General Knowledge
1 min read

বাংলাদেশের বনজসম্পদ (সাধারণ জ্ঞান)

➤ সুন্দর এর যত শতাংশ বাংলাদেশের ভৌগোলিক সীমার মধ্যে পড়েছে– ৬২%।

➤ ইউনেস্কো সুন্দরবনকে বিশ্ব ঐতিহ্য স্বীকৃতি দেয়– ৬ ডিসেম্বর ১৯৯৭।
➤ দেশের যে বনাঞ্চলকে চিরহরিৎ বন বলা হয়– পার্বত্য বনাঞ্চল।
➤ বনাঞ্চল থেকে সংগৃহীত কাঠ ও লাকড়ি– দেশের মোট জ্বালানির ৬০% পূরণ করে।
➤ পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর গাছ– ইউক্যলিপটাস।
➤ সূর্যকন্যা বলা হয়– তুলা গাছকে।

➤ বাংলাদেশের দীর্ঘতম গাছের নাম– বৈলাম।
➤ জেলা অনুসারে বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি বনভূমি– বাগেরহাট জেলায়।
➤ বিভাগ অনুসারে বাংলাদেশের সবচেয়ে বেশি বনভূমি– চট্টগ্রাম বিভাগ (৪৩%)।
➤ সামাজিক বনায়ন কর্মসূচি প্রথম শুরু হয় চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়ায়– ১৯৮১ সালে।
➤ বাংলাদেশে সামাজিক বনায়নের কাজ শুরু হয়– ১৯৮১ সালে।
➤ বাংলাদেশে পরিবেশ নীতি ঘোষণা করা হয়– ১৯৯২ সালে।
➤ বৃক্ষরোপণে প্রধানমন্ত্রী পুরষ্কার প্রবর্তিত হয়– ১৯৯৩ সালে।
➤ বৃক্ষরোপণে রাষ্ট্রীয় পুরষ্কারের নাম– প্রধানমন্ত্রী পুরষ্কার।
➤ ‘উপকূলীয় সবুজ বেষ্টনি’ সৃজন করা হয়েছে– ১০ টি জেলায়।
➤ মধুপুর বনাঞ্চলের প্রধান বৃক্ষ– শাল।
➤ মধুপুর বনাঞ্চল অবস্থিত– টাঙ্গাইল ও ময়মনসিংহ জেলায়।
➤ ভাওয়াল বনাঞ্চল অবস্থিত– গাজীপুরে।
➤ বাংলাদেশে মোট বনভূমির পরিমাণ– ২.৫২ মিলিয়ন হেক্টর।
➤ রেলের স্লিপার তৈরিতে ব্যবহৃত হয়– গর্জন ও জারুল।
➤ বাংলাদেশের বনভূমি মোট স্থলভাগের– শতকরা ১৩ ভাগ।
➤ বাংলাদেশের একক বৃহত্তম বনভূমি– সুন্দরবন।
➤ বাংলাদেশের বৃহত্তম বনভূমি– পার্বত্য চট্টগ্রাম বনাঞ্চল।
➤ সুন্দরবনকে ‘বিশ্ব ঐতিহ্য’-এর অংশ হিসাবে ঘোষণা করে যে সংস্থা– UNESCO।
➤ সম্প্রতি সুন্দরবন এলাকায় যে নদীতে কয়লাবাহী কার্গো ডুবে যায়– শ্যালা।
➤ সুন্দরবনে বাঘ গণনায় ব্যবহৃত হয়– পাগ-মার্ক।
Rate this post