International
1 min read

বাসেল কনভেনশন কি?

২২শে মার্চ, ১৯৮৯ সালে, জাতিসংঘের পরিবেশ কর্মসূচি (UNEP) বিপজ্জনক বা বিষাক্ত বর্জ্য এবং এটির আন্তঃসীমান্ত চলাচল নিয়ন্ত্রণের জন্য বাসেল কনভেনশন নামে একটি কনভেনশন গ্রহণ করে।
বিপজ্জনক বর্জ্যের আন্তঃসীমান্ত চলাচল নিয়ন্ত্রণ এবং এটির সুষ্ঠু বন্দোবস্ত সংক্রান্ত  বিষয়ক আন্তর্জাতিক চুক্তিকে বাসেল কনভেনশন বলে। প্রতিষ্ঠালগ্নে ৫৩টি রাষ্ট্র এবং ইউরোপীয় অর্থনৈতিক সম্প্রদায় (EEC) বাসেল কনভেনশন স্বাক্ষর করেছিল। ২০২৩ সাল পর্যন্ত, ১৮৭টি দেশ এবং ইউরোপীয় কমিশন বাসেল কনভেনশনে স্বাক্ষর করে।
বাসেল কনভেনশনের প্রধান ৩টি উদ্দেশ্য হল যেমন,
(১) বিপজ্জনক বর্জ্য উত্পাদন হ্রাস করা এবং সঠিক বন্দোবস্ত প্রচার করা।
(২) সীমান্তে বর্জ্যের বাণিজ্য সীমাবদ্ধ করা, এবং
(৩) আন্তঃসীমান্ত বর্জ্যের ক্ষেত্রে একটি নিয়ন্ত্রক ব্যবস্থা স্থাপন করা।
কনভেনশনের আরো কয়েকটি লক্ষ্য হল উন্নয়নশীল দেশগুলোকে তাদের উৎপন্ন বিপজ্জনক ও অন্যান্য বর্জ্যের সঠিক ব্যবস্থাপনায় সহায়তা করা। কনভেনশনের শর্তাবলীর অধীনে যেকোন অনুমোদিত আন্তঃসীমান্ত চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা। উৎপন্ন বর্জ্যের পরিমাণ ও বিপজ্জনকতা কমিয়ে আনা এবং বর্জ্য শোধন করা সহ পরিবেশগতভাবে সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনা নিশ্চিত করা।
5/5 - (7 votes)