পকেট রাউটার হলো ওয়াইফাই রাউটার এর মতো একটি যন্ত্র, যার সাহায্যে যেকেউ এর নেটওয়ার্কের আওতাভুক্ত হয়ে ইন্টারনেট চালাতে পারবেন। পকেট রাউটার এর সাইজ ছোট তাই এই রাউটারটিকে পকেটে করে যেকোন জায়গায় নেওয়া যায়। এটি দেখতে ইন্টারনেট মডেম এর মতই ছোট এবং কিছুটা মডেমের মতই কাজ করে থাকে। কিন্তু মডেমে ইনপুট করে ইন্টারনেট চালাতে হয় আর পকেট রাউটারে ওয়াইফাই কানেক্ট করে চালানো যাই। এর সুবিধা হলাে একটু বেশি স্পিড পাওয়া যায় আর কয়েকজন একসাথে চালানো যায়। আপনি যেকোন সিমই ঐটাতে ঢুকিয়ে ইন্টারনেট চালাতে পারবেন। ইন্টারনেট প্যাকেজ সাধারণ মোবাইলের প্যাকেজের মতই।

আনলিমিটেড ডেটা ব্যবহার করা যাবে কিনা?
পকেট রাউটার অনিলিমিটেড না। আপনি যে ডাটা  ক্রয় করবেন সেটাই ইউজ করতে পারবেন। পকেট রাউটারের কাজটা আপনি আপনার স্মার্টফোন থেকেই করতে পারেন (wifi এর মাধ্যমে)। বাড়তি রাউটার কেনার দরকার নাই।
– তো ভাবছেন কেন ব্যবহার করবেন?
উত্তরঃ আপনি এটা ব্যবহারের মাধ্যমে প্রচুর পরিমাণে স্পিড পাবেন যেটা সাধারণ মোবাইল নেটওয়ার্কে পান না।

পকেট রাউটারের দাম কত?
কিছু পকেট রাউটার এর দামঃ
(১) Tenda ওয়্যারলেস পকেট 3g রাউটার – ১৭০০ টাকা।
(২) মিনি usb wifi রাউটার – ৫৯৯ টাকা।
( ৩ ) Will dongle (802.1n ) – ৪০০-৫০০ টাকা।
( ৪ ) xiaomi wifi usb রাউটার – ৪০০ টাকা।

ব্যবহারের নিয়ম
প্রথমে পকেট রাউটারে আপনার সিম কার্ডটি প্রবেশ করাতে হবে। তারপরে অবশ্যই নিদিষ্ট ডাটা প্যাক কিনে নিবেন। তারপর আপনার ফোনের সাথে কানেক্ট করতে USB ক্যাবল ব্যবহার করতে হবে অথবা ফোনের ওয়াইফাই চালু করে তা কানেক্ট করতে হবে। যেসব এলাকায় নেটওয়ার্ক এর সমস্যা তারা পকেট রাউটার ব্যবহার করার মাধ্যমে পূর্বের তুলনায় স্পিড বেশি পাবেন। ফলে এই সুবিধার জন্য বেশির ভাগ; বলতে হয় যারা বেশি নেটের কাজ করে তারা ব্যবহার করে থাকে।

পকেট রাউটারের সুবিধা
পকেট রাউটার পকেটে করে যেদিকে খুশি নেওয়া যায় এবং নিজের ইচ্ছামত মেগাবাইট (এমবি) কিনে খরচ করা যায়। সবচেয়ে ভালো স্পিড পাওয়া যায় ফোরজি (4G) পকেট রাউটারগুলোতে।

 

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x