General Knowledgeতথ্য প্রযুক্তি
1 min read

নাসার জেমস ওয়েব টেলিস্কোপ কিভাবে ৪.৬ বিলিয়ন বছর আগের ছবি তুলেছে?

Updated On :

how james webb telescope can see past

অনেকের মনে প্রশ্ন জেগেছে যে, আজকে প্রকাশিত এই ঐতিহাসিক ছবিটি ৪.৬ বিলিয়ন অর্থাৎ ৪৬০ কোটি বছরের আগের হলো কিভাবে?

এটা সহজে বুঝতে হলে আমাদের আলোক সময় সম্পর্কে জানতে হবে। আমরা জানি মহাবিশ্বের এই বিশাল থেকে বিশালতর দূরত্য গুলো আলোকবর্ষ দিয়ে প্রকাশ করা হয়। এখন বলি আলোক সময়টা কি? সূর্য থেকে পৃথিবীতে আলো আসতে সময় নেয় ৮ মিনিট ১৯ সেকেন্ড। আলোক সময়ের হিসেবে পৃথিবী থেকে সূর্যের দূরত্ব ৮.৩১ মিনিট আলোক সময়। আলোর গতির সাথে এই দূরত্ব হিসেব করা হয়। এখানে একটা কথা বলে রাখি পৃথিবী থেকে এই মুহুর্তে আমরা সূর্যের যে অবস্থা দেখছি তা সুর্যে ঘটে গেছে ৮ মিনিট ১৯ সেকেন্ড আগে। সূর্যে ঘটে যাওয়া ঘটনা পৃথিবীতে আসতে সময় নেয়৮ মিনিট ১৯ সেকেন্ড। মুলতো আমরা অতীত দেখতে পাই।

এখন আসি আলোক বর্ষে, আলো এক বছর সময়ে যতটুকু পথ অতিক্রম করতে পারে তাকে বলা হয় ১ আলোক বর্ষ। ১ আলোক বর্ষ = ৯.৪৬১×১০^১২ কিলোমিটার। এই বিশাল মহাবিশ্বের দূরত্ব যদি আমরা স্বাধারণ কি.মি. প্রকাশ করতে যায় তাহলে অনেক ভেজাল পোহাতে হবে।

আরো পড়ুনঃ জেমস ওয়েব স্পেস টেলিস্কোপের প্রথম ছবি। যা ৪.৬বিলিয়ন বছর আগের ছবি

আমাদের সৌর জগতের সবছেয়ে কাছে নক্ষত্র Proxima Centauri। পৃথিবী থেকে এর দূরত্ব ৪.২৪ আলোক বর্ষ। অর্থাৎ এই তারার আলো পৃথিবীতে আসতে সময় নে ৪বছর ৩মাস প্রায়। আমরা মুলত পৃথিবী থেকে যখন এই লক্ষত্রকে দেখতে পাই সেটা মূলত তার আরো ৪ বছর ৩ মাস আগের অবস্থা। সে হিসেবে মহাকাশের সকল কিছুরই অতিত দেখতে পাই আমরা।

জেমস ওয়েভ স্পেস টেলিস্কোপের যে ছবিটা প্রকাশ পেয়েছে তার দূরত্ব পৃথিবী থেকে ৪.৬ বিলিয়ন আলোক বর্ষ দূরে। অর্থাৎ এই ছবিতে আমরা গ্যালাক্সি গুলোর যে অবস্থান দেখছি তা মুলত ৪.৬ বিলিয়ন বছরের পূরনো।

একটা মজার হাইপোথিসিস আপনাদের বলি।
ধরুন ছবি তে প্রকাশিত কোন গ্যালাক্সির কোন একটি গ্রহ থেকে এই মুহুর্তে আমাদের চেয়েও উন্নত মস্তিষ্কের কোন প্রাণী আছে। তারা যদি আরো উন্নত কোন টেলিস্কোপ দিয়ে আমাদের পৃথিবীর তে নজর দেয় তাহলে তারা এই মুহুর্তে পৃথিবীতে ডাইনোসরের বিচরণ বা তার’ও পূর্বের অবস্থান দেখতে পাবে।

Rate this post