরকারি নীতি বাস্তবায়নে সমন্বয় সাধন : সরকারি নীতির বাস্তবায়ন নির্দিষ্ট সময়ে যথাযথভাবে বাস্তবায়িত হচ্ছে কিনা, সচিবালয় সে বিষয়ে সমন্বয় সাধন করে। সচিবালয়ের প্রশাসনিক প্রধান সচিব। এক্ষেত্রে বিভিন্ন নীতি বাস্তবায়নের সমস্যা নির্ধারণ, বিশ্লেষণ, মূল্যায়ন ও সমন্বয়ের দায়িত্ব পালন করেন।

৫। মন্ত্রীকে তথ্য-উপাত্ত সরবরাহ : সচিবালয় সংশ্লিষ্ট মন্ত্রীকে মন্ত্রণালয়ের বিভিন্ন তথ্য, উপাত্ত প্রদান করে সংসদে বিভিন্ন প্রশ্নোত্তর প্রদান, বক্তব্য প্রস্তুত করে সহযোগিতা করে থাকে।

৬। সংশ্লিষ্ট বিভাগ, দপ্তরের কাজের সমন্বয় : সচিবালয়ের প্রত্যেক মন্ত্রণালয়ের বেশকিছু বিভাগ, সংযুক্ত অফিস-দপ্তর রয়েছে। এসব বিভাগ, দপ্তর মন্ত্রণালয়ের কাজের সাথে জড়িত। সচিবালয় এসব বিভাগের অফিসের সাথে যোগাযোগ রক্ষা করে, প্রয়োজনীয় নির্দেশনা প্রদান এবং তথ্য আদান-প্রদান করে থাকে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x