এরপর থেকে হয়ত ব্যবহৃত টি-ব্যাগ আর ফেলে দেবেন না।চায়ের নানান উপকারিতার কথা কম বেশি প্রায় সবারই জানা। তবে অনেকেরই হয়ত জানা নেই, টি-ব্যাগ দিয়ে চা বানানোর পর তা ফেলে না দিয়ে অন্য অনেক কাজে ব্যবহার করা যায়।

খাদ্যবিষয়ক একটি ওয়েবসাইটে চা বানানোর পর ব্যবহৃত টি-ব্যাগের কিছু উপকারি ব্যবহার সম্পর্কে জানানো হয়।

ব্যবহৃত টি-ব্যাগের অন্য ব্যবহার

মাংস মেরিনেইট করতে
সাধারণত মাংসের স্বাদ বাড়াতে এবং নরম করতে বিভিন্ন ধরনের মসলা মাখিয়ে মেরিনেইট করা হয়। তবে অনেক সময় মেরিনেইটেড মাংস শক্ত হয়ে যেতে পারে। তাই চাইলে মাংস মেরিনেইটের সময় চা বানানোর পর টি-ব্যাগ মাংসের মধ্যে রেখে দেওয়া যায়। এতে চায়ের সুগন্ধ মাংসের স্বাদ বাড়ানোর পাশাপাশি মাংস নরম করতে সাহায্য করবে।

চোখের লালচেভাব দূর করে
দুই তিনটি টি-ব্যাগ ঠান্ডা পানিতে ভিজিয়ে টি-ব্যাগগুলো পানি শুষে না নেওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। এরপর ওই টি-ব্যাগগুলো কয়েক মিনিট চোখের উপর রেখে দিলেই চোখের লালচেভাব দূর হয়ে যাবে এবং চোখ হবে সতেজ ও উজ্জ্বল।

কাপড় ও জুতার দুর্গন্ধ দূর করতে
কাপড়ে সুগন্ধ আনতে চাইলে কিছু ব্যবহৃত টি-ব্যাগ শুকিয়ে আলমারি বা ওয়ারড্রবে রেখে দিতে হবে। এছাড়া যে সব জুতা নিয়মিত ব্যবহার করা হয় না, সেগুলো গুছিয়ে রাখার সময় জুতার ভিতরেও টি-ব্যাগ রাখা যেতে পারে। এতে জুতা থেকে অস্বস্তিকর দুর্গন্ধ আসবে না।

ব্রণ ও ত্বকের পোড়াভাব দূর করতে
ব্রণ ও ত্বকের পোড়াভাব— স্বস্তি এনে দিতে পারে টি-ব্যাগ। ব্রণ ও রোদের কারণে পুড়ে যাওয়া জায়গায় ব্যবহার করা টি-ব্যাগ নিয়মিত লাগালে সেখানে ঠান্ডাভাব তৈরি করে স্বস্তি এনে দেয়। এছাড়া শরীরের যে কোন স্থানের গোটা দূর করতেও টি ব্যাগ সমান কার্যকর।

মুখের ভিতরে ব্যথা কমাতে টি-ব্যাগ
মুখের ভিতর ক্ষত হলে তা নিরাময়ের জন্য টি-ব্যাগ ব্যবহার করা যেতে পারে। সেক্ষেত্রে ব্যবহৃত টি-ব্যাগ কামড় দিয়ে কিছুক্ষণ মুখের ভিতর ধরে রাখলে চায়ের ভিতর থাকা উপাদান সমূহ ব্যথা কমাতে এবং তাড়াতাড়ি আঘাত বা ক্ষত সারিয়ে তুলতে সাহায্য করবে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x