Islamic

মাক্কী ও মাদানী সূরা কাকে বলে? মাক্কী ও মাদানী সূরার বৈশিষ্ট্য কি কি?

1 min read

পবিত্র কুরআনে মোট ১১৪টি সূরা রয়েছে। এই সূরাগুলোকে দুই ভাগে ভাগ করা হয়েছে। একটি অংশ হচ্ছে মাক্কী সূরা অপরটি মাদানী সূরা

মাক্কী ও মাদানী সূরা
মাক্কী সূরা বলতে মহানবি (স.)-এর মক্কা থেকে মদিনায় হিজরতের পূর্বে অবতীর্ণ হওয়া সূরাসমূহকে বোঝায়। আল কুরআনে মাক্কী সূরার সংখ্যা মোট ৮৬টি। আর মহানবি (স.)-এর মদিনায় হিজরতের পর যে সমস্ত সূরা নাজিল হয়েছে সেগুলোকে মাদানী সূরা বলে। পবিত্র কুরআনে মাদানী সূরার সংখ্যা মোট ২৮টি।
মাক্কী ও মাদানী সূরার বৈশিষ্ট্য
মাক্কী সূরার বৈশিষ্ট্যগুলো হলোঃ
  • মাক্কী সূরাসমূহে তাওহীদ ও রিসালাতের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।
  • মৃত্যুর পরবর্তী জীবন কেয়ামত, জান্নাত জাহান্নাম তথা আখিরাতের বর্ণনা মাক্কী সূরা সমূহ প্রাধান্য পেয়েছে।
  • শিরক ও কুফরের পরিচয় বর্ণনা করে এগুলোর অসারতা প্রমাণ করা হয়েছে।
  • মুশরিক ও কাফেরদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেওয়া হয়েছে।
  • এতে পূর্ববর্তী মুশরিক ও কাফেরদের হত্যাযজ্ঞের কাহিনী, ইয়াতিমদের সম্পদ হরণ করা, কন্যা সন্তানকে জীবন্ত কবর দেওয়া ইত্যাদি কুপ্রথা ও কু আচরণের বিবরণ রয়েছে।
  • পূর্ববর্তী নবী-রাসূলগণের সফলতা ও তাদের অবাধ্যদের শোচনীয় পরিণতির বর্ণনা করা হয়েছে।
  • এ সূরাগুলোতে শরীয়তের সাধারণ নীতিমালা উল্লেখ রয়েছে।
  • এতে উত্তম চরিত্র বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করা হয়েছে।
  • মাক্কী সূরা সমূহ সাধারণত আকারে ছোট এবং আয়াতগুলো তুলনামূলকভাবে ছোট।
  • এর শব্দমালা শক্তিশালী, ভাবগম্ভীর ও অন্তরে প্রকম্পন সৃষ্টিকারী।
  • এতে প্রসিদ্ধ বিষয়সমূহ শপথের মাধ্যমে উপস্থাপন করা হয়েছে।

 

মাদানী সূরার বৈশিষ্ট্যগুলো হলোঃ
  • মাদানী সূরা সমূহ ইহুদি ও খ্রিস্টানদের প্রতি ইসলামের আহবান জানানো হয়েছে।
  • এতে আহলে-কিতাবের পথভ্রষ্টতা ও তাদের কিতাব বিকৃত কথা বর্ণনা করা হয়েছে।
  • মাদানী সূরা সমূহ নিফাকের পরিচয় ও মুনাফিকের ষড়যন্ত্রের কথা উল্লেখ রয়েছে।
  • ব্যক্তিগত, পারিবারিক, সামাজিক, জাতীয়, আন্তর্জাতিক, শিক্ষা ও সাংস্কৃতিক নীতিমালা বর্ণিত হয়েছে।
  • পারস্পরিক লেনদেন, উত্তরাধিকার আইন, ব্যবসা বাণিজ্য, ক্রয়-বিক্রয় সহ যাবতীয় অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের
  • বিধান বর্ণিত হয়েছে।
  • বিচারব্যবস্থা, দন্ডবিধি, জিহাদ, পররাষ্ট্র নীতি ইত্যাদি বিষয়ে আলোচনা করা হয়েছে
  • ইবাদতে রীতিনীতি, সালাত, সাওম, হজ, যাকাত ইত্যাদি বিষয়ে বর্ণনা করা হয়েছে।
  • শরীয়তের বিধি-বিধান, ফরজ, ওয়াজীব, হালাল হারাম ইত্যাদির সুস্পষ্ট বর্ণনা রয়েছে।
  • মাদানী সূরা গুলো ও এর আয়াতসমূহ তুলনামূলকভাবে দীর্ঘ।

শেষ কথা:
আশা করি আপনাদের এই আর্টিকেলটি পছন্দ হয়েছে। আমি সর্বদা চেষ্টা করি যেন আপনারা সঠিক তথ্যটি খুজে পান। যদি আপনাদের এই “মাক্কী ও মাদানী সূরা কাকে বলে? ” আর্টিকেল পছন্দ হয়ে থাকে, তাহলে অবশ্যই ৫ স্টার রেটিং দিবেন।

4.9/5 - (178 votes)
Mithu Khan

I am a blogger and educator with a passion for sharing knowledge and insights with others. I am currently studying for my honors degree in mathematics at Govt. Edward College, Pabna.