পড়াশোনা
1 min read

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক প্রশ্ন ও উত্তর (পর্ব-১৩)

প্রশ্ন-১। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির উপাদান কি কি?
উত্তরঃ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির উপাদানসমূহ হলো–
১. হার্ডওয়্যার ও কম্পিউটারসহ সকল সংশ্লিষ্ট উপাদান।
২. সফটওয়্যার ও প্রোগ্রামসমূহ।
৩. হিউম্যানওয়্যার বা কম্পিউটার ব্যবহারকারীসহ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।
৪. ডেটা বা ইনফরমেশন।
৫. নেটওয়ার্ক মিডিয়া বা যোগাযোগের মাধ্যম।

প্রশ্ন-২। ০, ১ দিয়ে লেখা ভাষা ব্যাখ্যা কর।
উত্তরঃ যে ভাষায় শুধু ০ ও ১ ব্যবহার করে প্রোগ্রাম লেখা হয় তাকে মেশিন ভাষা বলে। অর্থাৎ কম্পিউটারের সরাসরি বোধগম্য ভাষাকে মেশিন ভাষা বলে।
মেশিন ভাষায় ০ ও ১ এই দুই বাইনারি অঙ্ক ব্যবহার করে সবকিছু লেখা হয়। কম্পিউটার একমাত্র মেশিন ভাষাই বুঝতে পারে। অর্থাৎ ০ ও ১ দিয়ে লেখা ভাষা হচ্ছে মেশিন ভাষা।

প্রশ্ন-৩। SR ফ্লিপ-ফ্লপ কি?
উত্তরঃ SR ফ্লিপ-ফ্লপ হলো সরলতম ফ্লিপ ফ্লপ। SR এর পূর্ণরূপ হলো- Set Reset। SR ফ্লিপ-ফ্লপে আউটপুট অবস্থাকে ১ বা HIGH করাকে SET এবং ০ বা LOW করাকে RESET বলে। দুইটি NAND গেইট অথবা NOR গেইট যুক্ত করে একটির ইনপুট অপরটির আউটপুটের সাথে সংযুক্ত করে SR ফ্লিপ-ফ্লপ গঠিত হয়।

প্রশ্ন-৪। V-32 কি?
উত্তরঃ V-32 একটি সাধারণ মডেম যা তথ্যকে এক কম্পিউটার থেকে অন্য কম্পিউটারে টেলিফোন নেটওয়ার্ক ব্যবস্থার মাধ্যমে পৌঁছে দেয়।

প্রশ্ন-৫। ডিজিটাল ইলেকট্রনিক্স কি?
উত্তরঃ ডিজিটাল ইলেকট্রনিক্স হচ্ছে ইলেকট্রনিক্স প্রযুক্তি বিদ্যার এমন একটি শাখা যেখানে ডিজিটাল সিগনাল দ্বারা পরিচালিত বিভিন্ন সার্কিট ও যন্ত্রপাতির ডিজাইন, গঠন, কার্যপ্রণালি, ব্যবহার, সুবিধা-অসুবিধা ইত্যাদি নানাবিধ বিষয় নিয়ে বিশ্লেষণ ও আলোচনা করা হয়।

প্রশ্ন-৬। বুলিয়ান উপপাদ্য কাকে বলে?
উত্তরঃ যেসব নিয়ম-কানুনের ওপর ভিত্তি করে বুলিয়ান অ্যালজেবরা সমাধান করা হয়, তাকে বুলিয়ান উপপাদ্য বলে।

প্রশ্ন-৭। ভার্চুয়াল রিয়েলিটি (Virtual Reality) কাকে বলে?
উত্তরঃ প্রকৃত অর্থে বাস্তব নয় কিন্তু বাস্তবের চেতনা উদ্রেককারী, বিজ্ঞাননির্ভর কল্পনাকে ভার্চুয়াল রিয়েলিটি বলে। এটি একটি সফটওয়্যার নির্মিত কাল্পনিক পরিবেশ, যা ব্যবহারকারীর কাছে বাস্তব জগৎ হিসেবে বিবেচিত হয়।

প্রশ্ন-৮। ডেটা কমিউনিকেশন মাধ্যম কাকে বলে?
উত্তরঃ প্রেরক ও প্রাপক স্টেশনের মধ্যে ডেটা আদান-প্রদানের জন্য যে সমস্ত মাধ্যম ব্যবহার করা যায় তাকে ডেটা কমিউনিকেশন মাধ্যম বলে। যেমনঃ ১. ক্যাবল বা তার; ২. সাধারণ টেলিফোন লাইন; ৩. বেতারতরঙ্গ; ৪. মাইক্রোওয়েভ ;৫. ভূ-উপগ্রহ ব্যবস্থা; ৬. ইনফ্রারেড ইত্যাদি।

প্রশ্ন-৯। ডকুমেন্ট প্রসেসিং কাকে বলে?
উত্তরঃ কম্পিউটারের মাধমে কোন ডকুমেন্ট তৈরি করার জন্য টাইপ করা, বানান শুদ্ধ করা, ফর্মেটিং করা, এডিটিং করা, প্রয়োজন অনুযায়ি বিভিন্ন অবজেক্ট সন্নিবেশিত করা, সংরক্ষণ করা, মুদ্রণ করা ইত্যাদির সমন্বিত প্রক্রিয়াকে ডকুমেন্ট প্রসেসিং বলে।

প্রশ্ন-১০। VPN কি? এটা কি কাজে লাগে?
উত্তরঃ VPN এক ধরনের নেটওয়ার্ক, যার মাধ্যমে আপনি আপনার IP Address, Location গোপন রেখে ইন্টারনেট ব্রাউজ করতে পারবেন। এর সাহায্যে আপনি আপনার লোকেশন বদলাতে পারবেন। মনে করুন, আমাদের দেশে Youtube বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ভারতে চালু আছে ,সেক্ষেত্রে আপনি সহজেই VPN এর মাধ্যমে লোকেশন ভারত করে Youtube দেখতে পারবেন।

প্রশ্ন-১১। RDBMS কি?
উত্তরঃ RDBMS-এর পূর্ণরূপ হলো- Relational Database Management system। RDBMS হচ্ছে পরস্পর সম্পর্কযুক্ত তথ্য ও সেই তথ্যগুলো পর্যালোচনা করার জন্য প্রয়োজনীয় জটিল প্রোগ্রামের সমষ্টি। কয়েকটি RDBMS সফটওয়্যার হলো- MS Access, ওরাকল, মাইএসকিউএল ইত্যাদি।

প্রশ্ন-১২। সেল কাকে বলে?
উত্তরঃ ডেটাবেজ প্রোগ্রামে, কোনো সারণী বা টেবিলের রো (Row) এবং কলাম (Column) এর সমন্বয়ে যে সব ছোট ছোট ঘর তৈরি হয় তাকে সেল বলে।

প্রশ্ন-১৩। কর্পোরেট ডেটাবেজ কাকে বলে?
উত্তরঃ কোন নির্দিষ্ট প্রতিষ্ঠান বা বিশেষ ধরনের প্রতিষ্ঠান যে বিশেষ পদ্ধতিতে ডেটা সংগ্রহ, পর্যালোচনা, বিশ্লেষণ ও উপস্থাপন করে তাকে কর্পোরেট ডেটাবেজ বলে।

প্রশ্ন-১৪। কুয়েরি কাকে বলে?
উত্তরঃ ডেটাবেজে সংক্ষিত অসংখ্য তথ্য থেকে কোনো নির্দিষ্ট শর্ত সাপেক্ষে তথ্য খুঁজে বের করাকে কুয়েরি বলে। কুয়েরির সাহায্যে নির্দিষ্ট ফিল্ডের ডেটা, নির্দিষ্ট গ্রুপের ডেটা নির্দিষ্ট শর্ত অনুসারে প্রদর্শন করা যায়।

প্রশ্ন-১৫। ভৌগোলিক বিস্তারের ভিত্তিতে কম্পিউটার নেটওয়ার্ক কত প্রকার কী কী?
উত্তরঃ ভৌগোলিক বিস্তারের ভিত্তিতে কম্পিউটার নেটওয়ার্ককে চার (৪) ভাগে ভাগ করা যায়। যথা-
১। পার্সোনাল এরিয়া নেটওয়ার্ক (Personal Area Network – PAN)
২। লোকাল এরিয়া নেটওয়ার্ক (Local Area Network – LAN)
৩। মেট্রোপলিটন এরিয়া নেটওয়ার্ক (Metropoliton Area Network – MAN)
৪। ওয়াইড এরিয়া নেটওয়ার্ক (Wide Area Network- WAN)।

প্রশ্ন-১৬। আউটপুট ফাংশন বলতে কি বুঝায়?
উত্তরঃ আউটপুট ফাংশন হচ্ছে সেই সকল ফাংশন যা কম্পিউটারের মনিটরে বা স্ক্রিনে বিভিন্ন টেক্সট বা ফলাফল দেখায়। যেমন- printf() হচ্ছে একটি আউটপুট ফাংশন।

প্রশ্ন-১৭। সর্টিং (Sorting) কাকে বলে?
উত্তরঃ Sorting হলো সাজানো প্রক্রিয়া। ডেটাবেজের ডেটাকে নিম্নক্রম (Ascending) বা উধ্বক্রম (Descending) অর্ডারে সাজানো প্রক্রিয়াকে Sorting বলে।

প্রশ্ন-১৮। লার্নিং সিস্টেম কি?
উত্তরঃ লার্নিং একটি সিস্টেমের পরিবর্তনগুলোকে নির্দেশ করে যা সিস্টেমটিকে একই কাজ পরবর্তী সময়ে আরও ভালোভাবে সম্পাদন করার যোগ্যতা প্রদান করে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তায় লার্নিং হলো গুরুত্বপূর্ণ একটি বৈশিষ্ট্য। লার্নিং এজেন্ট চারটি প্রধান উপাদান নিয়ে গঠিত। এগুলো হলোঃ ১। লার্নিং এলিমেন্ট; ২। পারফরমেন্স এলিমেন্ট; ৩। ক্রিটিক; ৪। প্রবলেম জেনারেটর।

প্রশ্ন-১৯। ফোরজি (4G) কি? দেশে কবে থেকে 4G সেবা চালু হয়?
উত্তরঃ 4G হলো ফোর্থ জেনারেশন বা চতুর্থ প্রজন্ম শব্দটির সংক্ষিপ্ত রূপ। এটি ব্যবহৃত হয় চতুর্থ প্রজন্মের তারবিহীন টেলিযোগাযোগ প্রযুক্তিকে বুঝাতে। এটি 3G টেলিযোগাযোগ প্রযুক্তির উত্তরসূরি। 4G প্রযুক্তি ল্যাপটপ, স্মার্টফোন বা অন্যান্য মোবাইল যন্ত্রে মোবাইল ব্রডব্যান্ড, মোবাইল আল্ট্রা ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সেবা প্রদান করে থাকে। বাংলাদেশে 4G সেবা চালু হয় ১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮।

প্রশ্ন-২০। সার্চ ইঞ্জিন পিপিলিকা কবে যাত্রা শুরু করে?
উত্তরঃ বাংলাদেশে তৈরি প্রথম সার্চ ইঞ্জিন পিপিলিকা ১৩ এপ্রিল, ২০১৩ সালে যাত্রা শুরু করে।

Rate this post