‘চাহিদার স্থিতিস্থাপকতা’ বলতে দ্রব্যমূল্যের হ্রাস-বৃদ্ধির সাথে চাহিদার পরিমাণের হ্রাস-বৃদ্ধির সম্পর্ককে বুঝায়। কোনো দ্রব্যের মূল্য কমলে তার চাহিদা বাড়ে এবং মূল্য বাড়লে চাহিদা কমে। মূল্য হ্রাস-বৃদ্ধির সাথে চাহিদার বৃদ্ধি বা হ্রাসের পরিমাণ সবক্ষেত্রে সমান হয় না। কোনো দ্রব্যের চাহিদার পরিবর্তন বেশি হয়, আবার কোনো দ্রব্যের চাহিদার পরিবর্তন কম হয়। মূল্য পরিবর্তনের ফলে যে হারে চাহিদার পরিবর্তন হয় তাকে চাহিদার স্থিতিস্থাপকতা (Elasticity of Demand) বলা হয়।

অধ্যাপক লিপসির ভাষায় বলা যায়, “কোনো দ্রব্যের মূল্য পরিবর্তনের ফলে চাহিদা যে পরিমাণে সাড়া দেয় তাকেই চাহিদার স্থিতিস্থাপকতা বলে।” (Lipsey– “Elasticity of demand is the measure of the responsiveness of the quantity demanded to changes in price.”)

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x