পৃথিবীর সমস্ত জলচর, স্থলচর ও খেচর প্রাণীদের মধ্যে জিনগত, প্রজাতিগত ও বাস্তুসংস্থানগত যে ভিন্নতা দেখা যায়, তাকেই প্রাণিবৈচিত্র্য বলে।

বিভিন্ন প্রকার সিলোমেট এর নাম উদাহরণসহ লেখো।

সিলোমের উপস্থিতি, অনুপস্থিতি ও প্রকৃতির উপর ভিত্তি করে প্রাণীদের তিন ভাগে ভাগ করা হয়। যথা:
i. সিলোমবিহীন প্রাণী : এ ধরনের প্রাণীদের দেহে কোনো সিলোম থাকে না। যেমন: Fasciola hepetica.
ii. অপ্রকৃত সিলোমযুক্ত প্রাণী : এসব প্রাণীর দেহগহ্বর পেরিটোনিয়াম পর্দা দ্বারা আবৃত থাকে না বরং দেহগহ্বরের চারপাশ পেশিস্তর দ্বারা ঘেরা থাকে। যেমন: Ascaris lumbricoides.
iii. প্রকৃত সিলোমযুক্ত প্রাণী : এসব প্রাণীর দেহ প্রকৃত দেহগহ্বর অর্থাৎ ভ্ৰণীয় মেসোডার্ম উদ্ভূত পেরিটোনিয়াম পর্দা দ্বারা আবৃত থাকে। যেমন: Homo sapiens.

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x