Islamic
1 min read

ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কিনা জেনে নিন

ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কিনা জেনে নিন

ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কিনা জেনে নিন

এখন বর্তমান চলছে পবিত্র মাহে রমজান মাস।  এই রমজান মাস শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই অনেকের মনে প্রশ্ন থেকে যায় যেটা হচ্ছে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে কি হবে এবং কি করবেন।  আজকে আমাদের এই আলোচনা রমজান মাসে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কি না তা নিয়ে আলোচনা করব ইনশাআল্লাহ।

 তাহলে চলুন আর দেরি না করে রমজান মাসে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কি না তা জেনে নিন।

 ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কিনা

  •  পবিত্রতা কি?
  •  গোসল ফরজ হওয়ার কারণ কি?
  • কি কি কারণে রোজা ভাঙ্গে না?
  •  ফরজ গোসলের নিয়ম?
  •  স্বপ্নদোষ হলে ফরজ গোসল করার নিয়ম?
  •   অপবিত্র অবস্থায় কি কি করা যাবে না?
  • অপবিত্র অবস্থায় কি কি করা যাবে?
  • শেষ কথা \ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কি না?

পবিত্রতা কি/  ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কি

 আমরা  মুসলিম তাই আমরা  পবিত্রতাকে খুব গুরুত্ব দেব এবং পবিত্রতা গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।
 মহান আল্লাহতালা বলেছেন-  যদি তোমরা অপবিত্র থাকো তাহলে গোসল এর মাধ্যমে নিজেকে শরীরে পবিত্র করে নাও । ( সূরা মায়েদা আয়াত 6)

গোসল ফরজ হওয়ার কারণ কি

গোসল ফরজ হওয়ার কিছু কিছু কারণ যেমনঃ
স্বামী-স্ত্রী সহবাসের পর দু’জনকেই  গোসল করা ফরজ।
 জাগ্রত ও ঘুমন্ত অবস্থায়  দুটার মধ্যে যদি বীর্যপাত হয়ে থাকে তাহলে গোসল করা ফরজ।
 মেয়েদের ঋতুস্রাব বন্ধ হওয়ার পর গোসল করা ফরজ।
 স্বপ্নদোষ হলে গোসল করা ফরজ।
 হেদায়াঃ১/৪৫; রোদ্দুর মমতারঃ১/১৬৫

 ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কিনা

 সহি হাদিসে উল্লেখ রয়েছে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে না।  এর কারণ হলো স্বপ্ন আমাদের নিয়ন্ত্রণের বাইরে এজন্য ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে না

 কি কি কারণে রোজা ভাঙ্গে না

 আমরা মনে করি রোযা ভেঙ্গে গেছে কিন্তু আসলে রোজা ভেঙে যায় নি এমন কিছু কারন আপনাদের মাঝে আলোচনা করব আমরা অনেকে ধারণা করে থাকি এইসব কাজের জন্য আমাদের রোজা ভেঙে গেছে কিন্তু তা সঠিক নিয়ম আমরা জানিনা তাই আজকের তাদের জন্য এই আলোচনা তাহলে চলুন দেখে নেই কি কি কারণে রোজা ভাঙ্গে না
  • ঘুমের মধ্যে স্বপ্নদোষ হলে
  •  ঠান্ডার জন্য গোসল করলে
  •  চোখে ওষুধ বা সুরমা ব্যবহার করলে
  •  নিজ মুখে থুতু ইত্যাদি গলাধঃকরণ করলে
  • রোজা অবস্থায় ভুলবশত আমাদের গলার ভেতরে ধুলাবালি দুয়া অথবা মশা-মাছি প্রবেশ করলে
  •  বমি আসার পর আবার নিজে নিজেই ফিরে গেলে
  •  ভুলবশত আমাদের রোজা অবস্থায় কানে পানি প্রবেশ করলে
  •   ইঞ্জেকশন  নেওয়া হলে রোজা ভাঙবে না
  •  সুগন্ধি ব্যবহার করলে রোজা ভাঙবে না
  •  ভুল করে পানাহার করলে রোজা ভাঙবে না
  •  মাথায় ও শরীরে তেল ব্যবহার করলে রোজা ভাঙবে না
  • মেয়েদের দিকে তাকানোর কারণে কোন কসরত ছাড়া বীর্যপাত হলে
  • স্ত্রীকে চুম্বন করলে যদি বীর্যপাত না হয় রোজা না ভাঙলেও এটা রোজা উদ্দেশ্য পরি পর্ণহি

অপবিত্র অবস্থায় কি কি করা যাবে না/  ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কি

—————————————————————————————————————-
 রমজান মাসে অপবিত্র অবস্থায় যা যা করা যাবে না তার কারণ গুলো জেনে নিন
অপবিত্র থাকলে কোরআন তেলাওয়াত করা যাবে না
  •  নামাজ পড়া যাবে না
  •   তাওয়াফ  করা যাবে না
  • মসজিদে যাওয়া ও প্রবেশ করা যাবে না

 অপবিত্র অবস্থায় কি কি করা যাবে/ ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কিনা

 আবু হুমাইরা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত রয়েছে–  মদিনার কোন  এক পথে মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাঃ এর  সাথে তার দেখা হয়েছিল ,  কিন্তু তখন তিনি জুনুবী অবস্থায় ছিলেন তাই তিনি নিজেকে নাপাক মনে করে সেখান থেকে চলে যান
 তারপর তিনি গোসল করে পুনরায় মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম এর সাথে দেখা করতে আসেন,  তখন মহানবী হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম জিজ্ঞাসা করলেন–  আবু হুমায়রা আপনি কোথায় গিয়েছিলেন ,  তখন আমি বললাম আমি অপবিত্র অবস্থায় ছিলাম তাই আপনার সাথে বসা সমীচীন মনে করিনি ,  তখন নবীজি সাল্লাল্লাহু আলাই সাল্লাম বললেন, সুবাহানাল্লাহি  মুমিনরা নাপাক হতে পারে না ( বুখারী|279)
  তার গোসল ফরজ হলেও ব্যক্তি হিসেবে সে  নাপাক  না  বিধানে কিছু নিষেধ রয়েছে ,  তাহলে চলুন দেখে নেই অপবিত্র অবস্থায় কি কি করা যাবে
  •  পানাহার  করতে পারেন
  •  আপনি চাইলে মনে-মনে জিকির-আজকার  করতে পারেন
  •  দোয়া-দুরুদ অজিফা পাঠ করা যাবে
  •   ঘরের কাজ করা  যাবে

 স্বপ্নদোষ হলে ফরজ গোসল করার নিয়ম জেনে নিন

ফরজ গোসলের তিনটি ফরজ নিয়ম রয়েছে তিনটি ফরজের মধ্যে আমরা যদি একটি ফরজ ভুলে যাই তাহলে আমাদের ফরজ গোসল আদায় হবে না ,  তাই ফরজ গোসলের সঠিক নিয়ম ঠিক ভাবে আদায় করতে হবে তাহলে চলুন জেনে নেই ফরজ  গোসলের তিনটি নিয়ম যেমন
  •  গড়গড়া সহ কুলি করা
  •  নাকে পানি দেওয়া( নাকের নরম স্থান পর্যন্ত পানি পৌঁছানো)
  •  সমস্ত শরীরে পানি ঢালা

ফরজ গোসলের নিয়ম/ ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কিনা

মনে মনে ফরজ গোসলের নিয়ত করতে হবে, ( মুখে কোনও আরবি শব্দ উচ্চারণ করে নিয়ত করা  বিগ  বিদ আতা)  দুই হাতে  কব্জি পর্যন্ত  তিনবার ধৌত করতে হবে, তারপর ডান হাতে পানি দিয়ে বাম হাত দিয়ে লজ্জা স্থান এবং তার  আশেপাশে ভালো করে   ধুয়ে নিতে হবে, পুরো শরীরের মধ্যে অন্য কোথাও যদি নাপাক লেগে থাকে সেটাও ভালো করে ধুয়ে নিতে হয়
 এবার বাম হাত কে ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে এরপরে সঠিকভাবে ওযু করতে হবে
 দুই পা ধৌত করা যাবেনা,  অজু শেষ হলে মাথায় তিনবার পানি ঢালতে হবে
 ফরজ গোসলের নিয়ম সমস্ত শরীরের জন্য সর্বপ্রথম ডানে তিনবার এরপর বামে তিনবার পানি ঢেলে ভালোভাবে শরীর  ধুয়ে নিতে হবে  ফরজ গোসলের নিয়ম হলো শরীরের কোন অংশ বা কোন  লোম যেন শুকনা না থাকে, আপনার শরীরের কোন অংশ যদি সুখ না থাকে তাহলে আপনার ফরজ গোসল হবে না ফরজ গোসল সঠিকভাবে না করতে পারলে আপনার রোজা নামাজ কোনটাই কাজে আসবেন না বরঞ্চ আপনার শরীর নাপাকি থেকে যাবে ,  তাই আমাদেরকে শরীর পাক করার জন্য সঠিকভাবে ফরজ গোসল করে নিতে হবে ,(    নাভি   লজ্জাস্থান পানি দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে নিন
মহিলাদের গোসল করার সময় খেয়াল রাখতে হবে তাদের চুল যেন ভালোভাবে  ভিজিয়ে নেওয়া হয়
 পুরুষদের জন্য দাড়ি ও মাথার চুল ভালোভাবে ধুয়ে নিতে হবে এই হলো আমাদের ফরজ গোসলের নিয়ম ,  আমরা যদি ফরজ গোসল নিয়ম মত ভালোভাবে পরিষ্কার করে ধুয়ে নিতে পারি তাহলে গোসলের সঙ্গে আমরা যে অজু করে নেই , ফরজ গোসলের সময় আমরা যে অজু করে নেই সেই ওজন যদি না ভাঙ্গে তাহলে আর নতুন করে অজু করে নিতে হবে না

 শেষ কথাঃ ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কিনা

 প্রিয় দর্শক আজ আমরা এ আলোচনাতে জেনে নিয়েছি কিভাবে ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কিনা এর কিছু তথ্য , আমাদের মধ্যে অনেকেই আছে যারা রমজান মাস ছাড়া এসব বিষয়ে কোনো গুরুত্ব নেই তারা হয়তো রমজান মাস শুরু হওয়ার সময় এসব চিন্তা ভাবনা করে থাকে তাই আজকে তাদের জন্য আমাদের এই আলোচনা আপনারা সকলেই মনোযোগ দিয়ে আমাদের এই পোষ্টটি পড়ে নিন ইনশাআল্লাহ আপনার অনেকটাই কাজে লাগবে রমজান মাস উপলক্ষে আপনাদের জন্য আজকের এই আলোচনা ঘুমন্ত অবস্থায় স্বপ্নদোষ হলে রোজা ভঙ্গ হবে কি
Rate this post