পড়াশোনা

ব্লাড ক্যান্সার বলতে কি বুঝ? এর প্রকারভেদ ও চিকিৎসা।

1 min read

ব্লাড ক্যান্সার হলো রক্তের, বিশেষ করে শ্বেত রক্ত কণিকার এক ধরনের ক্যান্সার। এ রোগকে লিউকেমিয়াও বলা হয়। এ রোগে বোন ম্যারো (Bone marrow) অস্বাভাবিক ধরনের শ্বেত রক্ত কণিকা তৈরি করে, যা যথাযথভাবে কাজ করতে পারে না। রক্তে যখন এ ধরনের শ্বেত রক্ত কণিকার আধিক্য ঘটে তখন তা স্বাভাবিক শ্বেতকণিকা, লোহিত কণিকা, অনুচক্রিকার পরিমাণ কমিয়ে দেয়। এ অবস্থাকে বলা হয় লিউকেমিয়া বা ব্লাড ক্যান্সার।

ব্লাড ক্যান্সারের প্রকারভেদ
ব্লাড ক্যান্সার সাধারণত দু’ধরনের– একিউট (Acute) ও ক্রনিক (Chronic)। প্রথমটি দ্রুত প্রসারমান এবং সাধারণত ছোটদের বেশি হয়। অন্যদিকে, দ্বিতীয়টি ধীরগতিতে প্রসারমান ও বড়দের বেশি হয়।

Acute কে আবার দুই ভাগে ভাগ করা যায়। যথা: ১. Acute Lymphoblastic Leukaemia এবং ২. Acute Lymphocytic Leukaemia.
আবার, Chronic কে দুই ভাগে ভাগ করা যায়। যথা: ১. Chronic Lymphocytic Leukaemia এবং ২. Chronic Myclaid Leukaemia.

ব্লাড ক্যান্সারের চিকিৎসা : রক্তের PBHF এবং Bone Marrow পরীক্ষার মাধ্যমে অতি সহজেই ব্লাড ক্যান্সার সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যায়। বর্তমানে আমাদের দেশে ব্লাড ক্যান্সারের চিকিৎসা চালু আছে। চিকিৎসা সাধারণত দু’ধরনের–
১. ক্যান্সার কোষ নির্মূল করার চিকিৎসা। যেমন: কেমোথেরাপি, অস্থিমজ্জা ও রক্তকোষ প্রতিস্থাপন।
২. উপসর্গসমূহের চিকিৎসা। যেমন: রক্ত পরিসঞ্চালন, বিভিন্ন প্রকার ইনফেকশন দূর করা এবং পুষ্টি নিশ্চিত করা।

Rate this post
Mithu Khan

I am a blogger and educator with a passion for sharing knowledge and insights with others. I am currently studying for my honors degree in mathematics at Govt. Edward College, Pabna.

Leave a Comment