ছত্রাক কি? (What is Fungus in Bengali/Bangla?)

ছত্রাক ক্লোরোফিলবিহীন এমন একটি জীবগোষ্ঠী যারা বিভিন্ন পরিবেশে মৃতজীবী অথবা পরজীবী হিসেবে বসবাস করে এবং খাদ্যকে শোষণ করে দেহের অভ্যন্তরে নেয়। উদ্ভিদ ও প্রাণীর দেহে এরা নানা ধরনের রোগ সৃষ্টি করে। অবশ্য বহুসংখ্যক ছত্রাক আমাদের প্রভূত উপকারও করে থাকে। পৃথিবীতে আনুমানিক ৯০,০০০ প্রজাতির ছত্রাক আছে।

ছত্রাকের বসতিঃ ছত্রাকের বাসস্থান বিচিত্রধর্মী। মাটি, পানি, বায়ু, উদ্ভিদ ও প্রাণীর দেহ, পচনশীল জীবদেহ বা দেহাবশেষ সর্বত্র ছত্রাক বাস করে। স্থলজ ছত্রাকগুলো সাধারণত জৈব পদার্থ বিশেষত হিউমাস সমৃদ্ধ মাটিতে ভালো জন্মে। জলজ ছত্রাকগুলো সাধারণত পানিতে অবস্থানকারী জীবসমূহের পচনশীল মৃতদেহের উপর বসবাস করে।

ছত্রাকের গঠন (Structure of Fungi)
ছত্রাকের দেহ সমাঙ্গ বা থ্যালাস প্রকৃতির। দেহটি এককোষী অথবা বহুকোষী হতে পারে। এককোষী ছত্রাকের দেহ একটি মাত্র গােলাকার বা ডিম্বাকার কোষ দ্বারা গঠিত, যেমন- Yeast। এই অঙ্গজ কোষটিই জনন কাজ করে থাকে। কিছু নিম্নশ্রেণির ছত্রাক ছাড়া অধিকাংশ ছত্রাকের কোষে একটি দৃঢ় কোষ প্রাচীর থাকে।

ছত্রাকের বৈশিষ্ট্য (Characteristics of Fungi)

জীবের বসবাস উপযোগী যে কোন মাধ্যমেই কোন না কোন ছত্রাক দেখা যায়। মাটি, পানি, বায়ু, উদ্ভিদ ও প্রাণীর দেহ, পচনশীল জীবদেহ বা দেহাবশেষ সর্বত্রই ছত্রাক বাস করে। স্থলজ ছত্রাকগুলি সাধারণত জৈব-পদার্থ বিশেষত হিউমাস (humus) সমৃদ্ধ মাটিতেই ভালােভাবে জন্মায়। স্থলজ ছত্রাকগুলি উন্নত শ্রেণির ছত্রাক হিসাবে বিবেচিত।
  • ছত্রাক থ্যালোফাইটা জাতীয় উদ্ভিদ অর্থাৎ এর দেহ মূল, কান্ড ও পাতায় বিভেদিত নয়।
  • এককোষী ছাড়া প্রায় সব ছত্রাকের দেহ শাখাহীন বা শাখান্বিত সুতার মতো হাইফি (hyphae) দিয়ে গঠিত।
  • এদের দেহে কোন ক্লোরোফিল থাকে না বলে এরা নিজেদের খাদ্য নিজেরা তৈরি করতে পারে না।
  • ছত্রাক পরজীবী, মৃতজীবী বা মিথোজীবী এবং শোষণ প্রক্রিয়ায় খাদ্য গ্রহন করে।
  • ছত্রাকের কোষপ্রাচীর প্রধানত কাইটিন (chitin) দিয়ে গঠিত। কোন কোন ক্ষেত্রে সেলুলোজ থাকে।
  • ছত্রাকের দেহের ভিতরে কোন পরিবহন টিস্যু নাই।
  • এদের যৌন অঙ্গগুলো এককোষী বা বহুকোষী, এরা চারপাশ থেকে কোন বন্ধ্যা কোষ দিয়ে আবৃত থাকে না। এদের বহুকোষী ভ্রুণ তৈরি হয় না।
  • কোষের প্রধান সঞ্চিত পদার্থ গ্লাইকোজেন বা চর্বি
  • ছত্রাক সাধারণত চলাফেরা করতে পারে না। তবে কিছু কিছু জনন কোষ (zoospore) চলনক্ষম।
  • এরা প্রধানত রেণু বা স্পোর উৎপাদনের মাধ্যমেই জনন ঘটায় এবং তা অযৌন ও যৌন পদ্ধতিতে উৎপন্ন হয়।
  • ছত্রাকের সূত্রকগুলো কেবলমাত্র অগ্রভাগ দিয়ে বৃদ্ধি পায়।
  • ছত্রাক সাধারণত স্যাঁতস্যাঁতে, আর্দ্রতাপূর্ণ ও ছায়াযুক্ত স্থানে জন্মায়।

ছত্রাকের গুরুত্ব (Importance of Fungi)
ছত্রাক আমাদের উপকার ও অপকার দুই ধরনের কাজই করে থাকে। পেনিসিলিনসহ অনেক মূল্যবান ঔষধ ছত্রাক থেকে পাওয়া যায়। পাউরুটি ফোলাতে ঈস্ট নামক ছত্রাক ব্যবহার করা হয়। ঈস্ট ভিটামিন সমৃদ্ধ বলে ট্যাবলেট হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এগারিকাস বর্তমানে শৌখিন খাদ্য বলে বিবেচিত। বর্তমানে আমাদের দেশসহ বহু দেশে এর চাষ করা হয়। আবর্জনা পচিয়ে মাটিতে মেশাতেও এদের ভূমিকা রয়েছে।

ছত্রাকের সংশ্লেষণ প্রতিরোধকরণ : ছত্রাকজনিত রোগ খুবই ছোঁয়াচে। তাই আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে এলে এ রোগ সংক্রমিত হতে পারে। এসব রোগ থেকে নিরাপদ থাকতে যা করা দরকার তা হলো :

i. ছত্রাকজনিত রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির ব্যবহৃত জিনিসপত্র (কাপড়-চোপড়, চিরুনি, টুপি, স্যান্ডেল) ব্যবহার না করা।

ii. ছত্রাকজনিত রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে কম আসা।

 

ছত্রাক সম্পর্কিত প্রশ্ন ও উত্তর

ছত্রাককে মৃতজীবী বলা হয় কেন?
উত্তরঃ ছত্রাক সমাঙ্গদেহী অসবুজ উদ্ভিদ। এদের দেহে ক্লোরোফিল নেই তাই এরা সালোকসংশ্লেষণের মাধ্যমে খাদ্য তৈরি করতে পারে না। এজন্য ছত্রাক পরভোজী উদ্ভিদ। অর্থাৎ খাদ্যের জন্য এরা জীবিত অথবা মৃত জীবদেহের ওপর নির্ভর করে। এ কারণেই ছত্রাককে মৃতজীবী বলা হয়ে থাকে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x