পড়াশোনা
1 min read

জলবিদ্যুৎ কাকে বলে? জলবিদ্যুৎ এর সুবিধা ও অসুবিধা কি?

Updated On :

জলবিদ্যুৎ কাকে বলে? (What is called Hydroelectricity in Bengali/Bangla?)

পানির প্রবাহ বা স্রোতকে কাজে লাগিয়ে যে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয় তাকে জলবিদ্যুৎ (Hydroelectricity) বলে। এতে পানির বিভব শক্তিকে কাজে লাগানো হয়। এটি নবায়নযোগ্য শক্তিগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রচলিত।

জলবিদ্যুৎ কীভাবে তৈরি হয়?
পানিকে বাঁধ দিয়ে আটকালে এর উচ্চতা বৃদ্ধি পায়। এর ফলে এর মধ্যে বিভবশক্তি জমা হয়। সাধারণত কোন পাহাড়ের উপত্যকায় নিচের প্রান্তে বাঁধ দিয়ে কাজ করা হয়। নদী থেকে আসা পানি বাধা পেয়ে বাঁধের পেছনে কৃত্রিম হ্রদের সৃষ্টি করে। পানিপূর্ণ হ্রদ থেকে পানি একটি মোটা নলের ভেতর দিয়ে নিচে অবস্থিত একটি তড়িৎ উৎপাদন কেন্দ্রে প্রবাহিত করা হয়। পানি পতনের সময় এই বিভবশক্তি গতিশক্তিতে রূপান্তরিত হয়। এ গতিশক্তি একটি টারবাইনকে ঘোরায়। টারবাইনটি একটি তড়িৎ জেনারেটরের সাথে সরাসরি যুক্ত থাকে। এ জেনারেটরে তড়িৎ উৎপন্ন হয়। এই উৎপন্ন তড়িৎকে জলবিদ্যুৎ বলা হয়।

জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের সুবিধা কী?

জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের সুবিধা হলো তুলনামূলকভাবে খুব কম খরচে এই বিদ্যুৎ উৎপাদন করা যায়। তাছাড়া এ প্রযুক্তি পরিবেশবান্ধব।

বর্তমান বিশ্বে তেল, কয়লা, গ্যাস বা পারমাণবিক চুল্লি ব্যবহারের মাধ্যমে যে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয় তার উৎপাদন খরচ অনেক বেশি। সেই তুলনায় জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের খরচ অনেক কম। বাংলাদেশে পার্বত্য চট্টগ্রামের কাপ্তাইয়ে কর্ণফুলী নদীতে বাঁধ দিয়ে জলবিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয়।

জলবিদ্যুৎ এর অসুবিধা (Disadvantages of Hydroelectricity)

  • Water Catchment Area- এর জন্য অনেক জায়গা ব্যবহৃত হয় বলে উক্ত এলাকায় বসবাসরত মানুষের ব্যাপক ক্ষতি সাধিত হয়।
  • Plant Installation খরচ বেশি লাগে।

 

 

শেষ কথা:
আশা করি আপনাদের এই আর্টিকেলটি পছন্দ হয়েছে। আমি সর্বদা চেষ্টা করি যেন আপনারা সঠিক তথ্যটি খুজে পান। যদি আপনাদের এই “জলবিদ্যুৎ কাকে বলে?” আর্টিকেলটি পছন্দ হয়ে থাকলে, অবশ্যই ৫ স্টার রেটিং দিবেন।
5/5 - (56 votes)