প্রশ্ন-১. অ্যামিটার কী কাজে প্রয়োজন হয়?

অথবা, অ্যামিটার দিয়ে কী পরিমাপ করা হয়?

উত্তর : অ্যামিটার দিয়ে বৈদ্যুতিক কারেন্ট পরিমাপ করা হয়।

প্রশ্ন-২. ওহম মিটার এমন একটি যন্ত্র যার সাহায্যে কী পরিমাপ করা হয়?

উত্তর : রেজিস্ট্যান্স।

প্রশ্ন-৩. একটি ওহম মিটার যখন অপারেশন করে না, তখন নিডেলটি কত রেজিস্ট্যান্স দেখায়?

উত্তর : ইনফিনিটি বা অসীম।

প্রশ্ন-৪. ওহম মিটার কোন ধরনের সরবরাহের কাজ করে?

উত্তর : ডিসি সরবরাহের কাজে।

প্রশ্ন-৫. ওহম মিটার কোথা হতে সরবরাহ পায়?

উত্তর : মিটারের মধ্যস্থিত ব্যাটারি হতে।

প্রশ্ন-৬. ওয়াটমিটারের রেঞ্জ কত?

উত্তর : ওয়াটমিটারের রেঞ্জ : 0W হতে 1000W পর্যন্ত হয়ে থাকে।

প্রশ্ন-৭. যে যন্ত্রের সাহায্যে পাওয়ার পরিমাপ করা হয় তার নাম কী?

উত্তর : ওয়াটমিটার।

প্রশ্ন-৮. ভোল্টমিটারের ডায়ালে ‘—’ চিহ্ন থাকলে এ দ্বারা কী বোঝায়?

উত্তর : ডিসি ভোল্টেজ পরিমাপ করা যাবে।

প্রশ্ন-৯. ভোল্টমিটার কী কাজে প্রয়োজন হয়?

উত্তর : ভোল্টেজ পরিমাপের কাজে।

প্রশ্ন-১০. একটি অ্যামিটারের রেঞ্জ 20Amp স্কেলের ভাগ সংখ্যা 40। মিটারটির কাটা 32 ভাগ বিক্ষেপ দেখালে কারেন্ট কত হবে?

উত্তর : মূল ভাগ 40 হলে প্রতি ভাগের মান হবে (20 ÷ 40) = 0.5 Amp

সুতরাং 32 ভাগ বিক্ষেপ দেখালে কারেন্ট I = 0.5 × 32 = 16 Amp হবে।

প্রশ্ন-১১. অ্যামিটারের ডায়ালে (~) চিহ্ন থাকলে এটি দ্বারা কী বোঝায়?

উত্তর : এসি কারেন্ট পরিমাপ করা যাবে।

By admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x