ডাটা কমিউনিকেশনের ক্ষেত্রে ডাটা প্রবাহের দিককে ডাটা ট্রান্সমিশন মোড বলা হয়। ডাটা ট্রান্সমিশন মোডকে প্রধানত তিন ভাগে ভাগ করা হয়। যেমন—

১) ইউনিকাস্ট (Unicast)
২) ব্রডকাস্ট (Broadcast)
৩) মাল্টিকাস্ট (Multicast)

১) ইউনিকাস্ট (Unicast) : ডাটা ট্রান্সমিশনের এই মোডকে আবার তিন ভাগে ভাগ করা হয়েছে। যথা—
১. Simplex
২. Half Duplex
৩. Full Duplex

 

  • Simplex : এই প্রক্রিয়ায় শুধু একদিকে ডাটা পাঠানোর ব্যবস্থা থাকে। এ ব্যবস্থায় ডাটা প্রেরণ ও গ্রহণের মধ্যে শুধু একটি ব্যবস্থা সম্ভব। যেমন—A থেকে B এর দিকে ডাটা যেতে পারবে; কিন্তু ই থেকে A এর দিকে আসতে পারবে না। উদাহরণ—PA System, Radio, TV ইত্যাদি।
  • Half Duplex : এ ব্যবস্থায় দুদিক থেকে ডাটা প্রেরণ করতে পারবে, তবে একই সময়ে কেবল ডাটা গ্রহণ অথবা প্রেরণ করতে পারবে। ডাটা প্রেরণ ও গ্রহণ একসঙ্গে করতে পারবে না। যে সময় প্রেরণ করবে সে সময় গ্রহণ করতে পারবে না। যেমন—যে সময় অ থেকে ই এর দিকে ডাটা যাবে, সে সময় ই থেকে অ এর দিকে আসতে পারবে না। আবার যে সময় ই থেকে অ এর দিকে ডাটা যাবে, সে সময় অ থেকে ই এর দিকে আসতে পারবে না। উদাহরণ—Walky Talky|
  • Full Duplex : এ ব্যবস্থায় একই সময়ে দুদিক থেকে ডাটা গ্রহণ ও প্রেরণ করতে পারবে। যেমন—যে সময়ে অ থেকে B এর দিকে ডাটা যেতে পারবে, সেই সময়ে ই থেকে A এর দিকে ডাটা আসতে পারবে। উদাহরণ—Telephone, Mobile, Internet|

 

২) ব্রডকাস্ট (Broadcast) : এই ব্যবস্থায় নেটওয়ার্কের কোনো একটি কম্পিউটার বা নোড থেকে ডাটা ট্রান্সমিট করলে নেটওয়ার্কের অধীন সব নোডই গ্রহণ করতে পারে। যেমন টিভি কেন্দ্র থেকে অনুষ্ঠান সম্প্রচার করলে সব গ্রাহকযন্ত্রে তা ধরা পড়ে। চিত্রে অ থেকে পাঠানো ডাটা B, C, D, E সব নোডই গ্রহণ করতে পারবে।

৩) মাল্টিকাস্ট (Multicast) : এ ব্যবস্থায় নেটওয়ার্কের কোনো কম্পিউটার বা নোড ডাটা ট্রান্সমিট করলে একই গ্রুপের কোনো নোড অথবা নির্দিষ্ট কোনো নোড গ্রহণ করতে পারবে। নেটওয়ার্কের অধীন হলেও অন্যান্য নোড ডাটা গ্রহণ করতে পারবে না। যেমন—টেলিকনফারেন্সিং বা ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের ক্ষেত্রে অনুমোদিত ব্যক্তি ছাড়া অন্যরা অংশগ্রহণ করতে পারে না।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x