Health
1 min read

গর্ভবতী মায়েদের মাথা ব্যাথা কারণ লক্ষণ প্রতিকার

আসসালামু আলাইকুম আজকে আমরা আলোচনা করব গর্ভবতী মায়েদের মাথা ব্যাথা কারণ লক্ষণ প্রতিকার সম্পর্কে। গর্ভবতী মায়েদের হরমোনের পরিবর্তন থেকে ভালো ঘুম না হওয়ার কারণে এসব সমস্যা দেখা দিতে পারে। মাথা ব্যাথা শুরু করে এরপর আস্তে আস্তে ঘাড়ে ব্যাথা শুরু হয়ে যায়। যা খুবই বিপদজনক। আজকে আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করব মায়ের মাথা ব্যথার লক্ষণ কারণ প্রতিকার সম্পর্কে। 

 চলুন তাহলে জেনে গর্ভবতী মায়ের মাথা ব্যথার কারণ লক্ষণ প্রতিকার সম্পর্কে।

সাধারণত গর্ভবতী মায়েদের এই সমস্যা প্রতিনিয়তই হয়ে থাকে এবং সকল মহিলাদেরই গর্ভ অবস্থায় এগুলো সমস্যা দেখা দিতে পারে বিভিন্ন ধরনের সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়। তাই সকল বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব সকলে মনোযোগ দিয়ে দেখে নিন।

গর্ভবতী নারীদের মাথা ব্যথার কারণঃ

গর্ভবতী মায়েদের মাথা ব্যাথা কারণ লক্ষণ ইত্যাদি এসব হলে কোন টেনশনের কারণ নেই কারণ এগুলো হতেই পারে। আপনাকে গর্ভকালীন অবস্থায় অনেক কিছু মেনে নিতে হবে অবশ্যই। মাথা ঘোরা বমি বমি আসবে কোন খাবার খেতে ভালো লাগবে না যে কোন খাবার গন্ধ লাগবে ইত্যাদি গর্ভকালীন অবস্থায় এই সমস্যাগুলো অনেকের ক্ষেত্রে হয়ে থাকে ।তাই এসব নিয়ে কখনো টেনশন করবেন না।

জেনে নিন গর্ভবতী নারীদের মাথাব্যথার কারণ সমূহঃ

  • উচ্চ রক্তচাপ হলে
  • আপনার ওজন বৃদ্ধি পাওয়া ও পেটের ভিতর বাচ্চা বড় হওয়া
  • গর্ভকালীন অবস্থায় শরীরের বৃদ্ধির ফলে  পেশি  বা চামড়া টান পড়া
  • শারীরিক ও মানসিক চাপ এর সমস্যা
  • ঘুমের অভাব
  • অনেকক্ষণ মোবাইল বা কম্পিউটার দেখা
  • ক্ষুধা লাগা
  • পানিশূন্যতা
  • রক্তে শতকরা পরিমাণ কমে গেলে
  • হরমোনের পরিবর্তনের কারণে

 

চিকিৎসাঃ গর্ভকালীন সময় যদি মাথাব্যথা হয়ে থাকে সে ক্ষেত্রে আপনি মাথা ব্যাথা কমানোর জন্য বিভিন্ন ঔষধ ব্যবহার করতে পারেন। বর্তমান যুগে এসব রোগের ঔষধ পাওয়া যায় আপনি চাইলে আপনার এই সমস্যার জন্য আপনি ঔষধ ব্যবহার করতে পারেন।ভ তবে ঘরোয়া এবং উপায়ে আপনি মাথা সমস্যা দূর করতে পারবেন। ঘরোয়া পদ্ধতিতে বা প্রাকৃতিক উপায়ে গর্ভকালীন অবস্থায় মাথা ব্যাথা ইত্যাদি সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে জেনে নিন।

 

গোসল করাঃ গর্ভকালীন অবস্থায় যদি আপনার কোন সমস্যা না হয়ে থাকে তবে আপনার ডাক্তার গোসল করতে নিষেধ না করে তবে কুসুম গরম পানি করে আপনি গোসল করতে পারবেন।

অন্ধকার করে বিশ্রাম করাঃ গর্ভকালীন অবস্থায় যদি মাথাব্যথা হয়ে থাকে সে ক্ষেত্রে আপনি আপনার ঘরটা অন্ধকার করে ফেলুন তারপর একটু বিশ্রাম নিয়ে নিন। বিশ্রাম নেওয়ার পর দেখবেন আপনার মাথা ঘোরানো বিভিন্ন ধরনের কারণগুলো দূর হতে সাহায্য করবে।

চোখের পরীক্ষা করাঃ গর্ভকালীন অবস্থায় মহিলাদের চোখ অন্ধ হয়ে যায় এবং দীর্ঘ শক্তি পরিবর্তন করে প্রবাহিত করে ।তাই চক্ষু চিকিৎসকের চোখের সমস্যা গুলি থেকে মাথা ব্যাথা উপশম করতে বিকল্প রেখে থাকেন।

প্রাকৃতিক উপকরণ ব্যবহার করাঃ বিকল্প সব যত্ন যেমন মালিশ (ম্যাসেজ) বা আকুপাংচার মাথাব্যথা উপশম করতে সহায়তা করতে পারে।

নারী রোগ বিশেষজ্ঞের সহায়তা নিনঃ গর্ভকালীন অবস্থায় যদি আপনার মাথা ব্যথার কারণ গুলো অতিরিক্ত মাত্রায় বেড়ে যায় সে ক্ষেত্রে আপনি দ্রুত ভালো একটি গাইনী বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের পরামর্শ নিয়ে আপনার চিকিৎসা করাতে পারেন।

গর্ভকালীন অবস্থায় কখন ডাক্তারের কাছে যাবেনঃ

গর্ভকালীন অবস্থায় অনেক মহিলাদের কিছু কিছু ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে এর মধ্যে একটি সমঝোতা হচ্ছে মাথা ব্যথা কারণ। মাথা ব্যাথা যদি অল্প পরিমাণে হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে আপনি কিছুক্ষণ বিশ্রাম নিয়ে তারপর ঘুম থেকে উঠে বিছানা থেকে উঠে দেখে নিন আপনার মাথা ঠিক হয়েছে কিনা ।যদি ঠিক না হয় সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে। গর্ভকালীন অবস্থায় যদি মাথা ব্যাথা এক থেকে দুই ঘন্টা পর্যন্ত হয়ে থাকে সে ক্ষেত্রে আসলে লক্ষণ টা খুবই খারাপ তাই অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে আপনি জটিলতা দূর করে ফেলুন।

নিচে যে সমস্যাগুলো হলে আপনি ডাক্তারের পরামর্শ নেবেন জেনে নিন।

  • অতিরিক্ত বমি বমি ভাব অতিরিক্ত মাথা ব্যাথা অতিরিক্ত পেটে ব্যাথা অতিরিক্ত শরীর ফোলা ভাব ইত্যাদি এসব হলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।
  • আপনার মাথা ব্যাথার সূত্রপাত যদি উচ্চ রক্তচাপ থেকে হয়ে থাকে সে ক্ষেত্রে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।
  • এই সময় যদি আপনি নাক দিয়ে নিঃশ্বাস না নিতে পারেন এবং নাক বন্ধ হয়ে যায় ও জ্বর চলে আসে সে ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনাকে ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।
  • কোন ঔষধ গ্রহণের পূর্বে এটি আপনার জন্য নিরাপদ কিনা এবং চিকিৎসকের থেকে জেনে নিন খুব দ্রুত।
  • যদি আপনার প্রাকৃতিক চিকিৎসা কাজ না করে ও ঔষধ গ্রহন করতে হয়।

 শেষ কথাঃ

গর্ভকালীন অবস্থায় মাথা ব্যাথা এরকম বিভিন্ন ধরনের সমস্যা যদি অতিরিক্ত হয়ে যায় সে ক্ষেত্রে ঘরে বসে না থেকে অবশ্যই আপনাকে ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে চিকিৎসা করতে হবে।  গর্ভাবস্থায় মাথা ব্যথার কারণ কি হতে পারে তা বোঝার জন্য আপনি এটি প্রতিরোধের চেষ্টা অবশ্যই করতে পারবেন এবং করা খুবই দরকার।

গর্ভকালীন অবস্থায় অতিরিক্ত মাত্রায় যদি মাথা ব্যাথা বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দেয় সে ক্ষেত্রে মা ও শিশু দুজনের বিপদজনক হতে পারে তাই ।অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে কাজ করুন। গর্ভকালীন অবস্থায় যে কোন সমস্যা নিয়ে কখনো নীরবতা পালন করবেন না আপনাকে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে জিজ্ঞাসা করতে হবে।

আজকের আলোচনা হয়েছিল গর্ভবতী মায়ের মাথা ব্যথার কারণ লক্ষণ প্রতিকার সম্পর্কে। সকল বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেছি আপনারা সকলেই আমাদের এই পোস্ট মনোযোগ দিয়ে পড়েন। আশা করব আমাদের পোষ্ট পড়ার পর  আপনাদের কিছু  না  কিছু   কাজে লাগবে ।

Rate this post