প্রশ্ন-১। ভরত্রুটি কাকে বলে?

উত্তরঃ নিউক্লিয়াস গঠনকারী উপাদানসমূহের ভরের সমষ্টি অপেক্ষা নিউক্লিয়াসের ভর কিছুটা কম হয়। ভরের এ পার্থক্যকে ভরত্রুটি বলে।

প্রশ্ন-২। বন্ধন শক্তি কাকে বলে?

উত্তরঃ প্রোটন ও নিউট্রনগুলোকে নিউক্লিয়াসে একত্রে বেধে রাখতে যে শক্তির প্রয়োজন তাকে নিউক্লিয়াসের বন্ধন শক্তি বলে।

প্রশ্ন-৩। এক্স-রে কাকে বলে?

উত্তরঃ দ্রুতগতি সম্পন্ন ইলেকট্রন কোন ধাতুকে আঘাত করলে তা থেকে উচ্চ ভেদন ক্ষমতাসম্পন্ন অজানা প্রকৃতির এক প্রকার বিকিরণ উৎপন্ন হয়, এ বিকিরণকে এক্স-রে বলে।

প্রশ্ন-৪। অর্ধায়ু কাকে বলে?

উত্তরঃ কোনো তেজস্ক্রিয় মৌলের পরমাণু সংখ্যা যে সময়ে অর্ধেকে পরিণত হয় সে সময়কে ঐ তেজস্ক্রিয় মৌলের অর্ধায়ু বলে।

প্রশ্ন-৫। মৌলিক বল কাকে বলে?

উত্তরঃ যে সকল বল মূল বা অকৃত্রিম অর্থাৎ অন্য কোনো বল থেকে উৎপন্ন হয় না বরং অন্যান্য বলে এ সকল বলের প্রকাশ তাদেরকে মৌলিক বল বলে।

প্রশ্ন-৬। পরমাণু কী?

উত্তরঃ জড় পদার্থ কতকগুলো অবিভাজ্য ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র কণিকা দ্বারা গঠিত যার নাম অ্যাটম বা পরমাণু।

প্রশ্ন-৭। ক্যাথোড রশ্মির মধ্যে কে ইলেকট্রনের সন্ধান পান?

উত্তরঃ ক্যাথোড রশ্মির মধ্যে স্যার জে. জে. থমসন ইলেকট্রনের সন্ধান পান।

প্রশ্ন-৮। অবক্ষয় ধ্রুবক কাকে বলে?

উত্তর : কোনো তেজস্ক্রিয় পদার্থের একটি পরমাণু একক সময়ে ভেঙ্গে যাওয়ার সম্ভাব্যতাকে ঐ পদার্থের অবক্ষয় ধ্রুবক বলে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x