পড়াশোনা
1 min read

রসায়ন প্রশ্ন ও উত্তর (পর্ব-৩৫)

প্রশ্ন-১। নেসলার বিকারক কাকে বলে?
উত্তর : ক্ষারীয় (NaOH বা KOH) পটাশিয়াম টেট্রাআয়োডো মারকিউরেট এর দ্রবণকে নেসলার বিকারক বলে।

প্রশ্ন-২। স্টীম বা বাষ্প পাতন কাকে বলে?
উত্তর : যে সকল জৈব যৌগ (কঠিন অথবা তরল) পানিতে অদ্রবণীয় এবং ফুটন্ত পানিতে বিয়োজিত না হয়ে স্টীম প্রবাহে বাষ্পীভূত হয়, তাদেরকে অনুদ্বায়ী অপদ্রব্যের মিশ্রণ থেকে স্টীম প্রবাহের মাধ্যমে পাতন করে পৃথকীকরণের পদ্ধতিকে স্টীম বা বাষ্প পাতন বলে।

প্রশ্ন-৩। সমযোজী বন্ধন কী?
উত্তর : সর্বশেষ শক্তিস্তরে স্থায়ী ইলেকট্রনবিন্যাস লাভের জন্য ইলেকট্রন শেয়ারের মাধ্যমে যে বন্ধন গঠিত হয়, তাকে সমযোজী বন্ধন বলে।

প্রশ্ন-৪। ইলেকট্রন শেয়ার করার সংখ্যার উপর ভিত্তি করে কত ধরনের সমযোজী বন্ধন গঠিত হয়?
উত্তর : ইলেকট্রন শেয়ার করার সংখ্যার উপর ভিত্তি করে তিন ধরনের সমযোজী বন্ধন গঠিত হয়। যেমন- ১। একক বন্ধন, ২। দ্বি-বন্ধন এবং ৩। ত্রি-বন্ধন।

প্রশ্ন-৫। pH বলতে কি বুঝ?
উত্তর : pH বলতে কোনো দ্রবণের হাইড্রোজেন আয়ন (H+) এর মোলার ঘনমাত্রার ঋণাত্মক লগারিদমকে বুঝানো হয়।

প্রশ্ন-৬। আমাদের ব্যবহৃত জ্বালানির মূল উপাদান কি?
উত্তর : আমাদের ব্যবহৃত জ্বালানির মূল উপাদান কার্বন ও কার্বন যৌগ।

প্রশ্ন-৭। প্যারাফিন কী?
উত্তর : সম্পৃক্ত জৈব যৌগই হলো প্যারাফিন।

প্রশ্ন-৮। কয়লা, তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাসকে কেন জীবাশ্ম জ্বালানি বলা হয়?
উত্তর : কয়লা, তেল ও প্রাকৃতিক গ্যাস মানুষের সৃষ্ট নয়। হাজার হাজার বছর পূর্বে মাটির নিচে উদ্ভিদ ও প্রাণির দেহ চাপা পড়ে উচ্চ তাপ ও চাপে বায়ুর অনুপস্থিতিতে হাজার হাজার বছরে ক্ষয়প্রাপ্ত হয়ে এই জ্বালানি তৈরি হয়েছে। এই জ্বালানি ধ্বংসাবশেষ থেকে সৃষ্টি হয়েছে বলে একে জীবাশ্ম জ্বালানি বলা হয়।

প্রশ্ন-৯। অ্যালকাইন কাকে বলে?
উত্তর : কার্বন কার্বন ত্রি-বন্ধন যুক্ত হাইড্রোকার্বনকে অ্যালকাইন বলে।

প্রশ্ন-১০। ক্যাথোড কাকে বলে?
উত্তর : তড়িৎ কোষের যে তড়িৎদ্বারে বিজারণ বিক্রিয়া সংঘটিত হয়, তাকে ক্যাথোড বলে।

প্রশ্ন-১১। কাঁসা বা ব্রোঞ্জ কাকে বলে?
উত্তর : কপার (Cu) ও টিনের (Sn) সংকর ধাতুকে কাঁসা বা ব্রোঞ্জ বলে। এটি ধাতু গলানোর যন্ত্রাংশ (যেমনঃ থালা, গ্লাস, বাটি, ঘন্টা ইত্যাদি) তৈরি করতে ব্যবহার করা হয়।

প্রশ্ন-১২। জেট ইঞ্জিনে জ্বালানি হিসাবে কী ব্যবহৃত হয়?
উত্তর : জেট ইঞ্জিনে জ্বালানি হিসাবে কেরোসিন ব্যবহৃত হয়।

প্রশ্ন-১৩। উড়োজাহাজ তৈরিতে কোন ধাতু ব্যবহৃত হয়?
উত্তর : উড়োজাহাজ তৈরিতে অ্যালুমিনিয়াম ধাতু ব্যবহৃত হয়।

প্রশ্ন-১৪। অম্লমিতি-ক্ষারমিতি কাকে বলে?
উত্তরঃ এসিড ক্ষারকের আয়তনিক বিশ্লেষণের মাধ্যমে দ্রবণের ঘনমাত্রা নির্ণয় করার পদ্ধতিকে অম্লমিতি-ক্ষারমিতি বলে।

প্রশ্ন-১৫। ট্রাইট্রেশনে কীভাবে শেষ বিন্দু নির্ণীত হয়?
উত্তরঃ ট্রাইট্রেশনে দুটি বিপরীতধর্মী পদার্থের (এসিড-ক্ষারক, জারক-বিজারক ইত্যাদি) মধ্যে সংখ্যানুপাতে বিক্রিয়া ঘটিয়ে শেষ বিন্দু নির্ণয় করা হয়।

প্রশ্ন-১৬। মেজারিং সিলিন্ডার কোন ক্ষেত্রে ব্যবহৃত হয়?
উত্তরঃ বিভিন্ন আয়তনের তরল দ্রব্য পরিমাপের জন্য মেজারিং সিলিন্ডার ব্যবহৃত হয়।

প্রশ্ন-১৭। কোন ক্ষেত্রে ব্যুরেট ব্যবহৃত হয়?
উত্তরঃ মাত্রিক আয়তনিক বিশ্লেষণে ব্যুরেট ব্যবহৃত হয়।

প্রশ্ন-১৮। সমাণু কাকে বলে?
উত্তরঃ একই আণবিক সংকেত কিন্তু ভিন্ন গাঠনিক সংকেত বিশিষ্ট অণুসমূহকে পরস্পরের সমাণু বলে।

প্রশ্ন-১৯। Lead এর ল্যাটিন নাম কি?
উত্তরঃ Lead এর ল্যাটিন নাম Plumbum.

প্রশ্ন-২০। Zirconium নাম কোন ভাষা থেকে নেয়া হয়েছে?
উত্তরঃ Zirconium নাম আরবী ভাষা থেকে নেয়া হয়েছে।

Rate this post