পড়াশোনা
1 min read

কারেন্ট (Current) কাকে বলে? কত প্রকার ও কি কি? What is called Current ?

কারেন্ট কাকে বলে? (What is called Current in Bengali?)
কোন পরিবাহীর যেকোনো প্রস্থচ্ছেদের মধ্য দিয়ে একক সময়ে যে পরিমাণ চার্জ প্রবাহিত হয় তাকে কারেন্ট (Current) বলে।

অন্যভাবে বলা যায় পরিবাহীর ভিতর দিয়ে ইলেকট্রন প্রবাহের হারকে কারেন্ট বলে।

কারেন্ট এর প্রকারভেদ (ট্যপেস of Current)
কারেন্ট দুই প্রকার। যথাঃ

১. অল্টারনেটিং কারেন্ট বা এসি কারেন্ট (Alternating Current or AC Current) এবং
২. ডাইরেক্ট কারেন্ট বা ডিসি কারেন্ট (Direct Current or DC Current)।

অল্টারনেটিং কারেন্ট (Alternating Current)
যে কারেন্ট পরিবাহীর ভেতর দিয়ে চলার সময় মান ও দিক উভয়ই পরিবর্তিত হয়, তাকে অল্টারনেটিং কারেন্ট (Alternating current) বলে। একে সংক্ষেপে AC বলে।

অল্টারনেটিং কারেন্টের বৈশিষ্ট্য (Characteristic of alternating current)
অল্টারনেটিং কারেন্টের বৈশিষ্ট্যসমূহ নিচে দেয়া হলোঃ

(১) এর কোনো পজেটিভ ও নেগেটিভ তার নেই;
(২) এটির সাইকেল আছে;
(৩) এর ফেজ পার্থক্য আছে।
(৪) অল্টারনেটিং কারেন্ট সাইন তরঙ্গ উৎপন্ন করে থাকে;
(৫) এর মান ও ঠিক সময়ের সাথে সাথে পরিবর্তিত হয়।

অল্টারনেটিং কারেন্টের সুবিধা ও অসুবিধা (Advantages and Disadvantages of Alternating Current)
অল্টারনেটিং কারেন্টের অসুবিধার চেয়ে সুবিধা বেশি। নিচে অল্টারনেটিং কারেন্টের সুবিধা-অসুবিধা আলোচনা করা হলোঃ

  • সুবিধা (Advantages) :•অল্টারনেটিং কারেন্ট উৎপাদনে ডাইরেক্ট কারেন্ট উৎপাদনের চেয়ে কম খরচ লাগে।
  •  অল্টারনেটিং কারেন্ট চালিত মেশিন সরল প্রকৃতির এবং স্থায়ী। এগুলোর ব্যবস্থাপনা করা সহজ।
  • ট্রান্সফরমার ব্যবহার করে কম বেশি সব মানের ভোল্টেজ পাওয়া সম্ভব যা ডিসি এর বেলায় সম্ভব নয়।
  • এসি কারেন্টের মান কোনো শক্তি ব্যয় ছাড়াই ইন্ডাক্টর বা ক্যাপাসিটর ব্যবহার করে কমানো বাড়ানো যায়।
  •  এসি কে খুব সহজেই রেক্টিফায়ার ব্যবহার করে ডিসিতে রূপান্তরিত করা যায়।
  •  এসি পাওয়ার বন্টনের সময় ট্রান্সফরমার ব্যবহার করে ভোল্টেজের মান বাড়ানো হয় এবং কারেন্টের মান কমানো হয়। এতে শক্তির অপচয় কম হয়।

অসুবিধা (Disadvantages) :

  •  এসি এর পিক ভোল্টেজ বেশি হওয়ায় ব্যবহার করা বিপজ্জনক এবং ইনসুলেশন করতে হয়।
  •  যখন কেউ এসি পাওয়ার লাইনে শক খায় তখন পাওয়ার লাইন তাকে আকর্ষণ করে। কিন্তু ডিসি এর ক্ষেত্রে বিকর্ষণ করে।
  •  এসি বা অল্টারনেটিং কারেন্ট সরবরাহ করার জন্য চিকন চিকন অনেকগুলো তার একসাথে ব্যবহার করতে হয়। কিন্তু ডিসি এর ক্ষেত্রে একটি সলিড তার ব্যবহার করলেই চলে।
  • বর্তমানে অধিকাংশ ইলেক্ট্রনিক যন্ত্রপাতি ডিসি দিয়ে চলে। তাই এসিকে ডিসিতে রূপান্তরিত করতে হয়।

ডাইরেক্ট কারেন্ট বা ডিসি কারেন্ট (Direct Current or DC Current)
যে কারেন্ট সব সময় একই দিকে প্রবাহিত হয় সেই কারেন্টকে ডাইরেক্ট কারেন্ট বলে।

অল্টারনেটিং কারেন্ট (AC) ও ডাইরেক্ট কারেন্ট (DC) এর মধ্যে পার্থক্য।
অল্টারনেটিং কারেন্ট (AC) ও ডাইরেক্ট কারেন্ট (DC) এর মধ্যে পার্থক্য নিম্নে দেওয়া হলো—

অল্টারনেটিং কারেন্ট (Alternating Current)

  • যে কারেন্টের মান ও দিক সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে পরিবর্তিত হয়ে সার্কিটে প্রবাহিত করানো যায় তাকে অল্টারনেটিং কারেন্ট বলে।
  • এসিতে সাইকেল বিদ্যমান।
  • এতে ট্রান্সফরমার ব্যবহার করা যায়।
  • এসিতে ফেজ পার্থক্য থাকে।

ডাইরেক্ট কারেন্ট (Direct Current)

  • যে কারেন্টের মান ও দিক সময়ের পরিবর্তনের সাথে সাথে অপরিবর্তিত রেখে সার্কিটে প্রবাহিত করানো যায় তাকে ডাইরেক্ট কারেন্ট বলে।
  • ডিসিতে সাইকেল থাকে না।
  • এতে ট্রান্সফরমার ব্যবহার করা যায় না ৷
  •  ডিসিতে ফেজ পার্থক্য থাকে না ।
5/5 - (23 votes)