পড়াশোনা

একাদশ-দ্বাদশ শ্রেণির পদার্থবিজ্ঞান ২য় পত্র অষ্টম অধ্যায় প্রশ্ন ও উত্তর

1 min read

কোন রূপান্তর অনুসারে আলোর বেগ পর্যবেক্ষকের বেগের ওপর নির্ভরশীল?

উত্তরঃ গ্যালিলীয় রূপান্তর অনুসারে আলোর বেগ পর্যবেক্ষকের বেগের ওপর নির্ভরশীল।

প্রসঙ্গ কাঠামো বলতে কী বুঝ?

উত্তরঃ মহাবিশ্বে কোনো কিছুর অবস্থান নির্দিষ্ট করে বোঝানোর জন্য একটি কাঠামোকে স্থির ধরে নিতে হয়। এই কাঠামোর সাপেক্ষে কোনো বস্তুর অবস্থান পরিবর্তিত হলে আমরা বলি যে, বস্তুটি গতিশীল। সুতরাং বস্তুর অবস্থান গতি, স্থিতি ইত্যাদি নির্দেশকারী এই কাঠামোকে প্রসঙ্গ কাঠামো বলে।

কঠিন এক্সরে কাকে বলে?

উত্তরঃ গ্যাস নলের ভিতরে গ্যাসের চাপ কম হলে অধিক বিভব পার্থক্য প্রয়োগ করে উৎপাদিত এক্স রশ্মিকে কঠিন এক্সরে বলে।

কৃষ্ণ গহ্বর কাকে বলে?

উত্তরঃ প্রচণ্ড মহাকর্ষীয় বলের জন্য মহাকাশে এমন কিছু বস্তু বা জায়গা আছে যা থেকে আলো বা অন্য কোনো কিছু বেরিয়ে আসতে পারে না। এরূপ বস্তু বা জায়গাকে কৃষ্ণগহ্বর বলে।

আলোক তড়িৎ ক্রিয়া কাকে বলে?

উত্তরঃ কোনো ধাতব পৃষ্ঠের ওপর যথেষ্ট উচ্চ কম্পাঙ্কের আলোক রশ্মি বা অন্য কোনো তড়িৎচুম্বকীয় তরঙ্গ আপতিত হলে উক্ত ধাতু থেকে ইলেকট্রন নিঃসৃত হয়। এ ঘটনাকে আলোক তড়িৎ ক্রিয়া বলে।

 

কাল দীর্ঘায়ন কাকে বলে?

উত্তরঃ কোনো পর্যবেক্ষকের সাপেক্ষে গতিশীল অবস্থায় সংঘটিত দুটি ঘটনার মধ্যবর্তী কাল ব্যবধান ঐ পর্যবেক্ষকের সাপেক্ষে নিশ্চল অবস্থায় সংঘটিত ঐ একই ঘটনাদ্বয়ের মধ্যবর্তী কাল ব্যবধানের চেয়ে বেশি হয়, এই প্রভাবকে কাল দীর্ঘায়ন বলে।

দৈর্ঘ্য সংকোচন কাকে বলে?

উত্তরঃ পর্যবেক্ষকের সাপেক্ষে গতিশীল থাকার কারণে কোনো দণ্ডের দৈর্ঘ্য সংকুচিত মনে হওয়ার ঘটনাকে দৈর্ঘ্য সংকোচন বলে।

কম্পটন ক্রিয়া কাকে বলে?

উত্তরঃ কোনো একটি শক্তিশালী ফোটনের সাথে মুক্ত ইলেকট্রনের সংঘর্ষ ঘটলে ফোটনটি ইলেকট্রনকে কিছু শক্তি প্রদান করে। এতে বিক্ষিপ্ত ফোটনের তরঙ্গদৈর্ঘ্য আপতিত ফোটনের তরঙ্গদৈর্ঘ্যের চেয়ে বেশি হওয়ার ঘটনাকে কম্পটন ক্রিয়া বলে।

 

সূচন কম্পাংক কাকে বলে?

উত্তরঃ প্রত্যেক ধাতুর ক্ষেত্রে একটি ন্যূনতম কম্পাঙ্ক আছে যার চেয়ে কম কম্পাঙ্ক বিশিষ্ট কোনো আলো ঐ ধাতু থেকে ইলেকট্রন নির্গত করতে পারে না। ঐ ন্যূনতম কম্পাঙ্ককে ঐ ধাতুর সূচন কম্পাঙ্ক বলে।

হাইজেনবার্গের অনিশ্চয়তানীতি বিবৃত করো।

উত্তরঃ যদি কোনো কণার কোনো নির্দিষ্ট সময়ে অবস্থানের অনিশ্চয়তা Δx এবং ভরবেগের অনিশ্চয়তা Δp হয়, তবে এদের গুণফল প্লাংকের ধ্রুবকের সমান বা বড় হবে।

X-ray চৌম্বক ক্ষেত্র দ্বারা বিক্ষিপ্ত হয় না- ব্যাখ্যা কর।

উত্তরঃ X-ray কোনো আহিত কণা নয়। এটি একটি তাড়িত চুম্বকীয় তরঙ্গ। আমরা জানি, কোনো গতিশীল চার্জের ওপর চৌম্বকক্ষেত্র ও তড়িৎ ক্ষেত্র উভয়ই বল প্রয়োগ করে। যেহেতু X-ray এর ভিতর কোন চার্জ নেই তাই X-ray চৌম্বক ক্ষেত্র ও তড়িৎক্ষেত্র দ্বারা বিচ্যুত হয় না।

স্টিফেন এর সূত্র লিখ।

উত্তরঃ ১৮৭৯ খ্রিস্টাব্দে অস্ট্রেলিয়ার পদার্থবিজ্ঞানী জোসেফ স্টিফেন কৃষ্ণবস্তু থেকে একটি সূত্র প্রদান করেন। সূত্রটি নিম্নরূপ- কোন কৃষ্ণ বস্তুর প্রতি একক ক্ষেত্রফল থেকে প্রতি সেকেন্ডে বিকীর্ণ তাপ এর পরিমান বস্তুর তাপমাত্রা চতুর্থ সমানুপাতিক।

সূর্য কৃষ্ণ গহ্বরে পরিণত হলে পৃথিবী কি সূর্যের চারিদিকে ঘুরবে? ব্যাখ্যা কর।

উত্তরঃ সূর্য কৃষ্ণ বিবরে পরিণত হলে এর আকার অত্যন্ত ছোট হবে কিন্তু ভরের কোনরূপ পরিবর্তন হবে না এবং সূর্যের ভরকেন্দ্র থেকে পৃথিবীর দূরত্বের কোনো পরিবর্তন হবে না। এতে সূর্য ও পৃথিবীর আকর্ষণ বলের ও কোনো পরিবর্তন হবে না। এছাড়া যেহেতু, সূর্যের সোয়ার্জস্কাইল্ড ব্যাসার্ধের তুলনায় পৃথিবী হতে সূর্যের দূরত্ব অনেক বেশি, তাই পৃথিবীর হঠাৎ কৃষ্ণ গহ্বরে পতিত হবার সম্ভাবনা ও থাকবে না। ফলে পৃথিবী সূর্যের চারদিকে ঘুরতে থাকবে।

Rate this post
Mithu Khan

I am a blogger and educator with a passion for sharing knowledge and insights with others. I am currently studying for my honors degree in mathematics at Govt. Edward College, Pabna.

Leave a Comment