Islamic
1 min read

মাশাআল্লাহ অর্থ কি ? মাশাআল্লাহ এর জবাব কি ?

মাশাল্লাহ অর্থ কি

মাশাআল্লাহ অর্থ কি

আসসালামুআলাইকুম প্রিয় দর্শন  আজকে আলোচনা করব মাশাআল্লাহ অর্থ কি |কোন কাজ ভালো হলে বা কোন সুন্দর কিছু দেখলেই মাশাল্লা বলতে হয় | মাশাল্লাহ শব্দের অর্থ কি| মাশাল্লাহ কেন বলতে হয় মাশাআল্লাহ এর জবাবে কি বলতে হয় তা জানে সকল বিষয় নিয়ে আজকের এই আলোচনার সম্পুর্ন পোস্ট আপনারা দেখে নিন । 

আপনি যদি কারও কিছু ভালো কাজ বা অন্যান্য ভালো কিছু দেখেন তাহলে মাশাল্লাহ বলতে পারবে| প্রশ্ন হলো কিভাবে আল্লাহর ইবাদত করবেন প্রতিটি কাজের মাধ্যমে ভালো কাজ হয় তাই এজন্য আপনি মাশাল্লাহ বলতে পারেন। কারো বিপদে সাহায্য করা সত্য কথা বলা ভালো ব্যবহার করা ইত্যাদি যে কোনো কাজই হোক সেটাতেই মাশাল্লাহ বলতে হয়। মাশাল্লাহ বলার আগে আপনাকে অবশ্যই জানা দরকার মাশাল্লাহ শব্দের অর্থ কি।

কিভাবে এর মাধ্যমে আপনি আল্লাহর নেয়ামতের প্রশংসা করবেন| এমন কিছু কাজ রয়েছে যে কাজগুলো কেউ অন্যকে ভাল বলে এবং প্রশংসা করি তাহলে সেই কাজগুলোকে মাশাল্লা বলা হয়| মাশাআল্লাহ অর্থ কি মাস আল্লাহ শব্দের অর্থ কি মাশাল্লাহ জবাবদিহি ইত্যাদি সকল বিষয় নিয়ে আজকের এই  আলোচনাতে আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করব।

  • মাশাল্লাহ বলতে হয় কখন
  • মাশাআল্লাহ অর্থ কি
  •  মাশাল্লাহ শব্দ নিয়ে কিছুকথা
  •  মাশাল্লাহ জবাব কি দিতে হয়

 

মাশাল্লাহ শব্দের বাংলা অর্থ কি

মাশাল্লাহ শব্দের অর্থ হচ্ছে না আল্লাহ এর যা ইচ্ছা তাই করেন|   মাশাআল্লাহ শব্দটি যেখানে ব্যবহার করার আগে আপনাকে ভাবতে হবে মাশাল্লাহ শব্দের বাংলা অর্থ কি| মাশাল্লাহ শব্দের বাংলা অর্থ হলো আল্লাহ এর যা ইচ্ছা হয় তাই করেন| আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা মাশাআল্লাহ শব্দের অর্থ কি জানে না তাই আজকে তাদের জন্য আমাদের এই আলোচনা| মাশাআল্লাহ অর্থ কি মাস আল্লাহ শব্দের বাংলা অর্থ কি উত্তর সম্পর্কে আজকে আলোচনা করব সবকিছু জেনে আপনিও ইনশাল্লাহ সব সময়ের জন্য মাশাল্লা বলার চেষ্টা করুন|

মাশাআল্লাহ বলতে হয় কখন/ মাশাল্লাহ শব্দের বাংলা  অর্থ কি

আপনাকে প্রথমে জানতে হবে মাশাল্লাহ এর অর্থ কি ।  মাশাল্লাহ শব্দের অর্থ হলো আল্লাহর যা ইচ্ছা হয় তাই করেন।  সাধারণত তিনটি সময়ে  মাশাল্লাহ বলতে হয়। যেমনঃ কখন কখন মাশাল্লাহ বলতে হয় জেনে নিন? মাশাল্লাহ বলুন ভালো কাজের সময় । মাশাল্লাহ বলুন সফলতা দেখলে। মাশাল্লাহ বলুন সুন্দর কিছু জিনিস দেখলে।  মাশাআল্লাহ বললে কখনো কোনো কিছুতে নজর লাগবে না।

মাশাল্লাহ বলার পর শয়তান কোনোভাবেই প্রভাব ফেলতে পারবে না। মাশাল্লাহ বলার কারনে আপনি আল্লাহর প্রশংসা করলেন। আপনি যদি রাস্তাতেই কোন সুন্দর কিছু দেখেন বা সুন্দর বাচ্চা দেখেন তাহলে মাশাল্লাহ বলবেন অবশ্যই।  বাচ্চা দেখার ফলে আপনাকে মাশাল্লাহ বলতে হবে করণ সেটা  না করলে বাচ্চাদের উপর নজর বেশি লেগে যায়। তাই রাস্তাঘাটে যদি কোন বাচ্চা দেখেন তাহলে অবশ্যই সঙ্গে সঙ্গে মাশাল্লাহ বলুন। কারন আপনি আমার বাচ্চাদের উপর বাজে নজর পড়ে সেজন্য তারা খুব অসুস্থ হয়ে যায়।

 ফি আমানিল্লাহ অর্থ কি

তা ছাড়া কারও কোন কাজ ভালো দেখলে এবং কোন কাজে সফলতা হলে অবশ্যই আপনাকে মাশাল্লাহ করতে হবে এবং তার জন্য দোয়া করতে হবে আপনার দোয়া করার ফলে মহান আল্লাহ তালা যেন তাঁকে আরও সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেন সেজন্য আপনাকে অবশ্যই মাশাল্লাহ বলতে হবে।

কেউ যদি কারো জন্য ভাল কাজ করে এবং মানুষের উপকার করে থাকেন তাহলে অবশ্যই আপনার মাশাআল্লাহ  বলতে হবে। মাশাল্লা বলার জন্য মহান আল্লাহতালা তাকে আরও ভালো কাজ করার জন্য হেদায়েত দান করবেন ইনশাল্লাহ। মাশাল্লাহ বলার সাথে সাথে আপনি মাশাআল্লাহ এর জবাব দিবেন। মাশাল্লাহ বলার জবাব কি তা জেনে নিন।

মাশাআল্লাহ এর উত্তর কি? / মাশাআল্লাহ এর জবাব কি দিতে হয়

মাশাআল্লাহ অর্থ কি জনলাম, এখন জনব মাশাআল্লাহ এর জবাব কি দিতে হয়। আপনাদের বাড়িতে যদি কোন আত্মীয় বা যেকোন লোক আসার পর যেকোনো জিনিস দেখে বা বাচ্চা দেখে মাশাল্লাহ বলবেন। তখনই আপনাকে মাশাল্লাহ বলার জবাব দিতে হবে আলহামদুলিল্লাহ বলে। আপনার আত্মীয় বা বন্ধুবান্ধব যেকেউ মাশাল্লা বলার ফলে মহান আল্লাহ তাআলার প্রশংসা করলেন।

মাশআল্লাহ বলে মহান আল্লাহ তাআলার প্রশংসা করার চেষ্টা করব। আমরা জানতে পেরেছি যে মাশাল্লাহ বলার পর তার জবাব হলো আলহামদুলিল্লাহ মহান আল্লাহ তাআলার প্রশংসা। আলহামদুলিল্লাহ বলার মাধ্যমে আপনিও আল্লাহর নেয়ামতের প্রশংসা করলেন।  যার ফলে আপনার ও আল্লাহর প্রতিবাদ করা হলো।

এভাবে আপনি যদি আপনার ছোট ছোট কাজের জন্য মাশাল্লাহ বলেন প্রতিনিয়ত মনে করেন আল্লাহ তাআলা আপনার হেদায়েতের পাঠিয়ে দিবেন ইনশাআল্লাহ। তাই আপনি আরো বেশি বেশি আল্লাহর ইবাদতের জন্য নিজেকে সঁপে দিলেন।  আপনাকে অবশ্যই এটা মনে রাখতে হবে আপনার একদিন মৃত্যুবরণ করতে হবে। অবশ্যই আপনাকে আপনার কর্মের ফল ভোগ করতে হবে।

তবে মাশাল্লাহ বলা নিয়ে আপনার যদি কোন মুখ অবহেলা থাকে তাহলে সেটা দূর করে ফেলুন এবং মাশাল্লাহ বলার চেষ্টা করুন এবং মাশাল্লাহর  জবাব হচ্ছে আলহামদুলিল্লাহ সেটা বলার চেষ্টা করুন।

মাশাল্লাহ শব্দ নিয়ে কিছু কথা

মাশাআল্লাহ অর্থ কি আমরা জানলাম এবার জানব মাশাল্লাহ সম্পর্কে কিছু গুরুত্বপূর্ণ ফজিলত।  মহান আল্লাহ তায়ালা সৃষ্টি করে রেখেছেন এমন জগতে জগতে আমি বসবাস করছেন।আল্লাহ তায়ালার হুকুম আসলে একদিন আপনাকে মৃত্যুবরণ করতে হবে এই সুন্দর দুনিয়া বা পৃথিবী রেখে আপনাকে অবশ্যই পরকালে পাড়ি দিতে হবে।  মিছে এই দুনিয়া ছেড়ে একদিন আপনাকে এসব দুনিয়ায় চলে যেতে হবে মৃত্যুর পর। মৃত্যু ঘরের জীবন হচ্ছে আসল জীবন শুরু। যাকে বলা পর কাল। পরকালের জীবন হচ্ছে ইহকালের জীবন থেকে পুরোপুরি আলাদা জীবন। আপনি সকালে যাক ভালো এবং মন তা ও পরকালে পাবেন।

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়া, সত্য কথা বলা, কোরআন পড়া, মিথ্যা কথা থেকে দূরে থাকা, আপনার দৈনিক কাজের আল্লাহকে স্মরণ করা নিকি আদায় করা, একজন  আরেকজন ভালো ব্যবহার করা পর্দা করা ইত্যাদি ইত্যাদি । আপনি যদি মহান আল্লাহ তাআলার ইহকালে ইবাদত বন্দেগী  সঠিকভাবে আদায় করতে পারেন তাহলে অবশ্যই আপনার জন্য পরকাল হবে খুব সুখের সুন্দর জীবন। তাই পরকালে সুখে থাকার জন্য অবশ্যই আপনাকে ইহকালে যে কাজগুলো রয়েছে সে কাজগুলো অবশ্যই করতে হবে। সকল কাজ করে মহান আল্লাহ তাআলার নামে আলহামদুলিল্লাহ বলে আল্লাহর প্রতি শুকরিয়া আদায় করুন।

আপনি যদি ইহকালের আল্লাহর ও রাসূলের দেওয়ার নিয়ম মেনে চলেন তাহলে অবশ্যই আপনার পরকাল জীবন খুব সুখের হবে। তাই মহান আল্লাহ তালাকে এবং আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি নিয়ম গুলো রয়েছে সেগুলো স্মরণ করুন এবং এবাদত করুন তাহলে আপনি পরকালের জান্নাত লাভ করবেন।  ইহকালে যাই কিছু হোক না কেন ভালো কাজ সেগুলো শুধু মায়া  আর কিছুই না। পরকালের জন্য আপনাকে অবশ্যই কিছু করতে হবে।

আমাদেরকে অবশ্যই জান্নাত লাভ করতে হবে তাই মহান আল্লাহতালার সঠিক নিয়ম গুলো মেনে চলতে হবে।  জান্নাত হল সবথেকে সুখের স্থান এবং শান্তির স্থান যা মুখে বলে শেষ করা যাবেনা। জান্নাত পেতে হলে অবশ্যই আল্লাহর বান্দা হিসেবে সারাক্ষণ আপনার কর্মের মাধ্যমে আল্লাহকে ইবাদত করতে হবে। ইহকালে আমরা কর্ম কাজে ব্যস্ত থাকব ঠিক আছে কিন্তু মহান আল্লাহ তাআলার হুকুম মেনে চলব ইনশাআল্লাহ। আমাদের প্রতিটি কাজে মহান আল্লাহ তাআলার প্রশংসা যেন থাকে।

আপনার প্রত্যেকটি কথাতে এবং কাজেতে যেন আল্লাহর প্রশংসা থাকে। তাই যে কোনো ভালো কাজ দেখলে ভালো কিছু দেখলে অবশ্য আপনাকে মাশাল্লাহ বলতে হবে। ভুলতে হবে মাশাল্লা তা যে মাশাআল্লাহ বলুন পাশাপাশি আপনাকে কেউ মাশাআল্লাহ বললে আপনি তার জবাবে বলুনঃ আলহামদুলিল্লাহ।

কারণ আপনার জীবনে যাই কিছু হোক না কেন সবই হচ্ছে আল্লাহর হুকুম অনুযায়ী। তাই ভালো মন্দ দেখে আপনাকে অবশ্যই মাশাল্লাহ বলতে হবে। আমরা সকলেই জানি যে মহান আল্লাহ তাআলার ইশারা ছাড়া কখনও একটি গাছের পাতা পড়ে না। এজন্য আমরা কখনো ভুলেও যেটা জানি না সেটা বলার চেষ্টা করব না কারণ গাছের পাতার মতো মহান আল্লাহ তাআলা আমাদের ভালো বাছাই করে রাখেন। আপনার জীবনে যাই কিছু হোক না কেন সবই আল্লাহর হুকুম অনুযায়ী হয়ে থাকে এবং আল্লাহর ইশারায় হয়ে থাকেন।

আমাদের জীবনে ভালো মন্দ সব কিছুই ঘটে যায় শুধু মহান আল্লাহতালার ইশারায় অনুযায়ী। তাই আপনি বর্তমান যে অবস্থায় রয়েছেন সেই অবস্থাই আপনি খুশি থাকুন। মহান আল্লাহতালা হাসিখুশি ব্যক্তিদের খুব ভালোবাসেন তাই চেষ্টা করবেন দুঃখের মাঝেও হাসি রাখার জন্য মাশাল্লাহ বলে এবং আলহামদুলিল্লাহ বলে।

আজকের এই আলোচনায় আমরা জেনেছি যে  মাশাআল্লাহ অর্থ কি  ইত্যাদি সম্পর্কে। আপনাকে যদি কেউ মাশাল্লাহ বলে তবে আপনি তার জবাবে বলবেন আলহামদুলিল্লাহ।

মাশাল্লাহ অর্থ কি , মাশাল্লাহ এর প্রতি উত্তরে কি বলতে হয়, মাশাআল্লাহ অর্থ কি, মাশাআল্লাহ, মাশাআল্লাহ এর জবাব কি, মাশাআল্লাহ এর উত্তর কি

Rate this post