Health
1 min read

সিগারেট ছাড়ার উপায়। সিগারেট ছাড়ার 10টি টিপস

সিগারেট ছাড়ার 10 টি সহজ টিপস

সিগারেট ছাড়ার 10 টি টিপস

আজকের আলোচনা আলোচনায় রয়েছে সিগারেট ছাড়ার 10 টি টিপস

টিপস বিশ্বের অনেক লোক সিগারেট খেয়ে থাকেন সিগারেট খাওয়ার কারণে বিভিন্ন ধরনের সমস্যা হয়ে যায়।  সিগারেট খুব খারাপ যা আপনার দেহকে পচে গলে মেরে ফেলবে। সিগারেট এমন মারাত্মক খাবার যা আপনার শরীরকে খুবই বিব্রত করে ফেলবে যেমন সিগারেট খাওয়ার ফলে আপনার শরীর একদম মোমের মতো গলে যাবে| মম যেমন আস্তে আস্তে গলে একদম শেষ হয়ে যায় আপনার আমার দেহ ঠিক তেমনি সিগারেট খাওয়ার কারণে গলে পচে একদম শেষ হয়ে যাবে তাই সিগারেট খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

এজন্য আপনাদের সঙ্গে আজকের এই আলোচনা সিগারেট ছাড়ার 10 টি টিপস সমূহ বিস্তারিত আলোচনা করব|  আগামী অর্থ বছরের বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে যে 2021 থেকে 2022 অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে সিগারেটের মূল্য বৃদ্ধির প্রভাব ধূমপায়ীদের জন্য মডার  খাঁড়ার ঘা হয়ে দাঁড়িয়েছে|

সিগারেট খাওয়ার জন্য যে ক্ষতিটা আমাদের হয়ে যায় সে ক্ষতি থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আপনাকে সর্ব প্রথম সিগারেট খাওয়া বন্ধ করতে হবে। ধূমপান মানুষের মৃত্যু ডেকে আনে আমরা সকলেই জানি তারপরেও আমাদের মাঝে অনেকেই রয়েছেন যারা ধূমপান কিছুতে বন্ধ করতে পারেন আজকের এই আলোচনা ।

আপনারা যদি মনোযোগ দিয়ে পড়ে আমাদের পোস্ট পোস্ট এর যে তথ্যগুলো আমরা আলোচনা করব সে তথ্য গুলো মনোযোগ দিয়ে পড়তে পারেন তাহলে বুঝতে পারবেন সিগারেট আপনার দেহকে কতটা ক্ষতি করে তুলছে।

ধূমপান খুবই খারাপ এবং মারাত্মক একটি রোগ| ধূমপান হচ্ছে নেশাজাতীয় মত এই নেশা আপনাদেরকে কতটা ক্ষতি করে ফেলবে ধীরে ধীরে আপনারা হয়তো বুঝতে পারবেন না। এজন্য আগে  থেকে চেষ্টা করতে হবে আপনি কিভাবে সিগারেট খাওয়া ছাড়বেন

বর্তমানে যারা সিগারেট খাওয়ার ফলে মারাত্মক মৃত্যুর দিকে এগিয়ে যাচ্ছেন তাদেরকে আমি বলব আপনারা এই বাজে নেশা টা একদম বন্ধ করে ফেলুন| এই নেশা আপনি যদি বন্ধ করতে পারেন সে ক্ষেত্রে আপনি পুরোপুরি সুস্থ হতে পারবেন।

আমাদের জীবনে সুস্থতা খুবই দরকার তাই ভালো যে খাবার বা যেকোনো কিছুই বিপরীতে আপনাকে সুস্থ থাকতে হবে সেই চিন্তা করে  আপনার যারা  ধুম পানে বা নেশা জাতীয় যে কোন খাবারের মধ্যে পড়ে গিয়েছেন তারা সেখান থেকে উঠে আসার চেষ্টা করুন।

ধূমপানে আসক্ত  যারা করে যারা তাদের যেমন চেয়েও বেশি চেয়ে বেশি কঠিন হলো বাস্তবায়ন করা| তবে ধূমপান ব্যক্তিদের ধূমপান থেকে বাস্তবায়নের অর্জন করতে পারে সে ক্ষেত্রে তারা হবে লাথি বা সুখী| জীবনটা হবে শান্তিময় জীবন তাই সিগারেট খাওয়া বন্ধ করে ফেলি।

সিগারেট ছাড়ার 10 টি টিপস নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব সকলে মনোযোগ দিয়ে পড়ে তারপরে সিগারেট খাওয়া বন্ধ করে ফেলুন।

নেশাজাতীয় যে নেশাতে আপনারা করে রয়েছেন সে ক্ষেত্রে আপনাদের শরীরের বিভিন্ন ধরনের ক্ষতি হতে পারে যেমন ক্যান্সার এর সমস্যা ব্লাড প্রেসারের সমস্যা কিডনির সমস্যা ফুসফুসের সমস্যা শ্বাসকষ্টের সমস্যা  হাঁপানির সমস্যা ইত্যাদি।এখানে যেই রোগ গুলোর কথা উল্লেখ করা হয়েছে সেগুলো মারাত্মক রোগ| এ রোগ গুলো থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আপনাদের মাঝে একটি কারণ রয়েছে সেটা হচ্ছে সিগারেট খাওয়া বন্ধ করতে হবে এবং বিভিন্ন ধরনের নেশা জাতীয় খাবার গুলো কি বন্ধ করুন এবং এই খাবারগুলোকে জীবনের তরে এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন।

এ রোগ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য আপনাদের মাঝে একটি কারণ রয়েছে সেটা হচ্ছে সিগারেট খাওয়া বন্ধ করতে হবে এবং বিভিন্ন ধরনের নেশা জাতীয় খাবার গুলো বন্ধ করুন এবং এই খাবারগুলোকে জীবনের তরে এড়িয়ে চলার চেষ্টা করুন। যাএকাজগুলো যদি আপনি করতে পারেন সেক্ষেত্রে আপনার সবদিকে শান্তি ফিরে আসবে তাই সিগারেট ছাড়ার 10 টি টিপস আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করব আপনারা আমাদের এই আলোচনাটুকু পড়ে তারপর সিদ্ধান্ত নিতে পারেন।

 চলুন জেনে নেই সিগারেট ছাড়ার 10টি টিপস সমূহ

1 সিগারেট ছাড়ার পরিকল্পনা তৈরি করুনঃ

আপনি যদি সত্যিই সিগারেট ছাড়তে চান সেক্ষেত্রে আপনাকে পর্যাপ্ত পরিমাণে পরিকল্পনা নিতে হবে। আপনি আপনার কাছে প্রতীক্ষা করে একটি নির্দিষ্ট তারিখ নির্ধারণ করে ফেলুন।  আপনাকে মনে রাখতে হবে যে সিগারেট ছাড়ার পরে আপনি যেন আর দ্বিতীয়বার সিগারেট খাওয়ার অভ্যাস করুন সেদিকে খেয়াল রেখে তারপরে সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এমন একটি দিন তারিখ ঠিক করে নিবেন না সে দ্বিতীয়বার আর কোনদিন যেন এই তারিখে ফিরে না আসতে হয় সেদিকে খেয়াল রেখে আপনি সিগারেট খাওয়া বন্ধ করে দিতে পারেন।

২  একটি তালিকা করে ফেলুনঃ

সিগারেট ছাড়ার তালিকা অসংখ্য কারণ আপনি পাবেন ধূমপান ছেড়ে দেওয়ার জন্য। চিন্তা ভাবনা করে নিজের জন্য একটি সিদ্ধান্ত তালিকা তৈরি করে ফেলুন। তালিকা আপনার  স্বাস্থ্যগত ঝুঁকি পরোক্ষ ধূমপানের আর্থিক অপচয় ইত্যাদি। এরপর যখন ইচ্ছা জাগবে তখনই এসব কারণ ভাবতে শুরু করুন। যে আপনি কতটা বিরক্ত হয়ে সিগারেট খাওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন সেই কথা মনে রেখে তারপর আবার সিগারেট খাওয়ার সিদ্ধান্ত নিতে পারেন। তখন আপনার মনে হবে আসলেই সিগারেট না খাওয়াই ভালো।

৩  ইতিবাচক থাকুনঃ

আপনি হয়তো এর আগে ধূমপান বা সিগারেট খাওয়ার পরিকল্পনা করে ব্যর্থ হয়ে গিয়েছিলেন কিন্তু এবার এমন ভাবে পরিকল্পনা করুন যেন আর বাকি জীবনে সিগারেট খেতে না হয়। সিগারেট খাওয়া বন্ধ করে দিলেন কিন্তু কিছুদিন যাওয়ার পর বা কয়েক বছর যাওয়ার পর আবার আপনি সিগারেট খাওয়া শুরু করলে এরকম চিন্তা ভাবনা থেকে দূরে থাকুন। অতএব আপনাকে চিরতরের জন্য সিগারেট খাওয়া বন্ধ করতে হবে। নিজের নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস রাখুন তাহলে জীবনে যে খারাপ দিক গুলো রয়েছে সেগুলো থেকে বিরত থাকতে পারবে।

৪ খাবারের অভ্যাস পরিবর্তন করুনঃ

কিছু কিছু লোক রয়েছেন যারা দুপুরে কিংবা রাতে খাবারের পর সিগারেট খেয়ে থাকেন । আমেরিকা একটি গবেষণায় বলা হয়েছে যে অনেকের কাছে মাংস জাতীয় খাবার খাওয়ার পর ধূমপান উপভোগ হয়ে উঠে। অন্যদিকে ফল সবজি ধূমপান কিছু স্বাস্থ্য হারায়। ধূমপান ছেড়ে দিতে চাইলে কিছুদিন মাংস খাবারের তালিকা শাকসবজি ফলমূল ইত্যাদি রাখার চেষ্টা করুন। যার ফলে আপনি অল্প কিছুদিনের মধ্যে সিগারেট খাওয়া বন্ধ করতে পারবেন।

৫ বদলে ফেলুন পানীয়ঃ

গবেষণায় বলা হয়েছে যে মৃত প্রাণী কোমল পানীয় অফিসার ইত্যাদি পানের সময় অনেকে মনে করে যোগ্য কিন্তু আসলেই পানি বা চা-কফির পরে ধূমপান করা বা পান খাওয়া উচিত না তাই এসব অভ্যাস থেকে আপনি বিরত থাকার চেষ্টা করুন। এ ধরনের বাজে অভ্যাস থেকে বিরত রেখে নিজের জন্য ভালো কিছু করুন যেমন পানি জাতীয় খাবার গুলো খাওয়ার চেষ্টা করুন অথবা ফলের রস আর পানি পান করুন সেটাই ভালো হবে।

হাট-বাজারে নানারকম রসালো ফলে রয়েছে।  সেসব ফলের জুস করে আপনি খেতে পারেন।

৬ বাস্তবতা বাড়ানঃ

দিনের বেলায় ধূমপান করতে ইচ্ছা বেশী জাগে কিন্তু মনে রাখতে হবে যে ধূমপান এবং সিগারেট ছাড়তে হবে। দিনের বেলায় যখনই আপনার ধূমপান বা সিগারেট খেতে ইচ্ছে করবে সঙ্গে সঙ্গে আপনি বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকার চেষ্টা করুন। ওই সময় যদি কোন কাজ আপনি খুঁজে না পান সে ক্ষেত্রে হাঁটাহাঁটি করার অভ্যাস করুন এবং ব্যায়াম করার অভ্যাস করুন অতএব ধুম পান খাওয়া বন্ধ করতে হবে অবশ্যই। আপনার জীবন অতিষ্ঠ করে ফেলবে। তাই অবশ্যই সিগারেট সার্চ করতে হবে। আজকে আমরা আলোচনা করেছি সিগারেট ছাড়ার 10 টি উপায় সমূহ। সিগারেট ছাড়া 10 টি উপায়ে আপনাকে অবশ্যই জেনে রাখতে হবে।

৭  অধূমপায়ী বন্ধু বাড়ানঃ

আপনার আশেপাশে মানুষের ভূমিকা ধূমপান ত্যাগের খেতে অপরিসীম। তাই বন্ধুদের সাথে ধূমপান বা সিগারেট খাওয়ার আড্ডা না দিয়ে বরং সব গল্প আড্ডা করুন তবে সেটাই ভালো হবে। সিগারেট ছাড়া জন্য আপনাকে যে কাজগুলো করতে হবে সে কাজগুলো করার চেষ্টা করুন। সিগারেট ছাড়ার পর আপনার জীবনটা আসলে আনন্দময় হয়ে উঠবে কিন্তু এখন  আপনি বুঝতেছেন না যখন আপনি সিগারেট ছাড়া বন্ধ করে ফেলবেন ঠিক কিছুদিন পর বুঝতে পারবেন আসলে কাজটা ভালো হয়েছে কিনা। সেদিকে খেয়াল রেখে অবশ্য  আপনাকে সিগারেট খাওয়া বন্ধ করতে হবে।

৮ মুখ খালি রাখবেন নাঃ

মোখালি রাখার কারণ হলো কিছু না কিছুমুখ খালি রাখার কারণ হলো কিছু না কিছু খেতে হবে শুধু ধূমপান ছাড়া ।কারণ একজন ব্যক্তি যদি সে ধূমপান বা যেকোন নেশায় আবদ্ধ থাকে হঠাৎ করে সে যদি নেশা বন্ধ করে দেয় যেমন সিগারেট ধূমপান এসব বন্ধ করে দেয় সেক্ষেত্রে তার একটু কষ্ট হয়ে যায় সে ক্ষেত্রে আপনি একদমই মুখ খালি রাখবেন না কিছু না কিছু খাওয়ার চেষ্টা করবেন। তবে আপনি সেই বাজে অভ্যাস থেকে মুক্তি পেতে পারবেন।

ধূমপান না খেয়ে তার চেয়ে ভালো চকলেট সিঙ্গাম ইত্যাদি এসব যদি খেতে পারেন তারপরও আপনি সুস্থ থাকবেন তবে। তবে আপনাকে  সিগারেট ছাড়া অভ্যাস করতে হবে ।

৯ বড়দের পরামর্শ নেনঃ

সারা বিশ্বে এমন না এমন কিছু লোক রয়েছেন যারা আগে নেশা করত এখন নেশা করেন না আপনি চাইলে তাদের কাছে নেশা ছাড়ার জন্য কি কি পরামর্শ খুঁজে পাওয়া যায় সেই পরামর্শগুলো আপনি চেনেন ধূমপান ছেড়ে দেওয়ার অভ্যাস করুন।  কারণ আপনি যেখানে গেলে ভালো পরামর্শ পাবেন ঠিক সেখানে গিয়ে আপনি আপনার ধূমপান খাওয়ার আলোচনা করে ফেলুন তিনি আপনাকে ভাড়া বড় দিবে। আসলে সিগারেট খাওয়া ভালো নাকি মন্দ এবং সিগারেট না খেলে কতটা সুস্থ থাকা যায় বিস্তারিত সকল বিষয়ে আপনি তার কাছে ভাল জানতে পারবেন। শুধুমাত্র আপনি তাদের কাছেই যাবেন যারা আগে ধূমপান করত এখন ধূমপান করছে না তাদের কাছে গেলে আপনি ভাল পরামর্শ পাবেন তাই অবশ্যই তাদের কাছে ভাল পরামর্শ নিন সিগারেট ছাড়ার 10 টি টিপস।

১০ প্রয়োজনে বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিনঃ

সর্বশেষ একটি কথা হল আপনি যদি এই নেশা ধূমপান সিগারেট নাচতে পারেন সেক্ষেত্রে আপনাকে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে তবে যে করেই হোক আপনাকে সিগারেট ছাড়ার অভ্যাস করতে হবে।

সর্বশেষ একটি টিপস হচ্ছে আপনি ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে তারপরে কি করা লাগবে সিগারেট ছাড়ার জন্য। সেই  কাজটি করে ফেলুন । কাজটি করে ফেলুন ।তবে অবশ্যই চেষ্টা করতে হবে আপনাকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসার জন্য।

আজকের আলোচনা হয়েছিল সিগারেট ছাড়ার 10 টি টিপস উপায় সমূহ বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে উপরে উল্লেখিত বিষয়গুলো সকলের মনোযোগ দিয়ে আমাদের সঙ্গে থেকে পড়ে নিন তারপরে সিগারেট ছাড়ার সিদ্ধান্ত পাল্টে ফেলতে পারেন।

এবং সুন্দর জীবন গড়ে তোলার চেষ্টা করুন। এবং সুন্দর জীবন গড়ে তোলার চেষ্টা করুন ।সিগারেট ধূমপান ধূমপান মদ্যপান নেশা গতজে অভ্যাসগুলো রয়েছে সে অভ্যাসগুলো ছাড়া চেষ্টা করুন। কখনো এমন কিছু ভুল করবেন না যে আপনি আপনার হাতে নিজে নিজের জীবন নিজে শেষ করে ফেলছেন সেই খাবারগুলো থেকে বিরত থাকার চেষ্টা করুন।

Rate this post