পড়াশোনা

চিনি কি? চিনির রাসায়নিক নাম কি?

1 min read

চিনি হচ্ছে একটি রাসায়নিক যৌগিক পদার্থ, যা মূলত কার্বন, হাইড্রোজেন ও অক্সিজেন নামের তিনটি ভিন্ন মৌলিক পদার্থের উপাদান দিয়ে তৈরি। চিনির রাসায়নিক নাম হলো সুক্রোজ।

রসায়ন (Chemistry) বিষয়ের আরও প্রশ্ন ও উত্তর
প্রশ্ন-১। জারণ অর্ধ সমীকরণ কাকে বলে?
উত্তরঃ জারণ বিজারণ বিক্রিয়ায় জারণ বিক্রিয়া দেখানোর জন্য যে সমীকরণের প্রয়োজন হয় সেই সমীকরণকে জারণ অর্ধ সমীকরণ বলে।

প্রশ্ন-২। ফ্রি রেডিক্যাল কাকে বলে?
উত্তরঃ সমযোজী সিগমা বন্ধনের সুষম ভাঙনের ফলে উৎপন্ন বিজোড় ইলেকট্রন যুক্ত পরমাণু বা মূলককে ফ্রি রেডিক্যাল বা মুক্ত মূলক বলে।

প্রশ্ন-৩। মেসোমারিক ইফেক্ট কি?
উত্তরঃ কার্বন পরমাণু ও অধিক তড়িৎঋণাত্মক মৌলের পরমাণুর মধ্যবর্তী পাই বন্ধনের ইলেকট্রনের ঘনত্ব অধিক তড়িৎঋণাত্মক পরমাণুর দিকে বেশি পরিমাণে আকৃষ্ট হয়ে পাই বন্ধনের ইলেকট্রনের এ স্থানান্তরই হলো মেসোমারিক ইফেক্ট।

প্রশ্ন-৪। e.m.f  কী?
উত্তরঃ তড়িৎ রাসায়নিক কোষে সৃষ্ট বিভব যা তড়িৎচার্জকে প্রবাহিত বা চালিত করে তারই নাম কোষের তড়িচ্চালক বা e.m.f বলে।

প্রশ্ন-৫। ক্লোরোজাইলিনল কি?
উত্তরঃ ক্লোরোজাইলিনল হলো 4 ক্লোরো 3, 5 ডাইমিথাইল ফেনল।

প্রশ্ন-৬। সারফেস ওয়াটারের বিশুদ্ধতার মানদণ্ড কি কি?
উত্তরঃ সারফেস ওয়াটারের বিশুদ্ধতার মানদণ্ড হলো খরতা, pH, পানিতে দ্রবীভূত অক্সিজেন (DO), প্রাণরাসায়নিক অক্সিজেন চাহিদা (BOD), রাসায়নিক অক্সিজেন চাহিদা (COD), পানিতে দ্রবীভূত ট্রেস উপাদান (TDS) ইত্যাদি।

প্রশ্ন-৭। হফম্যান ক্ষুদ্রাংশকরণ বিক্রিয়া কাকে বলে?
উত্তরঃ অ্যালকাইল বা অ্যারাইল অ্যামাইডকে ব্রোমিন ও গাঢ় কস্টিক সোডা দ্রবণসমূহ উত্তপ্ত করলে প্রাইমারি অ্যারোমেটিক অ্যামিন উৎপন্ন হয়। এ পদ্ধতিতে উৎপন্ন অ্যামিনে মূল মাতৃযৌগ অ্যামাইড অপেক্ষা একটি কার্বন কম থাকে বলে একে আবিষ্কারকের নামানুসারে হফম্যান ক্ষুদ্রাংশকরণ বিক্রিয়া বলে।

প্রশ্ন-৮। ভিনেগার এ কোন এসিড থাকে?
উত্তরঃ ভিনেগারে ইথানয়িক এসিড বা এসিটিক এসিড থাকে।

প্রশ্ন-৯। মোল ভগ্নাংশ কি?

উত্তরঃ মোল ভগ্নাংশ হলো কোনো মিশ্রণে একটি উপাদানের মোল সংখ্যাকে উক্ত মিশ্রণের সব উপাদানের মোল সংখ্যার যোগফল দ্বারা ভাগ করে প্রাপ্ত ভাগফল।

প্রশ্ন-১০। কোষে লবণ সেতুর ভূমিকা ব্যাখ্যা কর।
উত্তরঃ কোষে লবণ সেতুর ভূমিকা নিচে ব্যাখ্যা করা হলো-

  • লবণ সেতু অর্ধকোষদ্বয়ের উভয় দ্রবণের মধ্যে সংযোগ স্থাপন করে কোষের বর্তনী পূর্ণ করে।
  • লবণ সেতুর মধ্যস্থ তড়িৎবিশ্লেষ্য KNO3 উভয় অর্ধকোষের দ্রবণের সাথে কোন রাসায়নিক বিক্রিয়া করে না; বরং উভয় তরলের মধ্যে প্রয়োজনমতো ধনাত্মক ও ঋণাত্মক আয়ন বিনিময়ের ব্যাপন প্রক্রিয়ার মাধ্যমরূপে কাজ করে।
  • লবণ সেতু উভয় অর্ধকোষের দ্রবণের তড়িৎ-নিরপেক্ষতা বজায় রাখতে কাজ করে।
Rate this post
Mithu Khan

I am a blogger and educator with a passion for sharing knowledge and insights with others. I am currently studying for my honors degree in mathematics at Govt. Edward College, Pabna.

Leave a Comment