Modal Ad Example
পড়াশোনা

ডেটা কি? ডেটা কত প্রকার ও কি কি? (Data in Bengali)

1 min read

ডেটা (Data) শব্দটি ল্যাটিন শব্দ Datum-এর বহুবচন। Datum অর্থ হচ্ছে তথ্যের উপাদান। তথ্যের অন্তর্ভুক্ত ক্ষুদ্রতর অংশসমূহ হচ্ছে ডেটা বা উপাত্ত। প্রক্রিয়াকরণ করে তথ্যে পরিণত করার জন্য কম্পিউটারে ডেটা বা উপাত্তসমূহকে ইনপুট বা সরবরাহ করা হয়। কম্পিউটার মূলত ডেটাকে প্রক্রিয়া বা প্রসেস করে তথ্যে রূপান্তরিত করে। যেমন- কোন একটি প্রতিষ্ঠানের কর্মীদের পে-রােল তৈরি করার জন্য তাদের নাম, পদবি, কোড নং, মূল বেতন ইত্যাদি হলাে ডেটা। ডেটা বিভিন্ন ভাষার প্রতীক, যেমন- অ, ক, A, B, f, 1, 3 ইত্যাদি অথবা কোন ছবি, যেমন- চন্দ্র, সূর্য, গাড়ি, এ্যারােপ্লেন বা অন্য যেকোন কিছু হতে পারে। এ প্রতীকগুলােকে কম্পিউটারে বােঝার উপযােগী করার জন্য কম্পিউটারের ভাষায় বা মেশিন কোডে রূপান্তরের ব্যবস্থা থাকে।

ডেটার প্রকারভেদ
ডেটা প্রধানত তিন প্রকার, যথাঃ
১. নিউমেরিক ডেটা (Numeric Data)
২. বুলিয়ান ডেটা (Boolean Data)
৩. নন-নিউমেরিক ডেটা (Non-Numeric Data)

নিউমেরিক ডেটা (Numeric Data)
নিউমেরিক অর্থ হচ্ছে অঙ্ক। অঙ্ক দিয়ে তৈরি হয় সংখ্যা। যে সকল ডেটা দ্বারা কোন পরিমাণ বা সংখ্যা বােঝানাে হয় তাই নিউমেরিক ডেটা। পরিমাণ দুই রকম হতে পারে। যথা, পূর্ণ এবং ভগ্নাংশ। তাই নিউমেরিক ডেটাও দুই প্রকার।
১. পূর্ণ নিউমেরিক ডেটা ও
২. ভগ্নাংশ নিউমেরিক ডেটা
এদেরকে যথাক্রমে ইন্টিজার (Integer) ও ফ্লোটিং পয়েন্ট (Floating Point) বলা হয়। ইন্টিজার আবার অনেক রকমের হয়ে থাকে। যেমন- বাইট (Byte), লং (Long), সাইন (Sign), আন-সাইন (Unsign) ইত্যাদি। একইভাবে ফ্লোটিং পয়েন্টও একাধিক রকমের হয়ে থাকে। যেমন- ফ্লোট (Float), ডাবল (Double) ইত্যাদি। এসবই নির্ভর করে বিভিন্ন প্রােগ্রামিং ভাষার গঠনের উপর।বুলিয়ান ডেটা (Boolean Data)

বুলিয়ান ডেটার দুইটি রূপ থাকে। যথা- সত্য এবং মিথ্যা (True or False)। সাধারণত কোন নির্দিষ্ট অবস্থার সত্য বা মিথ্যা অবস্থা (Condition) বােঝাবার জন্য বুলিয়ান ডেটা ব্যবহার করা হয়।

নন-নিউমেরিক ডেটা (Non-numeric Data)
বুলিয়ান ডেটা ও নিউমেরিক ডেটা ব্যতীত অন্য যেসব ডেটা আছে। তাদের অ-নিউমেরিক ডেটা বলে। যেমন, কোন কিছুর ইমেজ (Image), শব্দ (Audio), অক্ষর (Character), বাক্য (Sentence), কোন কিছুর নাম ইত্যাদি অনেক কিছুই হতে পারে। অ-নিউমেরিক ডেটাগুলােকে আবার প্রধান তিন শ্রেণিতে ভাগ করা হয়। যথাঃ
১. ক্যারেক্টার (Character)
২. স্ট্রিং (String)
৩. অবজেক্ট (Object)

ক্যারেক্টার (Character)
যেকোন অক্ষর, প্রতীক বা চিহ্ন ক্যারেক্টার টাইপের ডেটার উদাহরণ। যেমন A, ক, খ, b ইত্যাদি বিভিন্ন ক্যারেক্টার টাইপের ডেটার উদাহরণ।

স্ট্রিং (String)
স্ট্রিং এর ধারণা একটু ব্যাপক। একাধিক ক্যারেক্টারের সমন্বয়ে স্ট্রিং গঠিত হতে পারে। যেমন, Book একটি স্ট্রিং। আবার অণু, কিরণ, সৈয়দপুর নামগুলােও এক একটি স্ট্রিং।

অবজেক্ট (Object)
আক্ষরিক অর্থে অবজেক্ট মানে হচ্ছে বস্তু। তবে অবজেক্ট ডেটা টাইপটি সামষ্টিক অর্থে ব্যবহৃত হয়। এখানে অবজেক্ট হতে পারে অনেক কিছু। যেমন, একটি ভিডিও, অডিও, ছবি বা গ্রাফিক্স ফাইল। আবার কোন ইনফরমেশন সিস্টেমের একটি সামগ্রিক পদ্ধতিও অবজেক্ট হতে পারে। আধুনিক ইনফরমেশন সিস্টেমে অবজেক্ট একটি গুরত্বপূর্ণ ডেটা টাইপ।

শেষ কথা:
আশা করি আপনাদের এই আর্টিকেলটি পছন্দ হয়েছে। আমি সর্বদা চেষ্টা করি যেন আপনারা সঠিক তথ্যটি খুজে পান। যদি আপনাদের এই “ডেটা কি? ডেটা কত প্রকার ও কি কি?” আর্টিকেল পছন্দ হয়ে থাকে, তাহলে অবশ্যই ৫ স্টার রেটিং দিবেন।
4.9/5 - (39 votes)
Mithu Khan

I am a blogger and educator with a passion for sharing knowledge and insights with others. I am currently studying for my honors degree in mathematics at Govt. Edward College, Pabna.

x