বাংলাদেশে কয় ধরনের রেলপথ চালু আছে?

উত্তরঃ বাংলাদেশে বর্তমানে তিন ধরনের রেলপথ চালু আছে। পথগুলাে হচ্ছে- মিটারগেজ রেলপথ, ব্রডগেজ রেলপথ ও ডুয়েলগেজ রেলপথ। যমুনা নদীর আগে পর্যন্ত মিটারগেজ ও ডুয়েলগেজ এবং পশ্চিম অংশে ব্রডগেজ রেলপথ চালু আছে। যমুনা সেতু চালুর পূর্বে রেলপথের দৈর্ঘ্য ছিল ২৭৬৮ কি. মি.। বর্তমানে রেলপথের দৈর্ঘ্য ২৮৫৫ কি. মি. এবং প্রায় ৩৪,১৬৮ জন কর্মরত আছে। এর মধ্যে ৬৬০ কি. মি. ব্রডগেজ (বেশিরভাগ পশ্চিমাঞ্চল), ১৮৩০ কি. মি. মিটারগেজ (বেশিরভাগ কেন্দ্রীয় এবং পূর্বাঞ্চলে অবস্থিত) এবং ৩৬৫ কি. মি. ডুয়েল গেজ।

ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ কি?

উত্তরঃ বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যার বিচারের হাত থেকে রেহাই দিতে ১৯৭৫ সালে খন্দকার মোশতাক যে অর্ডিন্যান্স জারি করেছিলেন, তাই ইনডেমনিটি অধ্যাদেশ নামে পরিচিত।

শাসন বিভাগ কাকে বলে?

উত্তরঃ রাষ্ট্রের শাসনকার্য তথা নিত্যদিনকার প্রশাসনিক ও দাপ্তরিক কাজ পরিচালনা, আইন শৃঙ্খলা রক্ষা এবং রাষ্ট্রের সার্বিক সিদ্ধান্ত এবং সুবিধাসমূহ বাস্তবায়ন করে যে বিভাগ তাকে নির্বাহী বা শাসন বিভাগ বলে।

স্থানীয় প্রশাসন ও স্থানীয় স্বায়ত্তশাসনের মধ্যে পার্থক্য কি?

উত্তরঃ স্থানীয় প্রশাসন বলতে স্থানীয় পর্যায়ের বিভাগীয় জেলা এবং উপজেলার শাসন ব্যবস্থাকে বুঝায়। অন্যদিকে, স্থানীয় স্বায়ত্তশাসন বলতে নির্দিষ্ট এলাকাভিত্তিক জনগণের স্বশাসনকে বুঝায়।

মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বলতে কি বুঝায়?

উত্তরঃ বাঙালি জাতির মহান অর্জন বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জন। যার লক্ষ্য ছিল ধর্ম নিরপেক্ষ, বৈষম্যহীন, সমাজতান্ত্রিক, গণতান্ত্রিক, দুর্নীতিমুক্ত, জবাবদিহি মূলক আইনের শাসন প্রতিষ্ঠার মাধ্যমে একটি সোনার বাংলাদেশ গড়ে তোলা। এটাই হলো মুক্তিযুদ্ধের চেতনা।

সার্ক কী? সার্ক এর সদস্য দেশ কয়টি?

উত্তরঃ সার্ক একটি আঞ্চলিক উন্নয়ন সংস্থা, যার পুরো নাম দক্ষিণ এশিয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থা। এর সদস্য দেশগুলো বাংলাদেশ, ভারত, পাকিস্তান, শ্রীলংকা, নেপাল, মালদ্বীপ, ভুটান এবং আফগানিস্তান।

১৯৭০ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগের বিজয়ের কারণ কী?

উত্তরঃ ১৯৭০ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ নিরঙ্কুশ বিজয় অর্জন করে। এর প্রধান কারণ হচ্ছে আওয়ামী লীগ ছয় দফা এবং এগারাে দফার ভিত্তিতে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করে। দীর্ঘদিন বঞ্চনার শিকার পূর্ব পাকিস্তানের মানুষ ছয় দফা ও এগারাে দফার মধ্যে তাদের মুক্তির আশ্বাস দেখতে পেয়েছিল। প্রকৃত অর্থে পাকিস্তানি শাসকদের শােষণের হাত থেকে পরিত্রাণ পাওয়ার আকাঙ্ক্ষায় মানুষ বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বাধীন আওয়ামী লীগকে বিজয়ী করেছিল।

ন্যায়পাল কাকে বলে?

উত্তরঃ ন্যায়পাল বলতে এমন একজন সরকারি মুখপাত্র বা কর্মকর্তাকে বোঝায়, যিনি সরকারি কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ তদন্ত করেন। সরকারি আমলা ও সাধারণ নাগরিকদের মধ্যে মধ্যস্থতাকারী সরকারি এজেন্ট হিসেবে তিনি থাকেন স্বাধীন, নিরপেক্ষ ও সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য।

এক কক্ষ বিশিষ্ট ও দ্বি-কক্ষ বিশিষ্ট আইনসভা কাকে বলে?

উত্তরঃ আইনসভা যখন একটি মাত্র কক্ষ বা পরিষদ নিয়ে গঠিত হয় তখন তাকে এক কক্ষ বিশিষ্ট আইনসভা বলে। অন্যদিকে, আইনসভা যখন দুইটি কক্ষ বা পরিষদ নিয়ে গঠিত হয় তখন তাকে দ্বি-কক্ষ বিশিষ্ট আইনসভা বলে।

CIRDAP কি?

উত্তরঃ CIRDAP-এর পূর্ণরূপ Centre on Integrated Rural Development for Asia and the Pacific। অর্থাৎ, এশীয় ও প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের সমন্বিত পল্লী উন্নয়ন কেন্দ্র। এর সদর দপ্তর বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকায় অবস্থিত।

আইন বিভাগ কাকে বলে?

উত্তরঃ সরকারের যে বিভাগ আইন প্রণয়ন করে এবং প্রয়ােজনবােধে প্রচলিত আইনের পরিবর্তন, পরিবর্ধন, পরিমার্জন, সংশােধন এমনকি বাতিল করে থাকে, সেই বিভাগকেই আইন বিভাগ বলে।

একপত্নী পরিবার বলতে কী বোঝ?

উত্তরঃ একজন পুরুষের সঙ্গে একজন নারীর বিবাহের মাধ্যমে একপত্নী পরিবার গড়ে ওঠে। বিশ্বে এ ধরনের পরিবার অধিক দেখা যায়। আদর্শ পরিবার বলতে মূলত এ পরিবারকেই বোঝায়।

পুন্ড্র কি?

উত্তরঃ পুন্ড্র হচ্ছে প্রাচীন বাংলার অন্যতম একটি গুরুত্বপূর্ণ জনপদের নাম। পুন্ড্র ‘জন’ বা জাতি এ জনপদ গঠন করেছিল। পুন্ড্ররা বঙ্গসহ অন্যান্য জাতিগোষ্ঠীর নিকটজন ছিল। পুন্ড্রদের রাজ্যের রাজধানীর নাম পুন্ড্রনগর। বর্তমান বগুড়া শহরের অদূরে করতোয়া নদীর তীরে পুন্ড্রনগর অবস্থিত। পরবর্তীকালে এর নাম মহস্থানগড় হয়। পুন্ড্র রাজ্যের উত্তর অংশের নাম বরেন্দ্র, বরেন্দ্রী অথবা বরেন্দ্রভূমি ছিল। রাজশাহী অঞ্চলকে এখনও বরেন্দ্র বলা হয়ে থাকে।

ব্যারিয়ার দ্বীপ কী?

উত্তরঃ ব্যারিয়ার দ্বীপ (Barrier Island) হচ্ছে মূল ভূখণ্ড থেকে জলাভূমি দ্বারা বিচ্ছিন্ন দ্বীপ যা উপকূলীয় এলাকায় সৃষ্ট। এ ধরনের দ্বীপ কিন্তু সরু হয়। ব্যারিয়ার দ্বীপ বালি, তেল ও গ্যাসের অন্যতম প্রধান উৎস হিসেবে বিবেচিত।

সাভানা কি?

উত্তরঃ সাভানা এক ধরনের তৃণভূমি। এ তৃণভূমি অঞ্চল নিরক্ষীয় বনাঞ্চলের কিছু উত্তরে ও দক্ষিণে বিস্তৃত।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x