পড়াশোনা
1 min read

ইলেকট্রনিক্স বিষয়ক প্রশ্ন ও উত্তর (পর্ব-২)

Updated On :

প্রশ্ন-১। ইলেকট্রিসিটি শব্দটি কীভাবে এসেছে?
উত্তরঃ খ্রিস্টের জন্মের ৬০০ বছর আগে থেকেই গ্রীকদের জানা ছিল যে, অ্যাম্বারকে রেশমী কাপড় দিয়ে ঘষলে অ্যাম্বার ছোট ছোট বস্তুকণা (যেমন, কাঠের গুড়া) কে আকর্ষণ করার গুণ অর্জন করে। একইভাবে চিরুণী দিয়ে শুষ্ক চুল আঁচড়িয়ে ছোট ছোট কাগজের টুকরার কাছে নিলে টুকরাগুলো আকৃষ্ট হয়। এ গুণ শুধু অ্যাম্বার বা চিরুনীতে উৎপন্ন হয় তা নয়, অনেক বস্তুতেই হয়। ঘষার ফলে অ্যাম্বার বা চিরুনীতে এক ধরনের অদৃশ্য শক্তির সঞ্চার হয়। এ অদৃশ্য শক্তিকেই তড়িৎ বলে। গ্রীক ভাষায় অ্যাম্বারকে ইলেকট্রন বলে। এই ইলেকট্রন থেকে ইলেকট্রিসিটি শব্দের উৎপত্তি হয়েছে।

প্রশ্ন-২। ফ্রিকুয়েন্সি মিটার কাকে বলে?
উত্তরঃ যে যন্ত্রের সাহায্যে এসি সার্কিটের বিদ্যুৎ তরঙ্গ পরিমাপ করা যায়, তাকে ফ্রিকুয়েন্সি মিটার বলে।

প্রশ্ন-৩। ফ্লেক্সিবল তারের ব্যবহার লিখ।
উত্তরঃ ফ্লেক্সিবল তারের ব্যবহার নিচে তুলে ধরা হলো–
১. বৈদ্যুতিক ইস্ত্রি,
২. টেবিল ফ্যান,
৩. প্যাডেস্টাল ফ্যান ইত্যাদিতে ব্যবহার করা হয়।

প্রশ্ন-৫। সিরিজ সার্কিট কাকে বলে?
উত্তরঃ যে সার্কিটে দুই বা ততোধিক রেজিস্ট্যান্স একটার পর একটা সংযোগ করা হয় এবং কারেন্ট চলাচলের একটিমাত্র পথ থাকে, তাকে সিরিজ সার্কিট বলে।

প্রশ্ন-৬। ওয়াট মিটার কাকে বলে?
উত্তরঃ যে যন্ত্রের সাহায্যে পাওয়ার পরিমাপ করা যায়, তাকে ওয়াট মিটার বলে। এর সাহায্যে পাওয়ার ওয়াট এককে পরিমাপ করা যায়।

প্রশ্ন-৭। ক্যাপাসিটরের প্যারালাল সংযোগ কাকে বলে?
উত্তরঃ যখন একাধিক ক্যাপাসিটরের প্রথম প্রান্তগুলো একটি নির্দিষ্ট বিন্দুতে এবং ক্যাপাসিটরের দ্বিতীয় প্রান্তগুলো অপর এক নির্দিষ্ট বিন্দুতে সংযোগ করে যে গ্রুপিং করা হয়, তাকে ক্যাপাসিটরের প্যারালাল সংযোগ বলে।

প্রশ্ন-৮। সোল্ডারিং বা ঝালাই কাকে বলে?
উত্তরঃ তার বা ক্যাবল কন্ডাকটরের মধ্যে যান্ত্রিকভাবে সংযােগ দেয়ার পর সােল্ডার ও রজনের মাধ্যমে সংযােগস্থল মজবুত, জয়েন্টের স্থায়িত্ব বৃদ্ধি ও কারেন্ট বাধামুক্ত করতে শংকর ধাতুর যে প্রলেপ দেয়া হয়, তাকে সোল্ডারিং বা ঝালাই বলে।

প্রশ্ন-১০। PVC ক্যাবলের ব্যবহার লিখ।
উত্তরঃ PVC ক্যাবলের ব্যবহার নিম্নে দেওয়া হলোঃ

  • এই ক্যাবল বাড়িঘর, কলকারখানায় ওয়্যারিং-এর কাজে ব্যবহৃত হয়।
  • যে সকল স্থানে ক্যাবলের উপর ঘষা বা আঘাত লাগার সম্ভাবনা থাকে, সে সকল স্থানে এই তার ব্যবহার করা হয়।
  • আর্দ্রতাপূর্ণ স্থানে এবং যে সকল স্থানে রাসায়নিক দ্রব্যাদির প্রভাব আছে, সে সকল স্থানে এই ক্যাবল ব্যবহার হয়।

প্রশ্ন-১১। n-টাইপ অর্ধপরিবাহী কাকে বলে?
উত্তরঃ অর্ধপরিবাহী পদার্থে পঞ্চযোজী মৌল ভেজাল বা অপদ্রব্য হিসেবে মেশালে তাদের মধ্যে ঋণাত্মক আধান বাহক ইলেকট্রন গরিষ্ঠ আধান বাহক হিসেবে কাজ করে। এধরনের অর্ধপরিবাহীকে n-টাইপ অর্ধপরিবাহী বলে।

প্রশ্ন-১২। ট্রায়োড কাকে বলে?
উত্তরঃ তিন ইলেকট্রোড বিশিষ্ট ভ্যাকুয়াম টিউবকে ট্রায়োড বলে।

প্রশ্ন-১৩। প্রাইমারি ট্রান্সমিশন কাকে বলে?
উত্তরঃ জেনারেটিং স্টেশনের ট্রান্সফরমার থেকে সাব-স্টেশনের ট্রান্সফরমার পর্যন্ত বিদ্যুৎ শক্তি পৌঁছানাের ব্যবস্থাকে প্রাইমারি ট্রান্সমিশন বলে।

প্রশ্ন-১৪। বাইপোলার ট্রানজিস্টর কাকে বলে?
উত্তরঃ যে সমস্ত ট্রানজিস্টর এ হোল ও ইলেকট্রন এই দুই ধরনের বাহকের কারণে বিদ্যুৎ প্রবাহের সৃষ্টি হয় ঐ সমস্ত ট্রানজিস্টরকে বাইপোলার ট্রানজিস্টর বলে।

প্রশ্ন-১৫। ট্রানজিস্টর অ্যামপ্লিফায়ার এর ব্যবহার লিখ।
উত্তরঃ ট্রানজিস্টর অ্যামপ্লিফায়ার এর ব্যবহার নিম্নরূপঃ
১. ইন্টারকমে ব্যবহার করা হয়।
২. রেডিওতে ব্যবহার করা হয়।
৩. মাইকে ব্যবহার করা হয়।
৪. অ্যালার্ম বর্তনীতে ব্যবহার করা হয়।

প্রশ্ন-১৭। কালেক্টর বা সংগ্রাহক কাকে বলে?
উত্তরঃ ট্রানজিস্টরের অন্য পাশের অংশ যা আধান সংগ্রহ করে তাকে কালেক্টর বা সংগ্রাহক বলে। সংগ্রাহককে সর্বদা বিমুখী ঝোঁক প্রয়ােগ করা হয়।

প্রশ্ন-১৮। এসডিবি এর সাইজ কিসের উপর নির্ভর করে?
উত্তরঃ এসডিবি এর সাইজ লোড সার্কিট, লোডের পরিমাণ, ফুল লোড কারেন্ট ও নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থার উপর নির্ভর করে।

প্রশ্ন-১৯। রেজিস্ট্যান্সে পাওয়ার অপচয়–কথাটির অর্থ কি?
উত্তরঃ যখন কোনো বৈদ্যুতিক বর্তনীর মধ্য দিয়ে কারেন্ট প্রবাহিত হয়, তখন বর্তনীতে রেজিস্ট্যান্সের জন্য তাপ উৎপন্ন হয়। ফলে বর্তনীতে রেজিস্ট্যান্সের জন্য পাওয়ার অপচয় (I2R) হয়। এই অপচয়কে রেজিস্ট্যান্সের পাওয়ার অপচয় বলে।

প্রশ্ন-২০। ইনক্যানডিসেন্ট ল্যাম্প সাধারণত কত ওয়াটের হয়ে থাকে?
উত্তরঃ ইনক্যানডিসেন্ট ল্যাম্প সাধারণত ৫, ৬০, ১০০ এবং ২০০ ওয়াটের হয়ে থাকে।

Rate this post