যে সব প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো ও অর্থনৈতিক পরিবেশ দ্বারা মানুষের অর্থনৈতিক কার্যকলাপ পরিচালিত হয়, তাকে অর্থনৈতিক ব্যবস্থা বলে। অর্থনীতিবিদ জি. গ্রোসম্যান এর ভাষায় (“The set of institutions that characterizes a given economy comprises its economic system.”)।

মানুষ যে সামাজিক ও অর্থনৈতিক পরিবেশের মধ্যে বসবাস করে তার দ্বারাই মানুষের সকল অর্থনৈতিক কার্যাবলি তথা উৎপাদন, ভোগ, বিনিময়, বণ্টন প্রভৃতির প্রকৃতি ও পদ্ধতি নির্ধারিত ও নিয়ন্ত্রিত হয়। অন্যভাবে বলা যায়; সমাজে মানুষের সম্পত্তির অধিকার, উৎপাদন, বিনিময়, বণ্টন, ভোগ প্রভৃতি বিষয়ে অর্থনৈতিক কার্যাবলি সম্পাদনে যে প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে সেই প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামোকে ‘অর্থনৈতিক ব্যবস্থা’ বলা হয়।

সংক্ষেপে বলা যায়, মানুষ যে প্রাতিষ্ঠানিক কাঠামো ও বিধিব্যবস্থার মধ্যে, অর্থনৈতিক কার্যাবলি পরিচালনা করে তাকেই ‘অর্থনৈতিক ব্যবস্থা’ (Economic system) বলে।

বর্তমানে পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে বিভিন্ন ধরনের অর্থনৈতিক ব্যবস্থা প্রচলিত রয়েছে। এগুলো হলো–
(১) ধনতান্ত্রিক অর্থব্যবস্থা।
(২) নির্দেশমূলক অর্থব্যবস্থা।
(৩) মিশ্র অর্থব্যবস্থা।
(৪) ইসলামী অর্থব্যবস্থা।

মিশ্র অর্থব্যবস্থা : যে অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় ব্যক্তি মালিকানা ও বেসরকারি উদ্যোগের পাশাপাশি সরকারি উদ্যোগ ও নিয়ন্ত্রণ বিরাজ করে, তাকে মিশ্র অর্থব্যবস্থা বলে। অর্থাৎ এ ধরনের অর্থব্যবস্থায় ব্যাক্তিগত ও সরকারি উদ্যোগ সম্মিলিত ভূমিকা পালন করে।

ইসলামি অর্থব্যবস্থা : যে অর্থব্যবস্থায় কুরআন ও হাদিসের বিধান অনুযায়ী মানুষের জীবিকা অর্জন এবং যাবতীয় অর্থনৈতিক কার্যাবলি সম্পাদিত হয়, তাকে ইসলামি অর্থব্যবস্থা বলে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x