অর্থনীতি
1 min read

জি আই কি? (GI) বাংলাদেশের জি আই পণ্য সমূহ

জি আই কি?

জি আই (GI) হল ভৌগলিক নির্দেশক চিহ্ন যা কোন পণ্যের একটি নির্দিষ্ট উৎপত্তিস্থলের কারণে এর খ্যাতি বা গুণাবলী নির্দেশ করতে ব্যবহৃত হয়। একটি GI তে সাধারণত উৎপত্তিস্থলের নাম (শহর, অঞ্চল বা দেশ) অন্তর্ভুক্ত থাকে। GI এর পূর্ণরুপ হল  Geographical indication ভৌগলিক নির্দেশক। জি আই পণ্যের স্বীকৃতি দানকারী প্রতিষ্ঠান হলো WIPO (world intellectual property organization)।

বাংলাদেশের জি আই পণ্য

২০২৩ সাল পর্যন্ত বাংলাদেশের জিআই পণ্য সর্বমোট ১১ টি। যেমন জামদানি, ইলিশ,  চাঁপাইনবাবগঞ্জের খিরসাপাত আম, বিজয়পুরের সাদা মাটি, দিনাজপুর কাটারীভোগ, কালিজিরা, রংপুরের শতরঞ্জি, রাজশাহী সিল্ক, ঢাকাই মসলিন, বাগদা (চিংড়ি) এবং সর্বশেষ ফজলি আম।
১. বাংলাদেশের প্রথম স্বীকৃতিপ্রাপ্ত জি আই বা ভৌগোলিক নির্দেশক পণ্য হচ্ছে  জামদানি।এটির আবেদনকারী ও সনদপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (BSCIC)।
নিবন্ধিত হয়: ১ সেপ্টেম্বর ২০১৫।
সনদ প্রাপ্তি: ১৭ নভেম্বর ২০১৬।
২. দ্বিতীয় ভৌগলিক নিদের্শক (জিআই) পণ্য হলো ‘ইলিশ’। এটির আবেদনকারী ও সনদপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান হল মৎস্য অধিদপ্তর।
নিবন্ধিত হয়: ১৩ নভেম্বর ২০১৬।
সনদ প্রাপ্তি: ১৭ আগষ্ট ২০১৭।
৩. তৃতীয় ভৌগলিক নিদের্শক (জিআই) পণ্য হল ‘চাঁপাইনবাবগঞ্জের খিরসাপাত আম’। এটির আবেদনকারী ও সনদপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট (BARI)।
নিবন্ধিত হয়: ২ ফেব্রুয়ারি ২০১৭।
সনদ প্রাপ্তি: ২৭ জানুয়ারি ২০১৯।
৪. চতুর্থ ভৌগলিক নির্দেশক (জিআই) পণ্য ‘বিজয়পুরের সাদা মাটি’। এটির আবেদনকারী ও সনদপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, নেত্রকোনা।
নিবন্ধিত হয়: ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭
সনদ প্রাপ্তি: ১৭ জুন ২০২১
৫. পঞ্চম ভৌগলিক নিদের্শক (জিআই) পণ্য ‘দিনাজপুর কাটারীভোগ’। এটির আবেদনকারী ও সনদপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (BRRI)।
নিবন্ধিত হয়: ৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৭।
সনদ প্রাপ্তি: ১৭ জুন ২০২১।
৬. ষষ্ঠ ভৌগোলিক নির্দেশক (জিআই) পণ্য ‘কালিজিরা’। এটির আবেদনকারী ও সনদপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান :বাংলাদেশ ধান গবেষণা ইনস্টিটিউট (BRRI)।
নিবন্ধিত হয়: ৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৭।
সনদ প্রাপ্তি : ১৭ জুন ২০২১।
৭. সপ্তম ভৌগোলিক নির্দেশক (জিআই) পণ্য ‘রংপুরের শতরঞ্জি’। আবেদনকারী ও সনদপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প।
নিবন্ধিত হয়: ১১ জুলাই ২০১৯।
সনদ প্রাপ্তি : ১৭ জুন ২০২১।
৮. অষ্টম ভৌগোলিক নির্দেশক (জিআই) পণ্য ‘রাজশাহী সিল্ক’। আবেদনকারী ও সনদপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ রেশম উন্নয়ন বোর্ড (BSDB)।
নিবন্ধিত হয়: ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭
সনদ প্রাপ্তি : ১৭ জুন ২০২১
৯. নবম ভৌগোলিক নির্দেশক (জিআই) পণ্য ঢাকাই ‘মসলিন’। আবেদনকারী ও সনদপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ তাঁত বোর্ড (BHB)।
নিবন্ধিত হয় : ২ জানুয়ারি ২০১৮।
সনদ প্রাপ্তি : ১৭ জুন ২০২১।
১০. দশম ভৌগলিক নির্দেশক জিআই পণ্য বাগদা চিংড়ি। আবেদনকারী ও সনদপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান মৎস অধিদপ্তর।
নিবন্ধিত হয় : মে ২০১৯
সনদ প্রাপ্তি : ২৪ এপ্রিল ২০২২।
১১. ফজলি আম সর্বশেষ স্বীকৃতি প্রাপ্ত জিআই পণ্য। আবেদনকারী ও সনদপ্রাপ্ত প্রতিষ্ঠান ফল গবেষণা ইনস্টিটিউট রাজশাহী।
4.9/5 - (28 votes)