অর্থনীতি

(Tax) কর কি? করের প্রকারভেদ

1 min read
প্রতিটি দেশের কর (Tax) ব্যবস্থা সেই দেশের অর্থনীতির অগ্রগতির মূল চালিকা শক্তি হিসেবে বিবেচিত হয়। সরকার এই ট্যাক্স বা করের অর্থ জনসাধারনের জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে ব্যয় করে থাকে। এছাড়া দেশের অবকাঠামো নির্মাণ ও যোগাযোগ ব্যবস্থার বিনির্মাণেও কর ব্যবস্থা প্রধান ভূমিকা রাখে।
সরকার সাধারণত একজন ব্যক্তি এবং কর্পোরেট বাসিন্দা ও প্রতিষ্ঠান থেকে কর আদায় করে থাকে। দেশভেদে করের নিয়ম ভিন্ন হয়। বাংলাদেশে প্রধানত দুই প্রকারের কর বিদ্যামান। একটি প্রত্যক্ষ কর, অপরটি পরোক্ষ কর।
দেশের অর্থনীতিকে চাঙ্গা করতে, নাগরিকদের জীবনযাত্রার মান বাড়াতে, এবং বিভিন্ন প্রকল্পের ব্যয়ের জন্য সরকার তাদের নাগরিকদের উপর কর আরোপ করে। সরকার কর্তৃক আরোপিত হারে কর প্রদান বাধ্যতামূলক, এবং ইচ্ছাকৃতভাবে কর ফাঁকি বা সম্পূর্ণ কর দায় পরিশোধে ব্যর্থ হলে আইন দ্বারা শাস্তি পেতে হয়।

কর কি? (What is Tax)

ট্যাক্স বা কর হল একটি বাধ্যতামূলক আর্থিক চার্জ, যা সরকারী সংস্থার দ্বারা নির্দিষ্ট ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের উপর আরোপিত হয়।
ট্যাক্স বা কর হল একটি বাধ্যতামূলক ফি বা আর্থিক চার্জ যা দেশের সর্বোত্তম সুযোগ-সুবিধা এবং অবকাঠামো উন্নয়নের জন্য সরকার কর্তৃক ব্যক্তি বা সংস্থার উপর আরোপ করা হয়। এসকল সংগৃহীত কর বিভিন্ন সরকারী ব্যয় কর্মসূচিতে ব্যবহার করা হয়।

করের প্রকারভেদ

কর প্রধানত দুটি প্রধান বিভাগে বিভক্ত, প্রত্যক্ষ কর এবং পরোক্ষ কর। এছাড়াও আরও কয়েক প্রকারের ট্যাক্স বা কর রয়েছে। নিম্মে বিভিন্ন কর সম্পর্কে আলোচনা করা হল।
১. প্রত্যক্ষ কর (Direct Tax)
প্রত্যক্ষ কর হল এমন একটি কর যা একজন ব্যক্তি বা সংস্থার ওপর সরাসরি আইন দ্বারা আরোপ করা হয়। প্রত্যক্ষ করের উদাহরণ হল আয়কর, সম্পত্তি কর ইত্যাদি।
প্রত্যক্ষ কর হলো একটি দেশের নাগরিকের আয় ও সম্পদের ওপর নির্দিষ্ট হারে আদায়কৃত সরকারি রাজস্ব।
প্রত্যক্ষ কর মূলত অর্থ প্রদানের ক্ষমতার উপর ভিত্তি করে আরোপিত হয়। সাধারণ বাংলাদেশে একজন ব্যক্তি তার অর্জিত আয়ের ওপর কর প্রদান করতে হয়। অর্থ আইন ২০১৫ অনুসারে, একজন ব্যক্তির বার্ষিক আয় যদি ৩ লক্ষের অধিক হয় তবে, তিনি আয়কর প্রদানের উপযুক্ত হবেন।
প্রত্যক্ষ কর সাধারণত দুই প্রকার। যথা- আয়কর এবং সম্পদ কর।
  • আয়কর বার্ষিক (Income Tax): আয়ের ভিত্তিতে আদায়যোগ্য করের নাম আয় কর বা ইনকাম ট্যাক্স।
  • সম্পদ কর (Property tax): বছর শেষে অর্জ্জিত সম্পদের ওপর আরোপিত করের নাম সম্পদ কর।
২. পরোক্ষ কর (Indirect Tax)
সেবা ও পণ্যের উপর যে কর আরোপ করা হয় তাকে পরোক্ষ কর বলা হয়। পরোক্ষ কর পরিষেবা বা পণ্যের বিক্রেতা দ্বারা সংগ্রহ করা হয়। মূলত পণ্য ও পরিষেবার দামের সঙ্গে অতিরিক্ত দাম যোগ করে এটি তোলা হয়। এতে পণ্য বা সেবার দাম বেড়ে যায়। বাংলাদেশ সরকারের আয়ের সবচেয়ে বড় মাধ্যম হল এই পরোক্ষ কর।
পরোক্ষ কর যা পণ্য ও সেবা উৎপাদন ও বিক্রয়, আমদানী ও রপ্তানী এবং অভ্যন্তরীণ ব্যবসায়-বাণিজ্যের ওপর আরোপ করা হয়।
পরোক্ষ করের সাধারণ উদাহরণ হল আমদানি শুল্ক। এটি কোন পণ্য দেশে প্রবেশ করার সময় শুল্ক আমদানিকারক দ্বারা পরিশোধ করা হয়। আমদানিকারক কোনো ভোক্তার কাছে পণ্যটি যখন পুনরায় বিক্রি করতে যায়, তখন শুল্কের খরচ সহ নেট খরচ মিলিয়ে দাম নির্ধারণ করে থাকে।
পরোক্ষ করের আরেকটি উদাহরণ হল আবগারি শুল্ক (Excise duty)। আবগারি কর হল দেশের নাগরিক দ্বারা উৎপন্ন দ্রব্য বা সেবার ওপর ধার্য করা কর।
5/5 - (21 votes)
Mithu Khan

I am a blogger and educator with a passion for sharing knowledge and insights with others. I am currently studying for my honors degree in mathematics at Govt. Edward College, Pabna.